বাংলাদেশী চলচ্চিত্রের আইটেম গার্ল বিপাশা কবির গোপনে বিয়ে করেছেন বলে শোনা যাচ্ছে। তবে এখনও তিনি তার এই বিয়ের খবর প্রকাশ্যে আনেননি। তার কাছ থেকে বিয়ের খবরের সত্যতা না জানা গেলেও আমেরিকার বিভিন্ন সূত্র থেকে তার বিয়ের বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া গেছে। কারণ, বিপাশার স্বামী আমেরিকা প্রবাসী।

জানা গেছে, বিপাশার গোপন স্বামীর নাম শামীম খান। বাংলাদেশের সিলেটে তার বাড়ি। এটি তার দ্বিতীয় বিয়ে। আগের স্ত্রীর সংসারে শামীম খানের দুই ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে। আমেরিকার নিউইয়র্ক প্রবাসী এই বাংলাদেশী ব্যবসায়ীর সতেরো বছর বয়সী বড় ছেলে কোরআনে হাফেজ বলে জানা গেছে। তার অন্য দুই সন্তানের বয়স যথাক্রমে ১৫ ও ৮ বছর।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গেলো বছরের সেপ্টেম্বরের শেষ সপ্তাহে অথবা অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহে শামীম খানকে গোপনে বিয়ে করেন বিপাশা কবির। এর আগে আমেরিকা থেকে ঢাকায় আসেন শামীম খান। বিয়ের পরপরই তিনি স্বামীকে নিয়ে দ্বীপরাষ্ট্র মালদ্বীপে যান মধুচন্দ্রিমা উদযাপন করতে। বিপাশার ফেসবুক প্রোফাইল জুড়ে ওই সময় তার মধুচন্দ্রিমার অনেক ছবি দেখা যায়। সেখানে তিনি সমুদ্র পাড়ে রোম্যান্টিক মুডে ক্যান্ডল লাইট ডিনারও করেন, সেই ছবি বিপাশা তার ফেসবুকে শেয়ারও করেন। এই প্রতিবেদকের হাতে শামীম খানের কিছু ছবি এসেছে, ওই ছবিগুলোও মালদ্বীপে তোলা। এমনকী একই স্থানে তোলা বিপাশার ছবিও রয়েছে।

গোপন বিয়ের খবরের প্রতিক্রিয়ায় ইতিপূর্বে বিপাশা কবির কয়েকজন সাংবাদিককে জানান, তিনি বিয়ে করেননি। কিন্তু শামীম খানের ছবি দেখালে তিনি উত্তেজিত হয়ে উঠেন। নিজের কিছু ঘনিষ্ঠ সাংবাদিককে তিনি বলেন, আমার ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে সাংবাদিকদের এতো আগ্রহ আমার জন্যে অসহ্য। তবে এবার তিনি গোপন বিয়ের বিষয়ে সরাসরি হ্যাঁ বা না বলেননি। তবে তিনি এমন ধরনের প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন যে, তার গোপন বিয়ের খবর সঠিক।

জানা যায়, বিয়ের পর বিপাশা কবির তার কিছু সহকর্মীদের সঙ্গে এক কর্পোরেট কর্মকর্তার দেওয়া পার্টিতে অংশ নেন। সেখানেই তিনি জানান, ইংল্যান্ড চলে যাচ্ছেন। অর্থাৎ বিয়ে পরবর্তী ফেয়ারওয়েল পার্টি করেন বিপাশা। এই বিষয়ে আমেরিকা প্রবাসী একাধিক সূত্রে জানা গেছে, তার স্বামী শামীম খান ইচ্ছে করেই শুরুতে তাকে আমেরিকায় নিয়ে যাচ্ছেন। তার এক আত্মীয়ের মাধ্যমে স্ত্রী বিপাশাকে তিনি ইংল্যান্ড নেওয়ার ব্যবস্থা করেছেন। সেখান থেকে পরবর্তীতে তাকে আমেরিকা নিয়ে যাবেন। কারণ, তিনি যদি এখন দ্বিতীয় স্ত্রী বিপাশাকে আমেরিকায় নেওয়ার চেষ্টা করেন, সেক্ষেত্রে যদি তার প্রথম স্ত্রী কোনো মামলা বা অভিযোগ করেন তাহলে বিপাশার আমেরিকায় ঢুকতে সমস্যা হবে। তাই বিকল্প ব্যবস্থা হিসেবে তাকে ইংল্যান্ড হয়ে আমেরিকায় নেওয়ার প্রস্তুতি চলছে।

বিপাশা কবিরের বিয়ের বিষয়ে আরেকটু স্পষ্ট বিষয় হলো – তিনি তার নামের সঙ্গে খান পদবী যোগ করেছেন। তার ফেসবুক আইডি আগে ছিল তার মিডিয়ার নামের সঙ্গে মিল রেখে – বিপাশা কবির। আর এখন তিনি স্বামী শামীম খানের খান যোগ করে হয়েছেন বিপাশা কবির খান। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, শামীম খানের স্ত্রী হিসেবে বিপাশা তার সকল ডকুমেন্টস তৈরি করেছেন। তার পাসপোর্টসহ সকল কাগজপত্রে নামের সঙ্গে খান যোগ করেছেন। এমনকী নিজের ফেসবুক আইডিও বিপাশা কবির খান নামেই ভেরিফায়েড করেছেন। এই বিষয়টিও তার গোপন বিয়ের খবর জোরালো করে তুলেছে। অন্যদিকে, কয়েকজন সাংবাদিকের কাছে বিপাশা স্বীকার করেছেন – তিনি ইংল্যান্ড চলে যাচ্ছেন।

এদিকে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিশ্বস্ত একটি সূত্র জানিয়েছে- বিয়ের ব্যাপরটি উঠে এলে বিপাশা চ্যালেঞ্জ করেছিলেন কাবিননামা দেখাতে পারবেন কিনা কেউ? পরে সেখানে থেকে সুর নরম করেন এবং বিষয়টি একেবারেই নিজস্ব বলে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন।

উল্লেখ্য, ঢাকার চলচ্চিত্রের এই আইটেম গার্ল কয়েকটি ছবিতে দ্বিতীয় নায়িকার চরিত্রে অভিনয় করেও নায়িকা হিসেবে নিজের ক্যারিয়ার দাঁড় করাতে পারেননি। শামীম খানকে বিয়ের আগে অভিনেতা সাঞ্জু জন ও চলচ্চিত্র পরিচালক ও নেতার সঙ্গে গভীর প্রেম ছিলো ওপেন সিক্রেট।

Previous articleরায়হান রাফির সাথে তমা মির্জার প্রেমের গুঞ্জন
Next articleঅভিনেত্রী সোহানা সাবা শুভকে কটাক্ষ করে যা বললেন

Leave a Reply