জমজমাট ডেস্ক

১৯৬৬ সালের ১৬ আগস্ট আজকের দিনে টাঙ্গাইলের নাগরপুর থানায় ধুবড়িয়া গ্রামে তারানা হালিম জন্ম গ্রহন করেন। তার পিতা এম এ হালিম ছিলেন আয়কর কমিশনার ও পরবর্তীকালে বাংলাদেশের অর্থ মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব এবং মা আখতার হালিম বিদ্যালয়ের শিক্ষক ছিলেন। তাদের তিন সন্তানের মধ্যে তারানা কনিষ্ঠ। একাধারে তিনি অভিনেত্রী, পরিচালক, লেখক, আইনজীবী, রাজনীতিবিদ এবং সমাজকর্মী।

বিদ্যালয়ে অধ্যয়নকালে মাত্র পাঁচ বছর বয়সে ‘ঘুঘু ও শিকারী’ শিরোনামের একটি নাটকে ‘পিঁপড়া’ চরিত্রে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে অভিনয়ে তারানার হাতেখড়ি ঘটে। পরবর্তীতে কলেজে অধ্যয়নের শুরুতে অভিনয় করেন ‘ঢাকায় থাকি’ টেলিভিশন নাটকে।

চলচ্চিত্র অভিনেতা ফারুকের সঙ্গে তার ছোট বোনের চরিত্রে ‘সাহেব’ শিরোনামের বাংলা চলচ্চিত্রে অভিনয়ের পর অলোচনায় আসেন তিনি। বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নকালে ‘অয়োময়’ টেলিভিশন নাটকে ‘মদিনা’ চরিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে দর্শকদের আকৃষ্ট করেন।

তিনি আমজাদ হোসেন পরিচালিত ‘গোলাপী এখন ট্রেনে’ (১৯৭৮) চলচ্চিত্রেও অভিনয় করেছেন। এছাড়াও তিনি চ্যানেল আইতে ‘জীবন যেখানে যেমন’ শিরোনামের একটি অনুষ্ঠানে উপস্থাপনা করেছেন।

এই অভিনেত্রীর কৈশোর থেকেই রাজনীতির প্রতি ঝোঁক ছিল। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে তৃতীয় বর্ষে অধ্যয়নকালে যুবলীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক নির্বাচিত হন তিনি। পরবর্তীতে পর্যায়ক্রমে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। ২০০৯ সালে তিনি জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত আসনে সংসদ সদস্য হিসেবে প্রথম নির্বাচিত হন।

পরবর্তীতে ২০১৪ সালে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পুনরায় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন তিনি। তিনি ১৪ জুলাই ২০১৫ সালে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব প্রাপ্ত হন।

Previous articleআইফোনের জন্য আত্মহত্যা করলেন সঙ্গীতশিল্পী আঁচল সাহা
Next articleঅভিনেত্রী প্রভা পাপ থেকে বাঁচতে যা বললেন

Leave a Reply