জমজমাট ডেস্ক

গার্মেন্টস ব্যবসায়ী ও চিত্রনায়ক অনন্ত জলিলের লাগাতার বেফাঁস ও মিথ্যা কথার বিরুদ্ধে এবার মুখ খুললেন বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন অভিনেত্রী ববিতা। জানা যায়, ১৭ জুলাই (রোববার) ফেসবুকে অনন্ত জলিল ঘোষণা দেন, এবারের ঈদে তার প্রযোজিত ও অভিনীত ‘দিন: দ্য ডে’ ছবিটি প্রেক্ষাগৃহে দেখানোর জন্য দেশের ৭৪ জন শিল্পীকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। এই আমন্ত্রিতদের মধ্যে সুচন্দা, ববিতা, চম্পা এই তিন বোনসহ আলমগীর, ফারুক, সোহেল রানা, ইলিয়াস কাঞ্চন, শাকিব খান, ইমন নিরব, বাপ্পী, আরিফিন শুভ, সিয়ামসহ অনেকেই আছেন। ১৮ জুলাই (সোমবার) সকালে ববিতা অনন্ত জলিলের এমন ঘোষণা নিয়ে মুখ খোলেন। তিনি জানান, অনন্ত জলিলের ছবি দেখার বিষয়ে তিনি কিছু জানেন না।

ববিতা এই প্রসঙ্গে বলেন, কই না তো। কিছুদিনের মধ্যে দেশের বাইরে যাচ্ছি। নানান কাজের ব্যস্ততায় আছি এখন। এর মধ্যে ছবি দেখার সময় কই। তাছাড়া অনন্ত জলিল সাহেবের ছবি দেখা নিয়ে তো কারও সঙ্গে কোনো কথাই হয়নি। কেন জলিল সাহেব এমন মিথ্যাচার করছেন?

এর আগে অনন্ত জলিল তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে রোববার লিখেছেন, আগামীকাল ১৮ জুলাই সন্ধ্যা সাতটায় যমুনা ব্লকব্লাস্টারে আমাদের দিন: দ্য ডে মুভিটি দেখার জন্য আমাদের সবার প্রিয় ৭৪ জন শিল্পীকে আমন্ত্রণ জানিয়েছি। আমাদের কিংবদন্তি চলচ্চিত্র অভিনেতা-অভিনেত্রী সবাই থাকবেন। আমাদের সবার শ্রদ্ধেয় আলমগীর সাহেব, ফারুক সাহেব, সোহেল রানা সাহেব, ইলিয়াস কাঞ্চন সাহেব, উজ্জ্বল সাহেব, রুবেল ভাই, ফেরদৌস ভাই, রিয়াজ ভাই, ববিতা আপা, রোজিনা আপা, সুচরিতা আপা, চম্পা আপা থেকে শুরু করে নতুন প্রজন্মের প্রিয় মুখ সিয়াম আহমেদ, আরিফিন শুভ, বাপ্পি, ইমন, নিরব এবং অন্যান্য সবার হাত ধরে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র ইন্ডাস্ট্রি অনেক দূর এগিয়ে যাবে বলে আশা করি।

অনন্ত আরও লিখেন, সবার সঙ্গে বসে আমি এবং বর্ষা “দিন: দ্য ডে” মুভিটি দেখবো। দুঃখের বিষয় এই যে শাকিব খান এবং আরও দুই-তিনজন শিল্পী দেশে নেই, যদি তারা দেশে থাকত, তাহলে তাদেরকে নিয়েও মুভিটি একসাথে দেখা যেত।

অনন্তর ওই ফেসবুক পোস্টের কথা শুনে ববিতা বলেন, আমাদের তিন বোনের কারও সঙ্গে জলিল সাহেবের কথাই হয়নি। কিন্তু আমাদের সঙ্গে কথা না বলে ফেসবুকে এভাবে নাম লিখে দেওয়ার তো কোনো মানে হয় না। এই ধরনের মিথ্যাচার মোটেও ভালো নয়। আমি কিছুদিন পরই দেশের বাইরে ছেলের কাছে যাবো, তাই এখন অনেক কাজ। অনেক ব্যস্ততা। কোথা থেকে এলো সিনেমা হলে ছবি দেখবো, এগুলো তো মিথ্যা কথা। আমাদের নাম ব্যবহার করে ফেসবুকে এই ধরনের কথা ছড়ানোর মানে কি? এই জন্যই না আজকাল আমি কারও সঙ্গে কথা বলতে চাই না। এগুলো দেখলে খুবই খারাপ লাগে। এভাবে কেউ মিথ্যা কথা বলতে পারে! দিস ইজ নট গুড।

তার বড় বোন সুচন্দা আর ছোট বোন চম্পা নাকি আমন্ত্রিত, এমন প্রশ্নে ববিতা বলেন, বললাম না, আমাদের কারোর সঙ্গে কোনো কথা হয়নি। এগুলো সব মিথ্যা কথা। যোগাযোগও করা হয়নি। বলাও হয়নি। তারা হয়তো ভাবছেন, আমাদের নাম জুড়ে দিলে পাবলিসিটি হবে, কিন্তু মিথ্যা বলে পাবলিসিটি করে চলচ্চিত্রের দর্শকদের সঙ্গে প্রতারণা করার তো অর্থ হয় না। অনুমতি ছাড়া কারও নাম ব্যবহার করাটা ভালো কথা নয়।

আপনার সঙ্গে অনন্ত জলিলের কখনো কি দেখা হয়েছিল, এমন প্রশ্নে ববিতা বলেন, আমি বোধ হয় সেবার কানাডা যাচ্ছি, তখন এয়ারপোর্টে ওই ভদ্রলোক (অনন্ত জলিল) এবং তার ওয়াইফের (বর্ষা) সঙ্গে কয়েক সেকেন্ডের জন্য দেখা হয়েছিল, তাও বোধ হয় ৫-৭ সেকেন্ডের মতো। এই ঘটনাও ৫-৬ বছর আগে। এ ছাড়া কোনো দিন তাকে আমি দেখিওনি। চিনিও না, আলাপও নেই সে রকম।

Previous articleহজ্ব পালন শেষে হাজিগন দেশে ফিরছেন
Next articleঅভিনেত্রী তানিয়া আহমেদ বিচ্ছেদ নিয়ে মুখ খুললেন

Leave a Reply