জমজমাট ডেস্ক:

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন,
দেশে অনেক ঘটনা ঘটছে। জানিনা চট্টগ্রাম ইলেকট্রিক ইউনিট বিদ্যুৎ জানিনা চট্টগ্রামের এই কন্টেইনার ডিপো সাপোর্টেড কিনা। পদ্মাসেতু উদ্বোধনকে সামনে রেখে অন্তর্ঘাত করার ষড়যন্ত্র আছে।

বুধবার (৮ জুন) বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্র পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষে দুই তীরের জেলা সমূহের সংসদ সদস্য, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি এবং আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, পদ্মাসেতু
উদ্বোধনের দিনেও একটা ঘটনা ঘটাতে অনেকে মরিয়া হয়ে আছে। আমাদের সাবধান থাকতে হবে। সবাই সর্তক থাকবেন যাতে শত্রুরা ভিতরে প্রবেশ করে অন্তর্ঘাত করতে না পারে। এই কথাটা বলার জন্য বিশেষ করে আমি আপনাদের সামনে এসেছি। সকলেই সেদিন সুশৃংখল পরিবেশ বজায় রাখবেন।

তিনি বলেন, পদ্মাসেতু শেখ হাসিনার সাহসের সোনালী ফসল, সততার প্রতীক, বাঙালি জাতির অহংকারের প্রতীক। গৌরবের প্রতীক। আরেকটা দিক হচ্ছে
বিশ্ব ব্যাংক আমাদেরকে দুর্নীতি-চুরির অপবাদ দিয়ে পদ্মাসেতুর অর্থায়ান থেকে সড়ে গিয়েছিলো। বিশ্ব ব্যাংক যে অপমান করেছে, শেখ হাসিনা-শেখ রেহেনা, জয়-পুতুল, ববি কাউকে বাদ দেয় নি। গোটা বঙ্গবন্ধু পরিবারকে অপমান করেছে। অপবাদ দিয়েছে। বাঙালি জাতির সম্মানের উপরে আঘাত হেনেছে। আমাদের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করেছে।

সেতুমন্ত্রী বলেন, পদ্মাসেতু শুধু আমাদের সক্ষমতার সেতু নয়, এই সেতু আমাদের অপমানের প্রতিশোধ। আজকে বিশ্বব্যাংক স্বীকার করছে, পদ্মাসেতু থেকে সরে গিয়ে তারা বড় ভুল করেছে। পদ্মাসেতু নিয়ে এখনও গুজব-মিথ্যাচার করছে। যড়যন্ত্রকারীরা জানে পদ্মাসেতু হয়ে গেলে শেখ হাসিনার উজ্জল ভাবমূর্তি সারাবিশ্বে প্রসংশিত হবেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন,পদ্মাসেতুর উদ্ধোধনের দিন সারা বাংলাদেশ থেকে জনতার ঢল নামবে। পদ্মাসেতুর যখন হয়ে গেছে তখন বিএনপির অন্তরজ্বলা শুরু হয়েছে।

সভায় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য,কাজী জাফরুল্লাহ, শেখ হেলাল, শাজাহান খান, জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান, জাতীয় সংসদের হুইপ নূর-ই আলম চৌধুরী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দীন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক, মির্জা আজম, এসএম কামাল হোসেন, আফজাল হোসেন,প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড.আব্দুস সোবহান গোলাপ,বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, দফতর সম্পাদক সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন, মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম, পানি সম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম, আওয়ামী লীগের কার্যনিবাহী’র সদস্য ওশরীয়তপুর- ১আসনের সংসদ সদস্য ইকবাল হোসেন অপু, উপ-দফতর সায়েম খানসহ অনেকেই।

Previous articleসীতাকুণ্ডের বিএম কন্টেইনার ডিপোর আগুন পুরোপুরি নিভল
Next articleসন্ত্রাসীরা পার পেলে দেশে সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম হবে : জিএম কাদের

Leave a Reply