বাংলা চলচ্চিত্রের দর্শকজনপ্রিয় চিত্রনায়ক নিরব হোসেন। বর্তমানে সিনেমা ঘিরেই তার সকল ব্যস্ততা। সম্প্রতি চলচ্চিত্র নির্মাতা সাইফ চন্দন পরিচালিত ‘কয়লা’ সিনেমার শুটিং চলাকালীন গুরুতর আহত হয়ে বিশ্রামে রয়েছেন। শুটিং বিরতির ফাঁকে আজমির শরিফে দরগায় গেলেন এই নায়ক। সেখানে গিয়ে হাত তোলেন, প্রার্থনা করেন সবার মঙ্গল চেয়ে।

এ প্রসঙ্গে চিত্রনায়ক নিরব বলেন, প্রথমবার আজমির শরিফে এলাম। শুটিংয়ের ব্যস্ততা কারণে নিজের জন্য সেভাবে সময় বের করতে পারি না। সম্প্রতি শুটিংয়ে আহত হয়ে বিশ্রামে থাকি। শারীরিক অবস্থা উন্নতি হওয়ায় আজমির শরীফে এলাম। অনেক দিনের ইচ্ছে ছিল আসার। অবশেষে এলাম। আর ঢাকায় ফিরে সবাইকে নতুন একটি চমক দেব।

মঈনুদ্দীন চিশতির ঐতিহাসিক এই দরগায় গিয়ে দারুণ অভিজ্ঞতা নিয়ে ফিরলেন নিরব। বললেন, ‘দরগার অনুভূতিটা—অন্যরকম। হাত তুলে আমার দুই মেয়ের জন্য দোয়া করেছি। স্ত্রী, বাবা-মা-ও ছিলেন। দ্রুত পৃথিবী থেকে মহামারি করোনাভাইরাস বিদায় নেক। প্রার্থনায় পৃথিবীর সকল মানুষই ছিল।

জানা গেছে, ৩ ডিসেম্বর (শুক্রবার) রাজস্থান উড়াল দেন নিরব। আগামী ৯ ডিসেম্বর (বৃহস্পতিবার) তার দেশে ফেরার কথা রয়েছে। ফিরেই শুটিংয়ে অংশ নেবেন তিনি এবং নতুন একটি খবর দেবেন।

বর্তমানে নিরব অভিনীত মুক্তির অপেক্ষায় আছে অভিনেত্রী রোজিনার ‘ফিরে দেখা’, সৈকত নাসিরের ‘ক্যাসিনো’, বন্ধন বিশ্বাসের ‘ছায়াবৃক্ষ’, অনন্য মামুনের ‘অমানুষ’সহ বেশ কয়েকটি সিনেমা। তার হাতে রয়েছে সাইফ চন্দনের ‘কয়লা’, সৈকত নাসিরের ‘ক্যাশ’সহ আরও বেশ কয়েকটি সিনেমা।

Previous articleমুরাদ হাসান ‘তেলাপোকা’ বলে শাকিব খানকে কটূক্তি করেছিলেন
Next articleমুরাদ হাসান চিত্রনায়িকা নায়িকা মৌসুমীর ফিগার নিয়েও কটূক্তি করেছিলেন

Leave a Reply