দারুণ উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট চলছে৷ অনেক দিন পর এফডিসি এসে ভালোই লাগছে। শিল্পীদের নিরাপত্তার কথা ভেবে যে, নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে তা খুবই ভালো। শিল্পী সমিতির নির্বাচন উপলক্ষে দুই বছর পর পর আমাদের মিলনমেলা হয়। এ দিনটি আমাদের আনন্দের। চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনে ভোট দিয়ে এভাবেই বললেন চিত্রনায়িকা বুবলী।

তিনি বলেন, দীর্ঘদিন পর সবাইকে পেয়ে ভালো লাগছে। যারা উন্নয়নের জন্য কাজ করবে তাদেরকেই ভোট দিয়েছি। আশা করি, যারা নির্বাচিত হবে তারা শিল্পীদের কল্যাণে কাজ করবে।

নির্বাচনে কাঁদা ছোড়াছুড়ি হচ্ছে না উল্লেখ করে তিনি বলেন, শিল্পীদের নির্বাচন নিয়ে যেসব আলোচনা হচ্ছে এটা স্বাভাবিক। এতটুকু হতেই পারে। ভোট দিতে এসে সুন্দর পরিবেশে পেয়েছি। ভোটের দিন দুটি প্যানেল হলেও নির্বাচনের পরের দিন আমরা সবাই সমান। শিল্পীদের কোনো ভেদাভেদ নেই।

যোগ করে তিনি বলেন, অনেকেই প্যানেল পরিবর্তন করেছে এটা আমি পজিটিভভাবে দেখছি। সবাই উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট দিচ্ছেন। ভোট যুদ্ধ মনে হচ্ছে না। সবাই আনন্দমুখর পরিবেশে ভোট দিচ্ছেন।

২১ সদস্যের কমিটির এই নির্বাচনে দুটি প্যানেল এবং দুজন স্বতন্ত্র প্রার্থীসহ ৪৪ জন চলচ্চিত্রশিল্পী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এই নির্বাচনে মোট ভোটার ৪২৮ জন।

শিল্পী সমিতির এবারের নির্বাচনে নির্বাচন কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন অভিনেতা পীরজাদা হারুন। সঙ্গে আছেন বিএইচ নিশান ও জাহিদ হোসেন। আপিল বোর্ডের চেয়ারম্যান পরিচালক সোহানুর রহমান সোহান। এই বোর্ডের সদস্য করা হয়েছে মোহাম্মদ হোসেন জেমী ও মোহাম্মদ হোসেনকে।

Previous articleনিপুণ-জায়েদের টাকা দিয়ে ভোট কেনার পাল্টাপাল্টি অভিযোগ
Next articleচিত্রনায়িকা পরীমণি প্রার্থী হয়েও ভোট দিতে আসলেন না

Leave a Reply