আকবর চরিত্রটিই জানি কেমন? নানান রহস্যে ঘেরা আপাদমস্তক একজন মানুষ সে। ঢাকা শহরে কোনো একটি উদ্দেশ্য নিয়ে তার আসা এবং দল ভারি করাই যেনো তার কাজ। একে একে তার দলে যোগ দেয় একঝাঁক তরুণ- তরুণী। এরা আবার সাধারণ কোনো তরুণ-তরুণী নয়। আকবরের টিমে যোগ দেয়ার জন্য সেই তরুণ-তরুণীগুলোর যোগ্যতা হিসবে থাকা লাগবে নানান প্রতিভা। হয়তো কেউ খুন করায় এক্সপার্ট হবে আবার কেউবা গুম করার জন্য, অনন্য সব প্রতিভা। আসলে সবাই মুখোশের আড়ালে অন্য আরেক মানুষ। কারোরই ভালো কোনো যোগ্যতা নেই।

‘আকবর’ নিজেও আসলে যে কী- সেটা জানা যায় ধারাবাহিকটার গল্প কিছুটা এগুলেই। শুধুমাত্র টিকে থাকার জন্যই যেনো সবার এই অভিনয়। হাস্যরসাত্মক নানান ঘটনায় এগুতে থাকে সময়ের আলোচিত ধারাবাহিক নাটক ‘আকবর দ্যা কিং’ এর গল্প। মমর রুবেলের রচনা ও সজীব মাহমুদের পরিচালনায় সম্প্রতি নগরীর উত্তরাসহ বিভিন্ন লোকেশনে ভিন্নর্ধমী এই ধারাবাহিকটির শুটিং শেষ হয়েছে।

মিডিয়ায় এরইমধ্যে ধারাবাহকিটি নিয়ে বেশ আলোচনা শোনা যাচ্ছে। ক্রাউন ক্রিয়েশনস্ এবং ডেডলাইন স্টুডিওস লিঃ এর যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত এই ধারাবাহিকটির প্রথম লটের শুটিংয়ে অংশ নিয়েছেন অভিনেতা চাষী আলম, মুকতি জাকারয়িা, মুসাফির বাচ্চু, নুসরাত জান্নাত রুহী, পাভেল, শেলী আহসান, সিনি সিগ্ধা, এমএন রাজু, নাঈমা আলম মাহা, পাপ্পু, আনোয়ার, মৌরিতা জুঁই, পাপড়ি পায়েল, রানা মল্লিক, জুয়েল সহ প্রমূখ।

পরিচালক সজীব মাহমুদ বলেন, আসলে এই সময়ে দর্শকদের ভিন্ন একটি গল্পের ধারাবাহিক উপহার দেয়ার চেষ্টা করছি। প্রায় ছয় মাস ধরে পরিকল্পনার পর আমরা ধারাবাহিকটির শুটিংয়ে যাই। ডেডলাইন স্টুডিওস লিঃ এবং ক্রাউন ক্রিয়েশনস্ মিলে একটা দারুণ কিছু দর্শকদের সামনে আনছে, এটা নিশ্চিত বলা যায়। এখনকার সময়ের কাজগুলোর চাইতে একটু আলাদা সাবজেক্টকে কেন্দ্র করে ধারাবাহিকটি নির্মিত হচ্ছে, সিরিয়াস যে কোনো বার্তাও হাস্যরসাত্মকভাবে গল্পে তুলে ধরা হয়েছে। আমরা চেষ্টা করছি দর্শকদের সামনে ভিন্নকিছু নিয়ে আসার।’

পরিচালক সূত্রে জানা যায়, চলতি নভেম্বর মাসেই ধারাবাহিকটি একটি বেসরকারী টেলিভিশনে সম্প্রচারের পর ডেডলাইন এন্টারটইেনমেন্টের ইউটিউব চ্যানেলে পর্যায়ক্রমে পর্ব বাই পর্ব প্রচার করা হবে।

Previous articleহিরো আলমের দুটি চলচ্চিত্রে গান গাইবেন রানু মণ্ডল!
Next articleবুবলীর নতুন চলচ্চিত্র ‘কয়লা’

Leave a Reply