মঞ্চ নাটক, সিনেমা কিংবা টিভি নাটক-ওয়েব সিরিজের এই মুহূর্তে একজন নির্ভরযোগ্য অভিনেতায় পরিণত করেছেন নিজেকে গোপালগঞ্জের সন্তান এ কে আজাদ সেতু।

১৯৯৭ সালে কামাল উদ্দিন নীলুর হাত ধরে ‘সেন্টার ফর এশিয়ান থিয়েটার’এর সাথে নিজের সম্পৃক্ততার মধ্যদিয়ে অভিনয় দুনিয়ায় সেতুর অভিষেক হয়। তখন থেকেই অভিনয়কে পেশা হিসেবে নিয়ে এখন পুরোদস্তুর একজন পেশাগত অভিনেতা হিসেবে নিজেকে পরিণত করেছেন। মূলত সেতু এখন সিনেমা এবং ওয়েব’-এ কাজ করা নিয়ে বেশি ব্যস্ত সময় পার করছেন। পরিচালকদের কাছে ভিন্ন ঘরানার চ্যালেঞ্জিং চরিত্রগুলোর জন্য সেতু’র আলাদা কদর রয়েছে।

চরিত্রানুযায়ী সংলাপ প্রক্ষেপণে নিজের বৈচিত্র যেমন দেখিয়েছেন তিনি ঠিক তেমনি অভিনয়ের সেতু নিজের মেধার স্বাক্ষর রেখেছেন। ‘সেন্টার ফর এশিয়ান থিয়েটার’ হয়ে এখনো মঞ্চে নিয়মিত কাজ করেন সেতু। এই দলের হয়ে তিনি ‘ভেলুয়া সুন্দরী’,‘ বুঁনোহাস’,‘ মিশন’,‘ রাজা’, ‘মেটামরফসিস’,‘ এম্পিটিউসন’সহ আরো বেশ কিছু মঞ্চ নাটকে অভিনয় করে প্রশংসা কুঁড়িয়েছেন। টিভিতে তার অভিনীত প্রথম নাটক ছিলো আলভী আহমেদ’র পরিচালনায় একটি নাটক। পরবর্তীতে বহু টিভি নাটকে অভিনয় করেছেন তিনি।

সেতু অভিনীত প্রথম সিনেমা ছিলো সামিয়া জামান পরিচালিত ‘আকাশ কতো দূরে’। পরবর্তীতে তিনি সৈকত নাসিরের ‘দেশা দ্য লিডার’, রাচ চক্রবর্তী’র ‘নূরজাহান’, গাজী রাকায়েতের ‘গোর’, তৌকীর আহমেদ’র ‘ফাগুন হাওয়ায়’,‘ স্ফুলিঙ্গ’, রায়হান রাফি’র ‘দহন’ সিনেমায় অভিনয় করেন। বর্তমানে রায়হান রাফি’র ‘দামাল’ ও ‘স্বপ্নবাজি’ সিনেমায় কাজ করছেন সেতু। এরইমধ্যে মুক্তির অপেক্ষায় আছে ফজলে রাব্বির পরিচালিত ‘ট্রি অব নলেজ’ সিনেমাটি।

সেতু এরইমধ্যে অভিনয়ে বেশ প্রশংসা কুঁড়িয়েছেন শিহাব শাহীনের ‘মরীচিকা’, গৌতম কৈরী’র ‘বাঘের বাচ্চা’ ও সিদ্দিক আহমেদ’র ‘সুন্দরী’ ওয়েব সিরিজে কাজ করে। সুমন আনোয়ারের একটি ওয়েভ সিরিজ প্রচারে আসবে শিগগিরই। মূলকথা সেতু এখন বেশি ব্যস্ত সিনেমা ও ওয়েব কন্টেন্ট-এ কাজ করে।

নিজের পেশা প্রসঙ্গে সেতু বলেন,‘ একজন অভিনেতা হিসেবে পরিচয় দিতে আমি ভীষণ স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করি। অভিনয় করতে গিয়ে অনেক সংগ্রাম করতে হয়েছে, অনেক সময় অভিনয় করতে কষ্ট হয়। কিন্তু যখন ক্যামেরার সামনে অভিনয় শুরু করি তখন অভিনয়ই ভীষণ উপভোগ করি। এ এক অন্যরকম ভালোলাগা, ভালোবাসা। আমি একজন অভিনেতা হিসেবে গর্বিত। নির্মাতাদের আমার প্রতি আগ্রহ বাড়ছে, দর্শকের কাছ থেকে সাড়া পাচ্ছি-এটাই অনেক বড় প্রাপ্তি। অবশ্যই আমি কৃতজ্ঞ শ্রদ্ধেয় কামাল উদ্দিন নীলু ভাইয়ের কাছে।’ সেতুর স্ত্রী তাসমিন ও একমাত্র কন্যা পূর্বিতা।

Leave a Reply