রঞ্জু সরকার:

বাংলাদেশের সিনেমার উজ্জ্বল নক্ষত্র, ভার্সেটাইল অভিনেত্রী নন্দিত নায়িকা শাবনূর। তার সমসাময়িক অনকে নায়িকা অনায়াসেই স্বীকার করেন অভিনেত্রী হিসেবে তিনি অনন্য, অসাধারণ। তার ধারে কাছেও কেউ নেই অভিনয়ের বিবেচনায়। জনপ্রিয়তার শীর্ষে থাকাকালীন সময় থেকে যতোদিন তিনি অভিনয়ে নিয়মিত ছিলেন ততোদিনই তার অনবদ্য অভিনয় দিয়ে মুগ্ধ করে গেছেন শাবনূর। তার অভিনীত অসংখ্য সিনেমা রয়েছে যা ব্যবসা সফল। কিন্তু সেই নন্দিত নায়িকা দীর্ঘদিন অভিনয়ে নেই। কিন্তু তার ভক্ত দর্শকেরা এখনো আশায় বুক বেঁধে আছেন যে যেকোন সময় আবারো অভিনয়ে ফিরবেন তাদের প্রিয় নায়িকা শাবনূর।

করোনার আগে অষ্ট্রেলিয়া গিয়েছিলেন শাবনূর। সেখান থেকে আর ফেরা হয়নি তার। তবে আগামী ১৭ ডিসেম্বর তার দেশেই জন্মদিন উদযাপনের আভাস পাওয়া যাচ্ছে। যদি তাই হয়, তাহলে জন্মদিনের আগেই হয়তো শাবনূর দেশে ফিরবেন। আর এদিকে গেলো বছরের শুরু থেকেই অনেকটাই আড়ালে চলে গেছেন কয়েকবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত নায়িকা পপি। সর্বশেষ তিনি সাদেক সিদ্দিকী পরিচালিত একটি সিনেমার কাজ শেষ করতে পেরেছিলেন। কিন্তু রাজু আলীমের একটি সিনেমার কাজ শুরু করেও শেষ পর্যন্ত তিনি তা শেষ করে আড়ালে যেতে পারেননি। পপি, কেন আড়ালে, আর এই আড়াল কবেই বা তিনি ভাঙ্গবেন সে ব্যাপারে কোন নিশ্চয়তা মিলেনি। কেউ বলছেন তিনি বিয়ে করে আড়াল হয়েছেন।

আবার এ ব্যাপারে কোন সত্যতা বা প্রমাণও মিলেনি। তবে শিল্পী সমিতির গেলো নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদক পদে প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়া চিত্রনায়িকা নিপুণের সঙ্গে তার যোগাযোগ রয়েছে। তার সূত্রে জানা যায় যে পপি হয়তো শিগগিরই আড়াল ভাঙ্গবেন। শাবনূর আর পপি’র কোটি কোটি ভক্তরা চান তারা দু’জনই নিয়মিত কাজ করুন। ভালো গল্প এবং তাদের উপযোগী চরিত্রেই তার ভক্ত দর্শকেরা তাদের দেখতে চান।

যদি শাবনূর-পপি দু’জনই আবার চলচ্চিত্রে অভিনয়ে ফিরেন এবং এই সময়ে একটু ব্যতিক্রম ঘরানার সিনেমার প্রতি দর্শক যেভাবে আগ্রহী হয়ে উঠছেন, এ্ই ধরনের গল্পে যদি তারা কাজ করেন তবে অনেকেরই তারা ধারনা তারা দু’জন আবারো অভিনয়েই ব্যস্ত হয়ে উঠবেন। কারণ এমন অনেক গুনী নির্মাতাও আছেন যারা শাবনূর-পপি’কে নিয়ে কাজ করতে চান। শাবনূর পপি’র সঙ্গে অনেক সিনেমাতে অভিনয় করেছেন ফেরদৌস।

তিনি বলেন,‘ শাবনূর কিংবা পপি দু’জনই মেধাবী অভিনেত্রী। দু’জনই অসময়ে অভিনয় থেকে নিজেদের আড়াল করেছেন। যে সময়টাতে তাদের উপর গল্প ভাবনা নিয়ে সিনেমা নির্মিত হতে পারতো, সেই সময়েই তারা নেই। আমি চাইবো তারা কাজে ফিরে আসুক, আমাদের চলচ্চিত্রাঙ্গন আরো প্রাণ ফিরে পাবে। কারণ দু’জনই ভীষণ জনপ্রিয়, পরিশ্রমী এবং জাত শিল্পী।’

Previous articleফেব্রুয়ারীতে গিয়াস উদ্দিন সেলিমের ‘কাজলরেখা’ মুক্তি পাবে
Next articleআজ বলিউড অভিনেত্রী শিল্পা শেঠির জন্মদিন

Leave a Reply