জমজমাট প্রতিবেদক

দেবাশীষ বিশ্বাসের উপস্থাপনায় শুরু হয়েছে ব্যাংকারদের নিয়ে রিয়েলিটি শো ‘ব্যাংকার ভয়েজ’। নিজেদের সুপ্ত প্রতিভা মেলে ধরবেন ব্যাংকাররা, মন খুলে গাইবেন গান। প্রতিনিয়ত কঠিন চ্যালেঞ্জের ভেতর দিয়ে যেতে হয় ব্যাংক কর্মকর্তাদের। কিন্তু তাদেরও রয়েছে সুপ্ত প্রতিভা। সেই সুপ্ত প্রতিভার খোঁজে ‘ব্যাংকার্স ভয়েজ’ নামের রিয়েলিটি শোর আয়োজন করেছে কিংবদন্তি মিডিয়া।

চলচ্চিত্র পরিচালক ও উপস্থাপক দেবাশীষ বিশ্বাস বলেন,গত ১৬ সেপ্টেম্বর থেকে রেকর্ডিং শুরু হয়েছে এই রিয়েলিটি শোর। গতকাল পর্যন্ত ১৩টি পর্বের শুটিং শেষ হয়েছে। গ্র্যান্ড ফিনালে ব্যতিত সব পর্বের শুটিং শেষ। ইতিমধ্যেই বেছে নেওয়া হয়েছে শীর্ষ ২২ জনকে। নভেম্বর বা ডিসেম্বরের দিকে গ্র্যান্ড ফিনালে অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ২২ জনের ভেতর থেকে বেছে নেওয়া হবে বিজয়ীকে। বিচারক হিসেবে আছেন রফিকুল আলম, মিতালী মুখার্জি ও ফেরদৌস ওয়াহিদ। অনুষ্ঠানটি প্রচারিত হবে এসএ টিভিতে।

তাদের অনেককেই ব্যাংকার মনে হয়নি। মনে হয়েছে সত্যিকারের কণ্ঠশিল্পী। আমি অবাক হয়েছি যে, তারা কণ্ঠশিল্পী না হয়ে ব্যাংকার হলেন কেন! তারা যদি শুধু গানটাকে পেশা হিসেবে নিতেন তাহলেই বেশি ভালো হতো।

তিন হাজার প্রতিযোগী রেজিস্ট্রেশন করেছিলেন। সেখান থেকে প্রাথমিক বাছাই শেষে ২০০ জনকে বেছে নেওয়া হয়। তারপর ৪০ জনকে এবং শেষধাপে ২২ জনকে বেছে নেওয়া হয়েছে। তাদের মধ্যে থেকে দর্শকদের ভোটের মাধ্যমে বিজয়ীকে বেছে নেওয়া হবে।

দেবাশীষ বিশ্বাস আরো বলেন, ‘ব্যাংকারদের নিয়ে এমন প্রতিযোগিতা এর আগে হয়নি। এটার উপস্থাপনার অভিজ্ঞতা ভালো। আমি তো এর আগেও অনেক রিয়েলিটি শো উপস্থাপনা করেছি, কিন্তু এই শো’টা আমার জন্য একটু ব্যতিক্রম। কারণ এখানে অংশ নিয়েছেন ব্যাংকাররা। আর তাদের অনেককেই ব্যাংকার মনে হয়নি। মনে হয়েছে সত্যিকারের কণ্ঠশিল্পী। অন্তত পাঁচজন শিল্পীকে পেয়েছি যাদের দিয়ে প্লেব্যাকও করানো সম্ভব। একদম তৈরি গলা।

Previous article৪৭ হাজার সদস্যের ভার্চুয়াল পাখি হাসপাতাল
Next articleচরকি ঘুরিয়ে অপু বিশ্বাসের ‘লাল শাড়ি’র শুভ মহরত

Leave a Reply