এ সময়ের তুমুল জনপ্রিয় অভিনেতা রাশেদ মামুন অপু। ‘সিটিবাস’ নাটক দিয়ে দর্শকদের কাছে পরিচিতি পান তিনি। আঞ্চলিক ভাষায় রাশেদ মামুন অপুর পরিচিতি বাড়িয়ে তোলে। এক যুগের বেশি সময় ধরে অভিনয় করছেন তিনি। এদিকে, রবিবার নতুন বছরে নতুন চলচ্চিত্রে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন অপু। জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রাপ্ত নির্মাতা মোস্তাফিজুর রহমান মানিক পরিচালিত ‘যাও পাখি বলো তারে’ সিনেমায় অভিনয় করবেন তিনি। গত ১৬ ডিসেম্বর অনলাইনে অপু অভিনীত ‘নবাব এলএলবি’ সিনেমা মুক্তি পেয়েছে। ছবিটিতে অপুর অভিনয় প্রশংসিত হয়েছে। এছাড়াও সম্প্রতি মুক্তি পাওয়া ওয়েব ফিল্ম ‘জানোয়ার’ এ অভিনয় করে আলোড়ন সৃষ্টি করেছেন তিনি।

কাজিম চরিত্রে অভিনয় করে সাড়া পাচ্ছেন। অনুভূতি কেমন? উত্তরে অপু বলেন, কাজের স্বীকৃতি একটা মানুষকে চলার পথে শক্তি যোগায়। প্রচুর এনার্জি শরীরে এসে ভর করে। নতুন নতুন কাজ করার ইচ্ছা জাগায়। নতুনভাবে বাঁচতে ইচ্ছে করে। এতো ভালোবাসা এবং কাজের এমন স্বীকৃতি পেয়ে নিঃসন্দেহে আমার খুব ভালো লাগছে। ভিউ কিংবা সাড়া কোনোটাই কাজ শুরুর আগে মাথায় থাকে না। কাজটা ভালো করার চিন্তাটাই তখন মাথায় জেঁকে বসে। তার জন্য যে সবোর্চ্চ এফোর্ট দিতে হয়, আমি সেটাই দেয়ার চেষ্টা করি। আর ‘জানোয়ার’ এর কাজটা ছিলো সম্পূর্ণ একটা টিম ওয়ার্ক। সব ধরনের চরিত্রেই অভিনয় করছি। নেগেটিভ চরিত্রের প্রতি আমার একটু দুর্বলতা আছে। এমন চরিত্রে অভিনয় করে মজা পাই।

রাশেদ মামুন অপু নির্মাতা হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে এসে হয়ে গেলেন অভিনেতা। এখন হতে চান একজন পরিপূর্ণ অভিনেতা। ছোট-বড়পর্দা ও ওটিটি প্লাটফর্ম তিন মাধ্যমেই কাজ করতে স্বাচ্ছন্দবোধ করেন। নিত্যনতুন চরিত্রে নিজেকে ভাঙতে চান তিনি। চেষ্টা করেন চরিত্রগুলোতে বৈচিত্র্য আনার।

Previous articleসজল-সারিকার ‘জুতা চরণ বাবু’
Next article২ এপ্রিল পরিচালকদের ভাগ্য পরীক্ষা

Leave a Reply