জমজমাট প্রতিবেদক 

ক্রিসেন্ট ফুটওয়ার নামীয় কোম্পানির মালিক বিতর্কিত চলচ্চিত্র প্রযোজক আবদুল আজিজ। জনতা ব্যাংক থেকে হাজার-হাজার কোটি টাকা লোপাট করার দায়ে তার বিরুদ্ধে একাধিক মামলা হয়। গ্রেফতার হয়ে জেলে আছেন তার আপন বড়ভাই আব্দুল কাদের। কিন্তু এতোকিছুর পরও ধরাছোঁয়ার বাইরে আব্দুল আজিজ। গ্রেফতারী পরোয়ানা মাথায় নিয়েই তিনি ঢাকার মোহাম্মদপুর এলাকায় অবস্থিত নিজের বাড়ীতে থাকছেন। বাড়ীর ছাদে (সাততলায়) গড়ে তুলেছেন বালাখানা। সেখানে প্রতিদিন চলচ্চিত্রের কিছু লোকসহ নবাগত কিংবা পরিচিত নায়িকাদের নিয়মিত আনাগোনা। আবদুল আজিজ প্রকাশ্যেই বলে বেড়ান, ব্যাংকের টাকা ফেরত দিতে হবেনা। তাকে গ্রেফতারের ক্ষমতা কারো নেই।

এখানেই ঘটনার শেষ নয়। আবদুল আজিজ ঢাকার ইস্কাটন এলাকায় নতুন করে জাজ মাল্টিমিডিয়ার অফিস নিয়েছেন। জানা গেছে এখন তিনি নতুন করে আবারও ভারতের সাথে মিলেমিশে চলচ্চিত্র নির্মাণ করবেন। এরই মাঝে ঢাকার চলচ্চিত্র জগতের এক পরিচিত স্ক্রীপ্ট রাইটার জাজ মাল্টিমিডিয়ার পরবর্তী কয়েকটা চলচ্চিত্রের কাহিনী ও চিত্রনাট্য তৈরীর কাজ শুরু করেছেন। পাশাপাশি কলকাতায় আবারও নতুন করে জাজ মাল্টিমিডিয়া ইন্ডিয়া লিমিটেড এর অফিস চালু করা হয়েছে।

জনতা ব্যাংকের হাজার-হাজার কোটি টাকার ঋণ ফেরত না দিয়েই গ্রেফতারী পরোয়ানা মাথায় নিয়ে কিভাবে আব্দুল আজিজ আইন কানুনের প্রতি বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে আবারও সক্রিয় হচ্ছেন, এ প্রশ্ন অনেকের। কেউ কেউ বলছেন, জনতা ব্যাংকের কিছু ক্ষমতাধর কর্মকর্তা আব্দুল আজিজের হাতের মুঠোয়। এদের অনেক গোপন ভিডিও আছে তার হাতে। একারণেই জনতা ব্যাংকের পক্ষে ক্রিসেন্ট ফুটওয়ার কিংবা জাজ মাল্টিমিডিয়ার মালিক আব্দুল আজিজের টিকিটি ধরারও সুযোগ নেই।

এদিকে, চলচ্চিত্রে আবারও নতুন করে কোটিকোটি টাকা নিয়ে ফিরছেন আব্দুল আজিজ, এই খবরে চলচ্চিত্র সেক্টরে অনেকেই আনন্দিত। কারণ, দেশের চলচ্চিত্র সেক্টরের বর্তমান অবস্থা খুবই নাজুক। এক্ষেত্রে নতুন বিনিয়োগের খবর অনেকের জন্যেই আশার বাণী।

Previous articleবন্যা দুর্যোগে বিএনপি মানুষের পাশে না দাঁড়িয়ে শুধু ভাষণ দেয়: ওবায়দুল কাদের
Next articleইভ্যালি’র রাসেলের মুক্তিতে মানববন্ধন

Leave a Reply