Connect with us

Jamjamat

‘পোষ্টারের কদর বেড়েছে’- মুহাম্মদ মাসুম বিল্লাহ্

বিবিধ

‘পোষ্টারের কদর বেড়েছে’- মুহাম্মদ মাসুম বিল্লাহ্

চলচ্চিত্রে পোষ্টারের প্রয়োজনীয়তা বহু পুরনো। সে কথা সকলেরই জানা। কিন্তু সময়ের বিবর্তনে নটকেও বেড়েছে পোষ্টারের কদর। সময়টা এখন প্রচারণার। হোক সেটি টেলিভিশন কিংবা অনলাইন দুনিয়ায়। মুহাম্মদ মাসুম বিল্লাহ্ কে পোষ্টার ডিজাইনের পথিকৃতই বলা চলে। অনেক প্রতিষ্ঠিত লেভেল কোম্পানি গুলোর কাজ তিনি একক ভাবে করে থাকেন। সাথে বিভিন্ন মাধ্যমেরও। যদিও তাঁর শুরুটা হয় ১৯৯৮ সালের শুরু দিকে ক্যালিগ্রাফির মধ্য দিয়ে।

সে সময় বাঁশের কলম দিয়ে নিজের মতো করে ক্যানভাসে এ্যাক্রেলিক মাধ্যমে ও জলরংএ একের পর এক ক্যালিগ্রাফি ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা করেন। অনেক গুণি শিল্পীদের সাথে বিভিন্ন গ্যালারীতে তার গ্রæপ প্রদর্শনীও হয়েছে বহুবার। বর্তমানে সেটি এখন ডিজিটাল মাধ্যমে রূপান্তরিত হয়েছে। অবশ্য তিনি খ্যাতি লাভ করেন ক্যাসেটের কভার ডিজাইনের মধ্য দিয়ে। যার সূত্রপাত ২০০২ সালে। সাউন্ডেক, সংগীতা, সেলেক্স, বেতার জগত, সারগাম, বিউটি কর্ণার সহ আরো অনেক কোম্পানির যত ক্যাসেট কভার ডিজাইন হতো তার অধিকাংশই করতে হতো মাসুম বিল্লাহ্কে।

বর্তমানে তিনি একজন আলোচিত পোষ্টার ডিজাইনার হিসাবে পরিচিত মুখ। কত শত নাটক, চলচ্চিত্র, অনুষ্ঠান, সংগীত শিল্পীদের পোষ্টার ডিজাইন তিনি করেছেন। যার রেকর্ড এখনও কেউ টপকাতে পারেনি বলে তাঁর বিশ্বাস। কুমিল্লার মেঘনার ছেলে মুহাম্মদ মাসুম বিল্লাহ্’র প্রাপ্তির ঝুলিতে ইতোমধ্যে পুরেছেন ‘সাঁকো টেলিফিল্ম এ্যাওয়ার্ড-২০১২, চ্যানেল আই এ্যাওয়ার্ড-২০১৮ (বেস্ট পোষ্টার ডিজাইনার) সহ অনেক সম্মাননা ও পুরস্কার।

এমন এক গুণী শিল্পীর ভবিষ্যত পরিকলপনার কথা জানতে চাইলে মাসুম বিল্লাহ্ বলেন ক্যালিগ্রাফি আমার শখের জায়গা, আর পোষ্টার ডিজাইন হচ্ছে পেশা ও নেশা দুটোই। আমার আজকের যতটুকু প্রাপ্তি, অর্জন তা আমার পোষ্টার ডিজাইনকে ঘিরে। সুতরাং আমি বাকী জীবনে আরোও ভালো ভালো পোষ্টার ডিজাইন দিতে চাই।

Click to comment

Leave a Reply

More in বিবিধ

To Top