খিঁজির হায়াত খান, সিলেট ক্যাডেট কলেজের এক্স-ক্যাডেট। দেশীয় চলচ্চিত্রের প্রতি অগাধ প্রেম, শ্রদ্ধা, ভালোবাসা থেকেই তিনি দেশীয় চলচ্চিত্র শিল্প-সংষ্কৃতির সঙ্গে নিজেকে সম্পৃক্ত করেন। বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর রহমান’র উপর গল্প আবর্তিত করে তিনি প্রথম নির্মাণ করেন ‘অস্তিত্বে আমার দেশ’ নামের একটি সিনেমা। এতে তিনি বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর রহমানের চরিত্রে অভিনয় করেন।

পরবর্তীতে ‘জাগো’ ও ‘মিস্টার বাংলাদেশ’ সিনেমা’তে অভিনয় করেন। ‘জাগো’ তারই পরিচালনায় নির্মিত আলোচিত সিনেমা। খিঁজির হায়াত খানের প্রত্যেকটি সিনেমাতেই দেশপ্রেম’র এক অনন্য দৃষ্টান্ত পাওয়া যায়। সেই ধারাবাহিকতায় এবার তিনি মুক্তিযুদ্ধের সময়কালের গল্প নিয়ে নির্মাণ করছেন ‘ওরা সাতজন’ সিনেমা। এর কাহিনী, সংলাপ, চিত্রনাট্য সবই তাঁর নিজের। আমাদের দেশে মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে খুব বেশি সিনেমা নির্মিত হয়নি।

যে কয়’টি সিনেমা উদাহরণ হিসেবে তুলে ধরা হয় তারমধ্যে অন্যতম হচ্ছে ‘ওরা ১১জন’, ‘আবার তোরা মানুষ হ’, ‘আলোর মিছিল’, ‘ সংগ্রাম’,‘ হাঙ্গর নদী গ্রেনেড’ , ‘মেঘের অনেক রং’, ‘গেরিলা’,‘ জয়যাত্রা’,‘ শ্যামল ছায়া’ বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। সেই ধারাবাহিকতায় মুক্তিযুদ্ধের আরো একটি অন্যতম দলিল হতে যাচ্ছে খিঁজির হায়াত খানের ‘ওরা সাতজন’। সাতজন মুক্তিযোদ্ধার চরিত্রে অভিনয় করেছেন ডা. সাদ চরিত্রে ইন্তেখাব দিনার, মেজর লুৎফর চরিত্রে অভিনয় করছেন খিঁজির হায়াত খান, সাব ইন্সপেক্টর সাইফ চরিত্রে সাফি, সার্জেন্ট মুক্তাদির চরিত্রে শাহরিয়ার ফেরদৌস সজীব, সোলায়মান কাজী চরিত্রে ইমতিয়াজ বর্ষন, সুমিত চরিত্রে নাফিজ আহমেদ, নজরুল চরিত্রে খালিদ মাহবুব তূর্য এবং সিনেমার অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেত্রী জাকিয়া বারী মম।

সাতজন মুক্তিযোদ্ধার চরিত্রে গেলো মাস থেকেই অভিনয়শিল্পীরা সিলেটের জৈন্তা’র আশে পাশের এলাকায় প্রচন্ড গরমের মধ্যে অনেক কষ্ট সহ্য করে প্রতিদিনই শুটিং করছেন। পরিচালকের ভাষ্যমতে, সবাই যার যার চরিত্রে এতোটাই মিশেগেছেন যে কষ্টটা’কে শিল্পীরা কষ্ট মনে করছেন না। বরং মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম একটি দলিল সৃষ্টিতে সবাই যেন নিবেদিত হয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। গেলো ১৪ অক্টোবর থেকে ‘ওরা সাতজন’-এ অপর্ণা সেন’ নামক গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় শুরু করেছেন মম। আর এরমধ্যদিয়ে যেন ‘ওরা সাতজন’ টিমের পূর্ণাঙ্গ যাত্রা শুরু হলো।

খিঁজির হায়াত খান বলেন,‘ একজন নাগরিক হিসেবে দেশের প্রতি, দেশের মানুষের প্রতি আমার দায়িত্ব কর্তব্য’তো সবসময়ই রয়েছে। একজন নির্মাতা হিসেবে আমি মনেকরি পরবর্তী প্রজন্মের জন্য আমার মুক্তিযুদ্ধের এমন একটি দলিল রেখে যাওয়া উচিত যা পরবর্তী প্রজন্ম দেখে যেন দেশপ্রেম উদ্বুদ্ধ হয়, মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাসও যেন জানতে পারে। দিনার ভাই তার চরিত্রে দুর্দান্ত। অন্যরাও ঠিক তাই। নি:সেন্দহে মম খুউব ভালো একজন অভিনেত্রী এবং আমার বিশ্বাস দিনদিন তিনি তার চরিত্রে নিজেকে পরিপূর্ণভাবে তুলে ধরবেন।’ সিনেমাটি প্রযোজনা করছে ‘ওয়েস্টার্ন ইঞ্জিনিয়ারিং লিমিটেড’ ও ‘কেএইচকে প্রোডাকসন’।

Previous articleপূজায় মেতে উঠেছে সিনেমার তারকারা
Next articleপ্রথমবার বিজ্ঞাপনে জুটি বাঁধলেন সোহাগ বিশ্বাস – দোলন দে

Leave a Reply