বাংলা চলচ্চিত্রের দুই সফল তারকা চিত্রনায়ক ওমর সানী ও চিত্রনায়িকা মৌসুমী। এরই মধ্যে দাম্পত্য জীবনের ২৬ বছর পার করেছেন তারা। দুই সন্তানের বাবা-মাও হয়েছেন। তবে চিত্রনায়ক জায়েদ খানের সঙ্গে দ্বন্দ্বে জড়িয়ে নাকি দীর্ঘ দাম্পত্য জীবনে ফাটল ধরতে শুরু করেছে এই তারকা দম্পতির।

রোববার (১২ জুন) বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতিতে সভাপতি ইলিয়াস কাঞ্চন বরাবর এমনই লিখিত অভিযোগ করেছেন ওমর সানী।

জায়েদ খান দ্বারা সংসার ভাঙা এবং পিস্তল বের করে মেরে ফেলার হুমকি প্রসঙ্গে অভিযোগে ওমর সানী উল্লেখ করেছেন, দীর্ঘ ৩২ বছর যাবত চলচ্চিত্রে অভিনয় করে আসছি। কিন্তু দুঃখের বিষয় এই যে, সমিতির সদস্য জায়েদ খান গত চার মাস যাবত আমার স্ত্রী আরিফা পরভীন মৌসুমীকে নানা হয়রানি ও বিরক্ত করে আসছে। আমার সুখের সংসার ভাঙার জন্য বিভিন্ন কৌশলে তাকে হেয় প্রতিপন্ন করার চেষ্টা করে আসছে। এই ব্যাপারে তাকে ওয়াটসঅ্যাপে মেসেজ দিয়ে বার বার বুঝানোর চেষ্টা করেছি। তার প্রমাণ আমার এবং আমার ছেলের কাছেও আছে। তাছাড়া মুরুব্বি হিসেবে আমি ডিপজল ভাইয়ের কাছে এই বিষয়ে অভিযোগ করেছি। কিন্তু উক্ত বিষয়ের কোন সমাধান হয়নি।

অভিযোগে সানী আরও উল্লেখ করেছেন, ডিপজল ভাইয়ের ছেলের বিয়েতে জায়েদ খানের সাথে দেখা হলে এ বিষয়ে সংযত হওয়ার জন্য আমি অনুরোধ করি। এতে সে আমার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে এবং হঠাৎ করে তার পিস্তল বের করে আমাকে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। আমি মনে করি এমন একজন পিস্তলতারী সন্ত্রাসী বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সদস্য থাকতে না পারে উল্লেখিত বিষয়ে বিশেষভাবে বিবেচনা পূর্বক জায়েদ খানের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আমি বিনীতভাবে অনুরোধ করছি।

সমিতিতে অভিযোগ জমা দিয়ে ওমর সানী বলেন, ইলিয়াস কাঞ্চন, আলমগীর, ডিপজল ভাইসহ সিনিয়র অনেকেই এখনো বেঁচে আছেন। তারা অভিযোগ সুন্দরভাবে মূল্যায়ন করবেন সেটাই কামনা করি। সুন্দরভাবে যেন বাকি জীবনটা বেঁচে থাকতে পারি সেই দোয়া করবেন।

শুক্রবার (১০ জুন) রাজধানীর একটি কনভেনশন হলে চলচ্চিত্রের মুভিলর্ড খ্যাত ডিপজলের বড় ছেলে সৌমিকের বিবাহোত্তর সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে ওমর সানী ও জায়েদ খানের মধ্যে এক অপ্রিতীকর ঘটনা ঘটেছে বলে বিভিন্ন পত্র-পত্রিকা ও অনলাইন পোর্টালে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে।

প্রকাশিত সংবাদে বলা হয়, ওমর সানী সবার সামনে হঠাৎ করেই জায়েদ খানকে চড় মেরে বসেন। জায়েদ নাকি মৌসুমীর সাথে আগে দুর্ব্যবহার করেছেন। এজন্য ক্ষিপ্ত হয়ে তিনি তাকে চড় মেরে বসেন। জায়েদ খানও নাকি পিস্তল বের করে তাকে গুলি করার হুমকি দেন। বিয়ের অনুষ্ঠানে এমন কণ্ডে অনেকে হতবাক হয়েছেন। এদিকে, এই অভিযোগ অস্বীকার করেন জায়েদ খান।

Previous articleবিএনপিকে আগুন নিয়ে না খেলতে সতর্ক করেছেন: ওবায়দুল কাদের
Next articleটলিউড নায়িকা শুভশ্রী কর ঢালিউডে অভিষেক

Leave a Reply