দেশের অন্যতম সেরা প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ক্রাউন এন্টারটেইনমেন্ট। যাত্রা শুরু করে ২০২০ সালের জানুয়ারির প্রথম দিনে। যাত্রা শুরুর পর থেকে এই প্রতিষ্ঠান অগ্রনী ভূমিকা পালন করে যাচ্ছে দেশীয় নাটকের পৃষ্ঠপোষকতায়। একের পরে এক নাটক তৈরি করে গেছে এই প্রতিষ্ঠানটি। যার প্রায় সকল নাটকই হয়েছে দর্শক সমাদৃত। এক কথায় বলা চলে দেশের নাট্যশিল্পে অভিভাবক হিসেবে কাজ করছে ক্রাউন এন্টারটেইনমেন্ট এবং এর অঙ্গপ্রতিষ্ঠানগুলো।

বৈশ্বিক মহামারী করোনায় সারা বিশ্বের কর্ম চাকা থেমে যায়। বন্ধ হয়ে যায় দেশ-বিদেশের অনেক স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠান এবং প্রযোজনা সংস্থা। তবে সেই দুঃসময়েও দেশীয় নাটকের চাকা থেমে যেতে দেয়নি ক্রাউন এন্টারটেইনমেন্ট এবং ক্রাউন ক্রিয়েশন।

বলিষ্ঠ হাতে কলাকুশলীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করে চালিয়ে গেছে নিজেদের এবং দেশীয় নাটকের অগ্রযাত্রা। লকডাউন চলাকালীন সময়ে সরকারের বিধিনিষেধ মেনে চলেছে এই প্রতিষ্ঠান তবে তাদের নাটক ব্যাংকে থাকা অজস্র নাটক মুক্তি পেয়েছে সেই কঠিন সময়েও।

লকডাউন পরবর্তী সময়ে দক্ষ চিন্তাশক্তি, অভিজ্ঞতা এবং নাটকের সাথে সংশ্লিষ্ট সকলের নিরাপত্তা বজায় রেখে নাটক নির্মান শুরু করে এই প্রতিষ্ঠান। এই সকল বিষয় মাথায় রেখে এই দুঃসাধ্য কাজ সাধন করেন ক্রাউন এন্টারটেইনমেন্ট এবং ক্রাউন ক্রিয়েশন এর চেয়ারম্যান জনাব সালাহউদ্দিন শোয়েব চৌধুরী। উনার সার্বিক তত্বাবধানে প্রয়োজনীয় সকল কার্যসম্পাদন করতে থাকেন ক্রাউন এন্টারটেইনমেন্ট এর ডেপুটি সিইও তাজুল ইসলাম এবং ক্রাউন ক্রিয়েশন এর হেড অফ অপারেশন জনাব সৈয়দ ইকবাল।

বলে রাখা ভালো, উনারা প্রতিষ্ঠানের সাথে সংশ্লিষ্ট সকলের নিরাপত্তা রক্ষা করতে শতভাগ সফল হয়েছেন। যার দরুন অত্র প্রতিষ্ঠানের কোন সদস্যই করোনায় আক্রান্ত হননি। উনারা সদস্যদেরকে সরকারের দেয়া করোনাকালীন সকল বিধিনিষেধ মেনে চলতে কঠোর নির্দেশ প্রদান করেছেন যথাসময়ে এবং তা তদারকি করেছেন সর্বক্ষন।

ক্রাউনের সাথে কাজ করা প্রত্যক্ষ সদস্যদের পাশাপাশি তাদের পরিবারের সকলের খোঁজ খবর রেখেছেন সবসময়। বিপদে আপদে পাশে থেকেছেন। সদস্যরাও নিজেদের কর্মদক্ষতা কাজে লাগিয়েছেন কর্তৃপক্ষের নির্দেশানুযায়ী।

যার ফলে ক্রাউন বিগত তিন বছরে পৌছে গেছে সেরাদের কাতারে। ক্রাউনের মূল ট্যাগলাইন হলো- আমরা ভালোবাসতে এসেছি, ভালোবাসা পেতে এসেছি এবং ক্রাউন শুরু হতে কাজও করে গেছে এই নীতি অনুযায়ী।

ক্রাউনের এই পথচলা যে সবসময় মসৃণ পথে ছিলো তা কিন্ত নয়। অনেক বাধাবিপত্তি এসেছে এই পথচলায়। তবে সকল বাধাবিপত্তি এবং অসময় থেকে নিজ অভিজ্ঞতা এবং দক্ষতাকে কাজে লাগিয়ে ক্রাউনকে সেরাদের সেরা করে তুলেছেন প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান জনাব সালাহউদ্দিন শোয়েব চৌধুরী।

আজ ক্রাউনের ৩য় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত হচ্ছে ক্রাউন এন্টারটেইনমেন্ট এর অফিসে। যেখানে উপস্থিত থাকছেন দেশের স্বনামধন্য নির্মাতা, অভিনেতা – অভিনেত্রী এবং কলাকুশলী। এভাবেই সকলের ভালোবাসা নিয়ে এগিয়ে যাবে ক্রাউন তার অদম্য গতিতে। আমরা ভালোবাসতে এসেছি, ভালোবাসা পেতে এসেছি।

Previous article‘চিরঞ্জীব মুজিব’ চলছে বগুড়ার সিনেমা হলে
Next articleধাপে ধাপে সামনের দিকে এগিয়ে চলার নাম ক্রাউন

Leave a Reply