জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রাপ্ত চিত্রনায়িকা তমা মির্জা। ছোট থেকে নৃত্যশিল্পী হিসেবে মিডিয়ায় কাজ শুরু করেন। পরে মডেলিং এবং অভিনয়ে এসে সফলতা পান তমা মির্জা। পরে নাটক, সিনেমায় কাজ করে বেশ আলোচনায় চলে আসেন। চলচ্চিত্রের পাশাপাশি এখন কাজ করছেন ওটিটি মাধ্যমেও। তার প্রথম ওয়েব ফিল্ম ‘খাঁচার ভিতর অচিন পাখি’ মুক্তির পর নিজেকে আবিষ্কার করেছেন নতুনরূপে। এরপর থেকে ওয়েবেই ঝুঁকেছেন এ নায়িকা।

এবার ঈদে মুক্তি পেয়েছে ওটিটি প্লাটফর্ম চরকিতে মুক্তি পেয়েছে রায়হান রাফি পরিচালিত তমা মির্জা অভিনীত ‘ফ্লোর নম্বর ৭’ ওয়েব ফিল্মটি। মুক্তির পর বেশ প্রশংসা পাচ্ছেন তমা। তবে তাঁকে নিয়ে ইতোমধ্যে শোবিজ পাড়ায় কান পাতলেই শোনা যাচ্ছে নতুন গুঞ্জন। নির্মাতা রায়হান রাফির সাথে নাকি চুটিয়ে প্রেম করছেন তমা।

প্রেমের গুঞ্জনের বিষয়টি নিয়ে তমা মির্জা বলেন, রাফিকে নিয়ে অনেক দিন ধরেই অনেক প্রশ্ন করছে অনেকেই। এটি এখন তার নতুন কিছু নয়। এক ধরনের বিরক্তই হয়ে গিয়েছি এখন আমি বিষয়টি নিয়ে। আসলে এখন এটি নিয়ে আর আমার কিছুই বলার নেই। মানুষ তাঁদের মত করে বলছে, আমি আমার মতো করে কাজ করে যাচ্ছি। সামনে আরও ভালো, ভালো কাজ করবো। আমি চাই কাজ দিয়েই তাঁদের প্রশ্নের উত্তর দিতে। যারা আমাকে নিয়ে নানা কথা বলছে।

এদিকে ২০১৮ সালে তমার সঙ্গে হিশাম চিশতীর নামে এক ব্যবসায়ীর সাথে পরিচয় হয়। ২০১৯ সালের মে মাসে তারা বিয়ে করেন। বিয়ের এক বছর শেষ হতেই দুজনের সম্পর্কে ফাটল ধরে। স্বামী-স্ত্রী একে অপরের বিরুদ্ধে আনেন। ২০২১ সালে বিচ্ছেদ হয় তাঁদের।

আবারও কী বিয়ের পিড়িতে বসার ইচ্ছা আছে? এমন প্রশ্নের জবাবে তমা বলেন, বিয়ের চিন্তা একেবারেই নাই। একবার বিয়ের পর বেশ শিক্ষা হয়েছে। অভিজ্ঞতা তেমন ভালো ছিলো না। সুতরাং বিয়ের পরিকল্পনা একদমই নাই। আমার মা-বাবা কখনোই চাইবে না আমি একা থাকি। তবে হ্যাঁ পাঁচ বছরের আগে আমি বাবা-মাকে সেই চাপ দেয়ার সুযোগও দিবো না।

উল্লেখ্য, এম বি মানিকের বলো না তুমি আমার চলচ্চিত্রের মাধ্যমে ২০১০ সালে তমা চলচ্চিত্রে অভিষিক্ত হন। বেশ কিছু চলচ্চিত্রে পার্শ্বনায়িকা হিসেবে অভিনয় করেন। অনন্ত হীরা পরিচালিত ‘ও আমার দেশের মাটি’ চলচ্চিত্রে নায়িকা হিসেবে অভিনয় করে আলোচিত হন তিনি।

২০১৫ সালে শাহনেওয়াজ কাকলী পরিচালিত ‘নদীজন’ চলচ্চিত্রে পার্শ্বচরিত্রে অভিনয় করে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন তিনি। এছাড়াও তিনি শাহাদাৎ হোসেন লিটনের ‘অহংকার’, দেবাশীষ বিশ্বাসের ‘চল পালাই’, রয়েল খানের ‘গেইম রিটার্নস’ ও মারিয়া তুষারের ‘গ্রাস’, সাদাত হোসাইনের গহীনের গান চলচ্চিত্রে উল্লেখযোগ্য ভূমিকায় অভিনয় করেছেন।

Previous articleসাদা হাতি নয় রুপপুর হবে রুপসী ময়ুর
Next articleআমেরিকা প্রবাসীকে গোপনে বিয়ে করেছেন বিপাশা কবির

Leave a Reply