চতুর্থ স্বামী শরিফুল রাজকে বিয়ে করে গর্ভবতী হওয়ার পর আইনি নোটিশ পেলেন বহুল সমালোচিত ও বিতর্কিত চিত্রনায়িকা পরীমণি। কারণ, তিনি প্রায় দশ বছর আগে বিয়ে করেও ওই স্বামীকে তালাক না দিয়েই শরিফুল রাজকে বিয়ে করেছেন। আর সেটিকে অবৈধ অভিযোগ করে পরীমণি ও তার অভিনেতা স্বামী শরিফুল রাজকে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছেন কুমিল্লার এক আইনজীবী। আগামী ৭ কর্মদিবসে নোটিশের জবাব দিতে বলা হয়েছে। অন্যথায় আইনি পদক্ষেপ নেওয়ার কথাও বলা হয়েছে ওই নোটিশে। আগের বিয়ে করা স্বামীকে তালাক না দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত হয়েই নোটিশ করা হয়েছে বলে জানানো হয়েছে। যদি তার কাছে নথিপত্র থাকে, তাহলে সেটা যেনো প্রকাশ্যে আনা হয়।

মঙ্গলবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) রাতে কুমিল্লা জজ কোর্টের জয়নাল আবেদীন মাযহারী এক আইনজীবী পরীমণি ও রাজকে পাঠানো নোটিশের তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

নোটিশদাতার দাবি, ২০১২ সালের ৪ এপ্রিল নায়িকা পরীমণি যশোরের কেশবপুর এলাকার যুবক ফেরদৌস কবির সৌরভকে বিয়ে করেন। ওই সময় ১ লাখ টাকা কাবিনে বিয়েটি নিবন্ধন হয় কেশবপুর শহরের অফিসপাড়ার কাজী এম ইমরান হোসেনের মাধ্যমে।

কিন্তু আইনানুযায়ী স্বামী সৌরভকে তালাক না দিয়েই পরীমণি গেলো ১৭ অক্টোবর ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার শরিফুল রাজকে বিয়ে করার মাধ্যমে আইন লঙ্ঘন করেছেন – এমন অভিযোগও আনা হয় ওই নোটিশে। তবে এই নোটিশের বিষয়ে এখন পর্যন্ত গণমাধ্যমের কাছে নিজের কোনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি পরীমণি।

উল্লেখ্য হালের সমালোচিত নায়িকা পরীমনি এছাড়াও আরো দুটি বিয়ে করেছিলেন। কিছুদিন আগে পরীমনি র‍্যাব-এর এক বিশেষ অভিযানে গ্রেফতার হয়ে কারাগারে ছিলেন। তার বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ  মামলায় অভিযোগ গঠনের আদেশ প্রদান করা হয়েছে। সর্বশেষ পরীমনির আইনজীবি মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের অধীনে তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ গঠনের আদেশ বাতিল চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করেছেন।

২০১৪ সালে চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে পরীমনি তার সিনেমার ক্যারিয়ার শুরু করে এপর্যন্ত ৩০ টির বেশি সিনেমায় অভিনয় করেছেন। পিরোজপুরের মেয়ে পরীমনি চলচ্চিত্রে অভিনয়ের পাশাপাশি বেশ কিছু টিভিসিতেও অভিনয় করে দর্শক পরিচিতি পেয়েছেন। তবে অভিনয় শিল্পীর চেয়ে বিভিন্ন নেতিবাচক ঘটনার জন্ম দিয়ে তিনি প্রায়শই আলোচনার শীর্ষে উঠে এসেছেন।

Previous articleনা ফেরার দেশে চলে গেলেন গীতশ্রী সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়
Next article‘মারা গেলেন ‘ডিস্কো ডান্সার’ বাপ্পী লাহিড়ী

Leave a Reply