বাংলা চলচ্চিত্রের দীর্ঘাঙ্গী সুন্দরী ও গ্ল্যামারাস নায়িকা সূচনা আজাদ তার অভিনীত দ্বিতীয় ছবি ‘আগামীকাল’ নিয়ে ৩ জুন আবার পর্দায় আসছেন। ছবিটি পরিচালনা করেছেন অঞ্জন আইচ। সূচনা আজাদ ইতিপূর্বে ‘আব্বাস’ নামের একটি ছবির মাধ্যমে চিত্রনায়িকা হিসেবে অভিষিক্ত হয়েছেন। এই ছবিটির পরিচালক ছিলেন ওই ছবিতে তিনি নায়ক হিসেবে পেয়েছেন নিরবকে।

প্রথম ছবি আব্বাস মুক্তির আগে সূচনা আজাদ বলেছিলেন, ওই ছবিটি প্রত্যাশা মাফিক দর্শকপ্রিয়তা অর্জন করলে আমি চলচ্চিত্রে ক্যারিয়ার গড়ে তোলার জন্যে ধৈর্য সহকারে তিন বছর অপেক্ষা করেছি। চলচ্চিত্রের জন্যে আমি তিন বছর কোন নাটক করিনি। এখানে দীর্ঘ সময় ধরে কাজ করতে এসেছি। চলচ্চিত্রই আমার প্রথম পছন্দ। এখানেই আমি ক্যারিয়ার গড়ে তুলতে চাই। তবে চলচ্চিত্রের কাজের অবসরে ভালো কিছু নাটক ও বিজ্ঞাপনে কাজ করার ইচ্ছে আমার আছে।

দ্বিতীয় ছবি আগামীকাল মুক্তির আগে এই মডেল ও অভিনেত্রী বলেন, আপনারা সিনেমা হলে এসে আগামীকাল ছবিটি দেখুন। আপনাদের টিকিটের টাকা বৃথা যাবে না। আপনারা সিনেমাটি উপভোগ করবেন। নিজের অভিনীত ছবি দেখার জন্য এভাবেই আহবান ধারালো ফিগারের এই তরুণী আরও বলেন, এই ছবির গানগুলো অনেক শ্রুতিমধুর। আমি নিজের সর্বোচ্চ দিয়ে অভিনয়ের চেষ্টা করেছি। এটি এমন একটি সিনেমা যেখানে শুধু অভিনয় করেছি এমন নয়, এর সঙ্গে আমার অনেক আবেগ জড়িত। কারণ, এই ছবির জন্মলগ্ন থেকেই আমি আছি। আমি, টুটুল ভাই, অঞ্জন দা আমাদের তিনজনের একটা আড্ডা থেকে আগামীকাল ছবির জন্ম হয়।

উল্লেখ্য, আগামীকাল ছবিতে অন্যান্যদের মধ্যে অভিনয় করেছেন ইমন, মম, টুটুল চৌধুরী, আশীষ খন্দকার, শতাব্দী ওয়াদুদ, ফারুক আহমেদ, সুজাত শিমুল প্রমুখ।

সূচনা আজাদ জানান, এই ছবিটি মুক্তির আগে তিনি বেশ কিছু নাটকে অভিনয় করেছেন। সেগুলোর শুটিং হয়েছে নেপালে। তিনি জানান, সেখানে ৬টি নাটকের শুটিং করেছেন। এর মধ্যে দুটি দীপু হাজরার পরিচালনা, তিনটি অঞ্জন আইচের, অপরটি পরিচালনা করেছেন রবি। দীপু হাজরার পরিচালনায় সেই তুমি এই আমি ও গিনিপিগ। প্রথমটিতে তার সহশিল্পী ছিলেন ইমন। গিনিপিগ নাটকে সহশিল্পী ছিলেন আ খ ম হাসান। অঞ্জন আইচের পরিচালনায় ব্যাড বয় নাটকে সহশিল্পী ছিলেন সজল। চুন্নু নান্নু এখন নেপালে নাটকে সহশিল্পী সজল। আমাদের কাণ্ডকারখানাতে সহশিল্পী ছিলেন আ খ ম হাসান। এছাড়াও ব্ল্যাক ভ্যাকেশন নামের আরেকটি নাটকে অভিনয় করেছেন তিনি।

সূচনা আজাদ আরও দুটি নাটকে অভিনয় করেছেন। নাটক দুটিতে তাকে রবীন্দ্রনাথের গল্পের নায়িকা হিসেবে দেখা গেছে। দুটি নাটকই পরিচালনা করেছেন অঞ্জন আইচ। একটির নাম তপসিনী। এতে লাবণ্য চরিত্রে দেখা গেছে তাকে। আরেকটি নাটকের নাম সংস্কার। এতে বিন্দু চরিত্রে অভিনয় করেছেন সুদর্শনা সূচনা আজাদ।

সূচনা আজাদ জানান, চলচ্চিত্র ও নাটকে অভিনয়ের আগে তার শোবিজ ক্যারিয়ার শুরু হয় বিজ্ঞাপনচিত্রের মডেল হিসেবে। রবি, ইগলো, সিঙ্গার, সাইমন বিচ, ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ড, প্রাণ-আরএফএল, এখানেই.কমসহ ৩০টির মতো বিজ্ঞাপনচিত্রে মডেল হয়েছেন তিনি।

উল্লেখ্য, আব্বাস ছবিটির মাধ্যমে অভিষেক হলেও সূচনা আজাদের প্রথম ছবি ছিল আশিকুর রহমান পরিচালিত ‘অগ্নিপথ’। ওই ছবিটির নির্মাণ কাজ থেমে যাওয়ায় আব্বাস ছবিতে অভিনয় করেন। আর এই ছবির মাধ্যমেই ঢাকার চলচ্চিত্রের নায়িকা হিসেবে অভিষেক ঘটার পর তার দ্বিতীয় ছবি আগামীকাল মুক্তি পাচ্ছে।

Previous articleমুক্তির অপেক্ষায় আফফান মিতুলের চারটি সিনেমা
Next articleবিয়ের পিঁড়িতে দেব – রুক্মিণী!

Leave a Reply