‘কোক স্টুডিও বাংলা’ প্রথম গান প্রকাশ করেছে ‘। গতকাল বুধবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) রাতে হাজং সম্প্রদায়ের ভাষার গানের পাশাপাশি দেশের পরিচিত লোকসংগীত ‘দোল দোল দুলুনি’ গানটি প্রকাশ হয়। মূলত দুটি গান মিলিয়ে ফিউশনে একটি গান তৈরি করা হয়েছে।

গানটি শুনে শ্রোতা-দর্শকরা মিশ্র প্রতিক্রিয়া লিখছেন সামাজিক মাধ্যমে। তবে প্রশংসাই ঝরছে বেশি। এতদিন বিদেশের শিল্পীদের গান শুনে আসা শ্রোতা-দর্শক কোক স্টুডিওতে নিজ দেশের শিল্পীর পরিবেশনা পেয়ে যেন আপ্লুত।

‘নাসেক নাসেক’ শিরোনামে গানটিতে হাজং ভাষার অংশটি গেয়েছেন অনিমেষ রায় এবং ‘দোল দোল দুলুনি’ গানটি গেয়েছেন পান্থ কানাই। ‘নাসেক নাসেক’ গানের বিবরণে লেখা হয়েছে, আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের মাসে আমরা গর্বের সঙ্গে হাজং ভাষার পাশাপাশি সব আদিবাসীদের ভাষার প্রতি সম্মান প্রদর্শন করছি।

‘নাসেক’ হাজং সম্প্রদায়ের ভাষার শব্দ। বাংলায় এর অর্থ ‘নাচো’। অনিমেষ রায় তার মাতৃভাষা অর্থাৎ হাজং ভাষায় লিখেছেন গানটি। আর আব্দুল লতিফের লেখা ‘দোল দোল দুলুনি’ গানটির মূলশিল্পী আব্দুল আলীম।

কোক স্টুডিও বাংলার সংগীত প্রযোজক শায়ান চৌধুরী অর্ণব বলেন, ‌‘আমাদের প্রথম গানটি সবার কাছে তুলে ধরতে পেরে আমরা রোমাঞ্চিত। এই গানটি করতে গিয়ে আমরা যেরকম উপভোগ করেছি, আশা করি, দর্শকরাও গানটি সেরকম উপভোগ করবেন। এটি কোক স্টুডিওর মাত্র শুরু, প্রথম সিজনের জন্য জনপ্রিয় আরো শিল্পীর গাওয়া আরো চমৎকার গান অপেক্ষা করে আছে।

প্রথম সিজনের প্রথম গানটি ফেসবুক লাইভ ও ইউটিউব লাইভ প্রিমিয়ারের মাধ্যমে মুক্তি পেয়েছে। সারা পৃথিবীর ভক্তরা বিনামূল্যে এই সেশনে অংশ নিয়েছেন। অনুষ্ঠানের শুরুতেই লাইভ দর্শক-শ্রোতাদের স্বাগত জানান কোকা-কোলা কোম্পানির নতুন ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর তাহসান খান। তারপর তিনি দর্শকদের নিয়ে যান ব্যাক স্টেজে। এর পরই তাহসান প্রথম গানটির পর্দা উন্মোচন করেন এবং লাইভ শ্রোতারা গানটি উপভোগ করেন।

গানটি প্রকাশিত হওয়ার পর লাইভে এসে কমেন্ট সেকশনের মাধ্যমে ভক্তদের সাথে আলাপচারিতায় অংশ নেন তাহসান। এরপর ভক্তদের নিয়ে একটি প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। তাহসান কোক স্টুডিও বাংলা নিয়ে ১০টি প্রশ্ন করেন এবং সবচেয়ে দ্রুত উত্তরদাতা কোক স্টুডিও বাংলা-র পক্ষ থেকে জিতে নেন পুরস্কার।

Leave a Reply