জমজমাট প্রতিবেদন

দরজায় কড়া নাড়ছে পবিত্র ঈদুল আজহা। আর বাকি মাত্র দুদিন। ঈদ মানে খুশি, ঈদ মানে আনন্দ। এই খুশি আর আনন্দ ছুঁয়ে যায় তারকাদেরও। তাদেরও থাকে নানা পরিকল্পনা। কোথায় ঈদ করবেন, কোথায় যাবেন, কী পরবেন ইত্যাদি। এসবের মাঝে আবার থাকে পেশাগত কাজের ব্যস্ততাও।

ঈদে অনেক তারকাই বিভিন্ন টিভি চ্যানেলে নানারকম অনুষ্ঠানে অংশ নেন। কারও সিনেমা রিলিজ হয়, তা নিয়ে ব্যস্ত থাকেন। কারও নতুন গান প্রকাশ পায়। কেউ আবার একাধিক নাটক, টেলিফিল্মের প্রধান মুখ হন। কেউ আবার ঈদের পরিকল্পনা সাজান দেশ থেকে লক্ষ মাইল দূরে বিদেশের মাটিতে।

আসন্ন কোরাবানির ঈদকে ঘিরেও ইতোমধ্যে তৈরি হয়ে গেছে শোবিজ তারকাদের কর্মপরিকল্পনা। চলুন তবে জেনে আসি তারকাদের ঈদ ভাবনা, কাজ এবং কে কোথায় ঈদ করবেন-

★ শাকিব খান : বাংলা চলচ্চিত্রের এই শীর্ষ নায়ক গত আট মাস ধরে রয়েছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে। ঈদুল ফিতর সেখানেই কাটিয়েছেন। ঈদুল আজহাও মার্কিন মুলুকেই কাটাবেন বলে নায়কের এক ঘনিষ্ঠজন সূত্রে খবর। ঈদের আগে দেশে আসতে চেয়েছিলেন, কিন্তু শেষপর্যন্ত সেই সিদ্ধান্ত বাতিল করেছেন শাকিব খান। ঈদের পরই আমেরিকায় শুরু হবে এই নায়কের নতুন ছবি ‘রাজকুমার’-এর শুটিং। সেই ব্যস্ততায় এবারের ঈদও জো বাইডেনদের দেশে কাটাবেন কিং খান। সম্প্রতি তিনি যুক্তরাষ্ট্রে থাকার গ্রিন কার্ডও পেয়েছেন।

★ শবনম বুবলী: চিত্রনায়িকা ঢাকাতে পরিবারের সঙ্গে ঈদ কাটাতে পছন্দ করেন। এবারের ঈদও ঢাকাতে কাটাবেন। গত ঈদে তার একটি সিনেমা মুক্তি পেলেও এবারের ঈদে কোনো সিনেমা মুক্তি পাচ্ছে না তার। ঈদের দিন ঘুম থেকে উঠে মায়ের রান্না সেমাই খেয়ে মজার মজার রান্না করেন বুবলী। এবারও তিনি মায়ের সঙ্গে রান্না করবেন। বিকালে একটু বন্ধুদের সঙ্গে ঘোরাঘুরি। করোনা প্রকোপ বেড়ে যাওয়ায় সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদ উদযাপন করার আহ্বান জানিয়েছেন বুবলী।

★ জয়া আহসান: দুই বাংলায় সিনেমার কাজ নিয়ে তুমুল ব্যস্ত থাকেন এই অভিনেত্রী। তবে যত ব্যস্ততাই থাকুক, ঈদ উৎসবে তিনি দেশেই থাকেন। এবারও দেশেই ঈদ করবেন। ইরানি পরিচালক অতাশ জমজমের পরিচালনায় ‘ফেরেশতে’ নামে একটি সিনেমার কাজ করছিলেন জয়া। ঈদকে সামনে রেখে এরই মধ্যে সেই কাজ শেষ হয়েছে বলে জানিয়েছেন নায়িকা।

জয়া আহসান বলেন, ‘ঈদের সময় একটু বিশ্রামে থাকব। কোথাও ছোটাছুটির ইচ্ছে নেই। মা, ভাই-বোন আর বন্ধু-বান্ধবদের সঙ্গে সময় কাটবে। ঈদের দিন একটি পদ হলেও আমি রান্না করি। এবারও করব, তবে কী রান্না করব তা এখনো জানি না। গরমের মধ্যে ঈদে আমি সাধারণত ভারী কোনো পোশাক বা সাজ পছন্দ করি না। ছিমছাম সাজে সুতি পোশাকেই দিনটি পার হয়ে যাবে। ঘরোয়া ঈদ বলতে যা বোঝায় আর কী।

★ নিরব হোসেন: এ সময়ের ব্যস্ত চিত্রনায়ক নিরব বরাবরের মতো এবারের ঈদটাও ঢাকায় কাটবে এ সময়ের ব্যস্ত। ঢাকায় কোরবানি দিচ্ছেন নিরব। ঈদের দুই দিন ঢাকায় কাটানোর পর পরিবার নিয়ে জন্মস্থান রাজবাড়ীতে যাবেন অভিনেতা। সেখানে কয়েকটা দিন কাটানোর পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন নিরব।

★ সিয়াম আহমেদ: ‘পোড়ামন ২’ খ্যাত সিনেমার এই নায়ক সিয়াম বলেন, রোজার ঈদের মতো কোরবানির ঈদটাও আমার কাছে খুব স্পেশাল। গত ঈদে ‘শান’ মুক্তি পেয়েছিল, যদিও এ ঈদে কোনো সিনেমা রিলিজ হচ্ছে না। তার পরও আনন্দের কমতি থাকবে না। কারণ, মা-বাবা, স্ত্রী-সন্তানের সঙ্গে থাকব ঈদের দিনটা। আমার ছেলের দ্বিতীয় ঈদ এটি। ও জন্মের মাত্র তিন মাসেই দুটি ঈদ পেয়ে গেল। সো, ঈদে পরিবারকে সময় দেব। যেহেতু এবার তেমন ব্যস্ততা নেই।

★ মিশা সওদাগর: খল অভিনেতা মিশা সওদাগর এবারের কোরবানির ঈদ আমেরিকায় স্ত্রী, সন্তানদের সাথে করবেন।মিশা সওদাগর বলেন, আমেরিকায় আমার পরিবার থাকে। তাদের সঙ্গে ঈদ কাটাতে কয়েক সপ্তাহ আগেই এখানে এসে পৌঁছেছি। ঈদের পরে দেশে ফিরব। এছাড়া ঈদে আমার বিগ বাজেটের একটি ছবি মুক্তি পাচ্চে ‘দিন: দ্য ডে। সবাইকে হলে গিয়ে ছবিটি দেখার আহবান রইলো।

★ নুসরাত ফারিয়া: এ নায়িকার ইচ্ছা ছিলো থাইল্যান্ডে ‘বিবাহ অভিযান ২’-এর শুটিংয়ে এবারের ঈদ কাটবে এ নায়িকার। কিন্তু রাজনৈতিক জটিলতার কারণে সিনেমাটির শুটিং আটকে যায়। মঙ্গলবার (৫ জুন) থেকে তিনি কলকাতায় শুটিংয়ে অংশ নিয়েছেন রাজা চন্দ পরিচালিত এই সিনেমার। সেখানে ১৬ জুলাই পর্যন্ত শুটিং করবেন তিনি। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নায়িকা নিজেই। সিনেমায় ফারিয়ার বিপরীতে রয়েছেন টলিউড নায়ক অঙ্কুশ হাজরা। এই সিনেমার শুটিংয়ে অংশ নিতেই ঈদ মৌসুমে দেশত্যাগ করতে হলো তাকে। যদিও ফারিয়ার ইচ্ছা ছিল, এবারের ঈদ দেশেই কাটাবেন। কিন্তু তা আর হচ্ছে না। বছরের বিশেষ এই দিনে পরিবার-স্বজন ছেড়ে বিদেশের মাটিতেই থাকতে হচ্ছে তাকে।

★ সাবিলা নূর: এ নাট্যঅভিনেত্রীর রোজার ঈদে তুমুল কাজের ব্যস্ততায় কেটেছিল। তার অভিনীত অনেকগুলো নাটক দেখানো হয় বিভিন্ন টিভি চ্যানেলে। অভিনেত্রী জানান, গত দু-তিন বছর ঈদসহ কোনো উৎসবেই সেভাবে পরিবারকে সময় দিতে পারি না। তার পরও তারা আমার কাজে যেভাবে সাপোর্ট করে তা বলে শেষ করা যাবে না। তবে কোরবানির ঈদে সেই তুলনায় ব্যস্ততা কম বলে জানান সাবিলা।

অভিনেত্রী আরো বলেন, ঈদের দিন বাড়িতেই থাকব। শ্বশুরবাড়ি, বাবার বাড়ি দুই জায়গাতেই যাওয়া হবে। গরু কোরবানি হবে। আমি সেভাবে রান্নাবান্না করি না। তবে ইচ্ছে আছে একটু সাজগোজ করার। এখন প্রচন্ড গরম, আবার ঘন ঘন লোডশেডিং হচ্ছে। তাই ঈদে কটনের সালোয়ার-কামিজই বেছে নেব। আমি খুব একটা সাজগোজ পছন্দ করি না। বিশেষ করে নাটকেও চোখের সাজ খুব একটা থাকে না। তবে ঈদের দিন একটু চোখের সাজ নিয়ে এক্সপেরিমেন্ট করব।

★ মেহজাবীন চৌধুরী: এ অভিনেত্রী জানান, ‘ঈদের দিন বাসাতেই থাকি। বাসার টুকটাক কাজ করি। এবার তো আরও বেশি সময় দিতে হবে বাসায়। কোরবানি হবে। এর আগে রোজার ঈদ বাদে কয়েকটা ঈদ তো লকডাউনে ঘরেই কেটেছে। বন্ধু-বান্ধবদের সঙ্গে ফোনে কথা বলেছি, ভিডিওকলে কথা বলেছি। অবশ্য প্রায় ঈদেই এমনটাই হয়ে থাকে। হয়তো সন্ধ্যায় ঘুরতে বেরোই। এবারও বেরোবো। ঈদ আসছে, ঈদ আসছে- এটাইতেই যত আনন্দ কাজ করে। ঈদ চলে এলে আর সেরকম এক্সাইটমেন্ট থাকে না।

★ আফরান নিশো: ঈদ ভাবনা সম্পর্কে এই অভিনেতা বলেন, ‘ঈদের দিন প্রথমভাগে নামাজ পড়ে এসে বিশ্রাম নিব। ঈদের আগের দিন পর্যন্ত লাইট ক্যামেরা অ্যাকশন এসবেই ক্লান্ত হয়ে থাকি। বলা যায় ঈদের দিনটা আসলে আমাদের জন্য বিশ্রামেরই। বাসাতেই শুয়ে বসে থাকি। এবারও তাই করবো। পরিবারের সঙ্গে সময় ব্যয় করবো। সন্ধ্যায় সুযোগ পেলে স্ত্রী-সন্তানকে নিয়ে ঘুরতে বের হবো।

ঈদের সময়টা গ্রামের বাড়ি টাঙ্গাইলেও যান নিশো। বললেন, সেখানে তার বাবার প্রতিষ্ঠিত মাদ্রাসা, এতিমখানা রয়েছে। সেসবে একটু সময় দেওয়া হয়। নিশো জানান, এবার তারা টাঙ্গাইল যাচ্ছেন না। তার মা ঢাকাতেই থাকেন। ঈদের দিন সন্ধ্যায় মায়ের বাসায় যাবেন। এছাড়া ঈদের ছুটির সময়টা ঈদের অনুষ্ঠান দেখেই কাটাবেন।

★ জাকিয়া বারী মম: প্রতিটি ঈদই এ অভিনেত্রীর কাছে সমান আনন্দের। ঈদের দিন বাসাতেই থাকেন মম। এবারও তাই করবেন। নিজের সন্তানের সাজের দিকে মনোযোগ দেবেন। ভাইয়ের ছেলে আছে, তাকেও সময় দেবেন। ঈদের দিনটা কাটাবেন মা, ভাই, ভাইয়ের ছেলে ও নিজের সন্তানের সঙ্গেই। সন্ধ্যার দিকে আত্মীয় স্বজনের বাসায় যাওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানান মম।

★ আঁখি আলমগীর: জনপ্রিয় এই গায়িকা জানান, ঈদের দিন থেকেই তো বাইরের কাজের ছুটি। তবে ঈদের দিন যে খুব আরাম করতে পারব, তা কিন্তু নয়। ঈদে আমার দুই মেয়ে ও পরিবার পরিজনের জন্য নিজ হাতে রান্না করতে খুব ভালোবাসি। আমার হাতের ঝাল গরুর মাংস, চিকেন রোস্ট আর পোলাও সবাই খুব পছন্দ করে। সঙ্গে স্পেশাল সেমাই তো থাকবেই। তবে ঈদের দিন দুপুরে মায়ের বাসায় আর রাতে আমরা যাই বাবার বাসায়।

 

Previous articleবরিস জনসন অবশেষে পদত্যাগ করতে যাচ্ছেন
Next articleমিন্নি-রিফাতের গল্পে ‘পরাণ’, নির্মাতার ছলচাতুরী

Leave a Reply