জমজমাট ডেস্ক

বাংলা চলচ্চিত্রের নব্বই দশকের সাড়া জাগানো চিত্রনায়িকা শাবনাজ। ‘চাঁদনী’ সিনেমা দিয়ে রূপালি পর্দায় অভিষেক হয়েছিল তার। প্রথম সিনেমা দিয়েই তারকাখ্যাতি অর্জন করেন এই অভিনেত্রী। এরপর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। টানা এক দশকেরও বেশি সময় অভিনয় করেছেন সাফল্যের সঙ্গে।

অনেক দিন ধরে সিনেমা থেকে দূরে থাকলেও শাবনাজকে দর্শক মনে রেখেছেন। তার অভিনীত সিনেমাগুলো এখনও টেলিভিশনে দেখানো হয়। নতুন প্রজন্মের কাছেও অভিনেত্রীর নামটি উজ্জ্বল হয়ে আছে।

প্রায়ই শাবনাজকে চলচ্চিত্রসংশ্লিষ্ট বিভিন্ন অনুষ্ঠানে দেখা যায়। এক সময় নায়িকা নিয়মিত প্রেক্ষাগৃহে গিয়ে সিনেমা দেখলেও ব্যস্ততার কারণে দীর্ঘ সময় ধরে প্রেক্ষাগৃহে গিয়ে তার সিনেমা দেখা হয় না। তবে হঠাৎ করেই শনিবার (২৩ জুলাই) তার দেখা মিলল রাজধানীর মিরপুরে অবস্থিত সনি স্টার সিনেপ্লেক্সে।

ঈদুল আজহায় মুক্তি পাওয়া শরিফুল রাজ, বিদ্যা সিনহা মিম ও ইয়াশ রোহান অভিনীত ত্রিকোণ প্রেমের গল্পে নির্মিত ‘পরাণ’ দেখতে এসেছেন তিনি। সিনেমাটি পরিচালনা করেছেন তরুণ নির্মাতা রায়হান রাফি।

উপস্থিত হয়ে এক প্রশ্নের জবাবে শাবনাজ বলেন, ঠিক কত বছর আগে প্রেক্ষাগৃহে এসে সিনেমা দেখেছি মনে নেই। তবে দীর্ঘ সময় পর প্রেক্ষাগৃহে এসেছি। অনেকদিন ধরে আমাদের সিনেমার অবস্থা সেভাবে ভালো যাচ্ছিল না। তবে ঈদের সিনেমা দিয়ে আবারও দর্শক প্রেক্ষাগৃহমুখী হয়েছেন। এটা খুবই ভালো লাগছে৷ গণমাধ্যম ও অন্তর্জালে দেখেছি সিনেমাটি বেশ ভালো হয়েছে এবং দর্শকও আগ্রহ নিয়ে দেখছে। তাই ‘পরাণ’ টিমের অনুরোধে সিনেমাটি দেখতে এসেছি।

সিনেমাটি ঈদের দিন ১১টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেলেও দর্শক চাহিদায় সপ্তাহ না যেতেই ৩টি প্রেক্ষাগৃহ বেড়ে ১৪টি হয়। দ্বিতীয় সপ্তাহে এক লাফে চারগুণ বাড়ে ‘পরাণ’র হল সংখ্যা। লাইভ টেকনোলজি প্রযোজিত সিনেমাটি এখন ৫৫টি হলে প্রদর্শিত হচ্ছে।

এ ছাড়াও ঢাকার স্টার সিনেপ্লেক্সের সবগুলো শাখায় সিনেমাটি ভালো ব্যবসা করছে বলে জানা গেছে।

Previous articleদর্শকের প্রশংসায় ‘পরাণ’ সিনেমার জয়জয়কার
Next articleসুপার হট লুকে হাজির হলেন ববি

Leave a Reply