নাট্যপরিচালক ফরিদুল হাসান নতুন শর্টফিল্ম নির্মাণ করছেন। শর্টফিল্মটির নাম ‘দ্যা হাঙ্গা’র। এরই মধ্যে এটির শুটিং শেষ হয়েছে।

গল্পে, মায়া মেয়েটি ভাসমান বারবনিতা। বয়স ২৫ পেরিয়েছে, পরী নামের ৫-৬ বছরের একটি মেয়ে আছে তার। বস্তির একটি ঘরে মেয়েকে নিয়ে সে থাকে। এই মেয়ের বাবার পরিচয় কি ? মায়া নিজেও জানেনা।

দেখা যাবে, গত দুই সপ্তাহ ধরে দেশ জুড়ে চলছে করোনা জনিত সর্বাত্মক লকডাউন, সেই সাথে করোনাতঙ্ক। যেখানে আতঙ্কিত মানুষ নিজেকে নিরাপদ রাখার জন্য ঘর থেকেই বের হয়না, এমন কি পুশিল রাস্তায় কাউকে ঘুরতে দেখলে এরেষ্ট করে নিয়ে যায়, এবং অতি জরুরী প্রয়োজনে কেউ বের হলেও তিনফুট নিরাপদ দুরত্ব বজায় রেখে পা ফেলে, মরনের চিন্তায় সবাই তটস্ত, এই বুঝি কারো সাথে গায়ে গা লাগলেই মরণ ব্যাধি করোনা নামক ভাইরাস শরীরে ঢুকে প্রানটা বের করে নিয়ে গেলো। এত আতঙ্কের মাঝে কেউ ভাসমান বারবনিতার সাথে যৌবন জ্বালা মেটাতে আসবে, এটা মনে করাটাও পাপ। কিন্তু মায়ার ঘরে যে খাবার নাই গত তিনদিন। শরীর বিক্রি করে দিন এনে দিন খাওয়া একজন মা মেয়ের মুখে খাবার তুলে দেওয়ার বাসনায় সব আতঙ্ক মন থেকে দুর করেও পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে সে কাষ্টমারের আশায় রাস্তায় বেরিয়ে পড়ে। এরকমই এগিয়ে যাওয়া বস্তির মেয়ের গল্প নিয়ে নির্মিত হয়েছে শর্টফিল্ম ‘দ্যা হাঙ্গার’।

আহসান আলমগীরের রচনায় শর্টফিল্মটি পরিচালনা করেছেন ফরিদুল হাসান। এতে মায়া চরিত্রে অভিনয় করেছেন সঞ্চিতা দত্ত। মেয়ের চরিত্রে অভিনয় করেছে আরিয়া অরিত্রা। আরো অভিনয় করেছেন , ইকবাল হোসেন ও লাল মিয়া।

Previous articleপ্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাচ্ছে নিরব-মিথিলা জুটির ‘অমানুষ’
Next articleপ্রেমিকা বিদিশার মৃত্যুতে অবশেষে মুখ খুলেছেন প্রেমিক অনুভব

Leave a Reply