রঞ্জু সরকার

বাংলা চলচ্চিত্র অন্যতম বিনোদনের মাধ্যম। একটা সময় ছিলো যখন নতুন নতুন চলচ্চিত্র দেখার জন্য মুখিয়ে থাকতেন। নায়ক-নায়কিদের মত করে নিজেদের সাজাতো। চলচ্চিত্রের সেই সোনালি সময় আজ শুধুই অতীত। দীর্ঘ সময় ধরে চলচ্চিত্রের অবস্থা বেশ খারাপ। নির্মিত হচ্ছে না ভালো মানের চলচ্চিত্র। কমছে প্রেক্ষাগৃহের সংখ্যা। দর্শক হচ্ছেন হলবিমুখ। চলচ্চিত্রের এই অবস্থা থেকে উত্তরণের জন্য চালিয়ে যাওয়া হচ্ছে নানা চেষ্টা।

গত রোজার ঈদেও তেমন ভাবে দর্শকদের হলমুখি হতে দেখা যায়নি। তবে এবারের ঈদে প্রেক্ষাগৃহের চিত্র বদলে গিয়েছে পুরোপুরি। দীর্ঘদিন পর দেশের সিনেমা ইন্ডাস্ট্রিতে বইতে শুরু করেছে সুবাতাস। ফিরছে বাংলা সিনেমার হাল, ঘুরে দাঁড়াচ্ছে ঢালিউড ইন্ডাস্ট্রি, প্রেক্ষাগৃহে ফিরছে দর্শক, আশা জাগাচ্ছে সিনেমা।

এবার ঈদে মুক্তি পাওয়া ‘পরাণ’ চলচ্চিত্রটি ৫ম সপ্তাহেও হাউজ ফুল চলছে। শুধু তাই নয় ঈদে মুক্তি পাওয়া ‘দিন দ্য ডে’ চলচ্চিত্র নিয়েও দর্শকদের মাঝে বেশ আগ্রহ দেখা গিয়েছে। শুধু তাই নয় অনেকেই ছবিটির টিকিট না পেয়ে হতাশা হয়েছেন। পরবর্তীতে লম্বা সময় অপেক্ষা করে কাঙ্ক্ষিত ছবিটি দেখে।

‘পরাণ’, ‘দিন দ্য ডে’ সাফল্যের পর ব্যাক টু ব্যাক ঝড় তুলতে আসছে দীর্ঘদিন ধরে আলোচনায় থাকা বহুল প্রতীক্ষিত মেজবাউর রহমান সুমন পরিচালিত ‘হাওয়া’ সিনেমাটি। মুক্তির আগেই ‘সাদা সাদা কালা কালা’ গানটি দিয়ে দর্শকদের মনে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে ‘হাওয়া’ সিনেমা। গানটি প্রকাশ্যে আসতেই নেট দুনিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়। সিনেমাটির টিকেট কেনায় যেন ধুম লেগেছে। ছবিটি মুক্তির পর খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ঢাকা ও ঢাকার বাইরের অনেকগুলো প্রেক্ষাগৃহে বিক্রি হচ্ছে ‘হাওয়া’ সিনেমার অগ্রিম টিকেট। বেশ ক’টি শো আগে থেকেই হয়ে আছে হাউজফুল।

মুক্তির দ্বিতীয় সপ্তাহেও ছবিটি নিয়ে দর্শকদের আগ্র কমেনি। শুধু তাই জয় যশহরের মনিহার সিনেমা হলে হাওয়া সিনেমাটি করেছে এক ইতিহাস। একদিনে ৩ লাখের বেশি টাকা আয় করেছে সিনেমাটি। মনিহার সিনেমা হলে গত ৫ বছরে কোনো সিনেমা একদিনে এতো টাকা আয় করতে পারেনি।

এদিকে ঢাকাই চলচ্চিত্রের সুপারস্টার শাকিব খান। এক কথাই তার প্রতিদ্বন্দ্বী চলচ্চিত্রে বর্তমানে নেই। এক সময় তাঁর সিনেমা মানেই হল ভর্তি দর্শক ছিলো। তবে এখন চিত্র অনেকটাই বদলে গেছে। গেল রোজার ঈদে শাকিব খানের মুক্তি পাওয়া দুইটি চলচ্চিত্র তেমন ভাবে সাড়া জাগাতে পারেনি। তবে কোরবানির ঈদে তাঁর সিনেমা ছাড়াই দর্শক হল মুখী হয়েছে। অনেকেই বলছেন বড় শিল্পী দিয়ে সিনেমা চলে না। সিনেমা দেখে দর্শক এখন গল্প বিবেচনা করে।

চলচ্চিত্র প্রযোজক ও নির্মাতা মো. ইকবাল বলেন, দর্শক এবার ঈদে হল মুখী হয়েছে এটি আমদের চলচ্চিত্রের জন্য বেশ ভালো একটি দিক। দর্শক এখন ভালো গল্প চায়, নায়ক-নায়িকা দেখে এখন আর হলে তারা যায় না। ঈদে মুক্তি পাওয়া চলচ্চিত্রগুলোতে অনেকেই আছে যাদের সাধারণ দর্শক চিনতো না তেমন ভাবে কিন্তু তাদের সিনেমা দেখার জন্য এখন পর্যন্ত হলে ভীর করছেন তাঁরা। এরমানে দর্শক ভালো গল্পের সিনেমা চায়। পাশাপাশি প্রেক্ষাগৃহের পরিবেশ ভালো হওয়া উচিত। সিনেপ্লেক্স বাদে দেশের অনেক সিনেমা হল আছে যেগুলোর অবস্থা খুবই খারাপ। দর্শকদের হল মুখী করতে হলে গল্পের পাশাপাশি প্রেক্ষাগৃহের পরিবেশ ভালো করতে হবে।

Previous articleসেন্সর ছাড়পত্র পেল রায়হান রাফি’র ‘দামাল’
Next articleপুত্রসন্তানের মা হয়েছেন পরিমণি ও বাবা হলেন রাজ

Leave a Reply