সোনালী যুগের চিত্রনায়িকা অঞ্জনা রহমান ভয়ানক অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হলেন । বুধবার দিবাগত রাত আনুমানিক ৩টার দিকে তার বাসায় (বাসার কাজ চলছে) কারা যেন ঢোকার চেষ্টা করে। এমন সময় টের পেয়ে চিৎকার দিয়ে উঠেন এই অভিনেত্রী। তার চিৎকারে সঙ্গে সঙ্গে পালিয়ে যায় তারা। এরপরই ফোন করে সাহায্য চাওয়া হয় উত্তরখান থানায়। এরপর রাত তিনটার দিকে হঠাৎ করেই উপস্থিত হন পুলিশ। বিষয়টি অভিনেত্রী নিজেই নিশ্চিত করেছেন।

ঘটনার বর্ণনা দিয়ে অঞ্জনা বলেন, আজ এক ভয়ানক অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হলাম রাত তখন আনুমানিক দুইটা। আমি ড্রইং রুমে গেলাম হঠাৎ আমার বাড়ির ছাদে মানুষের পায়ের আওয়াজ, ফিসফিস কথার শব্দ। ভয়ে গা শিউরে উঠলো। এত রাতে ছাদে কে? আমি সাথে সাথে আমার ছেলেকে ডাকি। আমাদের শব্দ পেয়ে ৩ তলার ছাদ বেয়ে আগন্তুক গন নিচে নেমে যায়। আমি এক মুহূর্ত দেরি না করে উত্তরখান থানায় ফোন করি। সঙ্গে সঙ্গে এস আই মুশফিক ভাই’সহ ৬-৭ জন পুলিশ সদস্য ১০ মিনিটের মধ্য আমার বাড়ির নিচে চলে আসলো।

তিনি আরও বলেন, বাড়ির সামনের সাইডের একটি অংশে আমার বাড়ির নির্মাণাধীন কাজের অনেক বালি রাখা ছিল। ৩ তলার ছাদ বেয়ে দুই তালার বারান্দার কার্নিশের অংশ থেকে নিচে বালিতে লাফ দিয়ে নেমেছিল তারা। বালিতে ৩-৪ জনের পায়ের ছাপ তৎক্ষণাত সনাক্ত করা হয়।

প্রশাসনকে কৃতজ্ঞতা জানিয়ে অভিনেত্রী বলেন, চির কৃতজ্ঞতা আপনাদের প্রতি সত্যিকার অর্থেই পুলিশ জনগণের বন্ধু এটা নিঃসন্দে প্রমাণিত। আমার ড্রাইভার ছুটিতে। বাসায় একমাত্র আমি ও আমার ছেলে। দারোয়ানও আজ বৃষ্টির জন্য আসতে পারেনি। তাই হয়ত কেউবা এই সুযোগটাই খুজছিল কোন ক্ষতি করার জন্য। যাই হোক আল্লাহর রহমতে কোনো প্রকার ক্ষতি হয়নি। আবারো কৃতজ্ঞতা পোষণ করি বাংলাদেশ পুলিশ প্রশাসনের প্রতি।

এক সময়ের জনপ্রিয় চলচ্চিত্র নায়িকা অঞ্জনা রহমান। নায়িকা হিসেবে তিন শতাধিক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। শুধু তাই নয়, অভিনয়ের পাশাপাশি নাচেও আলাদা করে নিজের প্রতিভার স্বাক্ষর রেখেছেন অঞ্জনা। বাংলা চলচ্চিত্রে কিংবদন্তি নায়িকা হিসেবেও পরিগণিত হন এ নায়িকা। তিনি অভিনয় ও নাচে অর্জন করেছেন জাতীয় পুরস্কার।

Previous articleজসীম উদ্দিন আকাশের কথায় এস কে শানু’র কন্ঠে ‘টাকাই বড় ধন ভাঙ্গে রক্তের বাঁধন’
Next articleদর্শক প্রসংশায় ভাসছে ফারহান-কেয়ার ‘ভুলোনা আমায়’

Leave a Reply