জমজমাট ডেস্ক

ঢাকাই সিনেমার শীর্ষ নায়ক শাকিব খান আমেরিকায় স্থায়ীভাবে বসবাসের জন্য অবশেষে গ্রিন কার্ড পেয়েছেন। এই স্বপ্নপূরণ করতে দীর্ঘ সময় ধরে যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান করতে হয়েছে তাকে। এর জন্য ২০২১ সালের নভেম্বরের দেশ ছাড়েন এই নায়ক।

আমেরিকার স্থায়ীভাবে বসবাসের সুযোগের জন্য নিয়ম মেনে সেখানে প্রায় ৮ মাস ধরে বসবাস করছেন তিনি। গ্রিন কার্ড পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন শাকিবের ঘনিষ্ঠজন।

তিনি জানান, নিয়ম অনুযায়ী শাকিব খান গ্রিন কার্ড আগেই পেয়েছেন। তার ছয় মাস পূর্ণ হয়েছে। সবশেষ প্রিন্ট আকারে যে কার্ডটি আসার কথা, সেটিও তিনি পেয়েছেন।

জানা গেছে, আগামী জুলাইয়ের ৬ তারিখ আমেরিকা ছাড়বেন শাকিব। আর ৮ জুলাই তার দেশে ফেরার কথা রয়েছে। তবে ‘রাজকুমার’ সিনেমার জন্য আবারও দ্রুততম সময়ে আমেরিকায় ফিরে যাবেন তিনি। এই সিনেমায় শাকিবের বিপরীতে দেখা যাবে একজন মার্কিন অভিনেত্রীকে।

সম্প্রতি ২০২১-২২ অর্থ বছরে চলচ্চিত্র নির্মাণে ‘মায়া’ নামের সিনেমার জন্য ৬৫ লাখ টাকা সরকারি অনুদান পেয়েছেন শাকিব খান। সিনেমাটি নির্মাণ করছেন হিমেল আশরাফ।

এদিকে, শাকিব খানের ‘গলুই’ সিনেমাটি দেশের সীমানা ছাড়িয়ে এবার যুক্তরাষ্ট্রে মুক্তি পেতে যাচ্ছে। উত্তর আমেরিকার ১০০টি প্রেক্ষাগৃহে সিনেমাটি মুক্তি পাবে।

এ ছাড়াও শাকিব খানের মুক্তির অপেক্ষায় আছে ‘লিডার : আমিই বাংলাদেশ’ ও ‘অন্তরাত্মা’ সিনেমা। দ্রুতই শুটে যাচ্ছে তার প্রযোজিত ‘রাজকুমার’ সিনেমা।

Previous articleদীপ্ত টিভির ঈদের নাটক ‘মায়ের বিয়ে’ নিয়ে ফিরলেন মামুন আব্দুল্লাহ্
Next articleপদ্মা সেতু ষড়যন্ত্রকারীদের খুঁজে বের করতে তদন্ত কমিশন গঠনের নির্দেশ: হাইকোর্ট

Leave a Reply