ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেতা অমিত হাসান। ১৯৮৬ সালে ‘নতুন মুখের সন্ধানে’ প্রতিযোগিতার মাধ্যমে তিনি বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে সম্পৃক্ত হন। ১৯৯০ সালে মুক্তি পায় তার অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র ‘চেতনা’। ছবিটি পরিচালনা করেন ছটকু আহমেদ। একক নায়ক হিসেবে তিনি প্রথম অভিনয় করেন মনোয়ার খোকনের ‘জ্যোতি’ চলচ্চিত্রে। এরপর তিনি উপহার দিয়েছেন অসংখ্য জনপ্রিয় চলচ্চিত্র। একটা সময়ে এসে তিনি খল অভিনেতা হিসেবে অভিনয় শুরু করেন। প্রযোজক হিসেবেও সফল। অভিনয় করেছেন ৬শর মতো চলচ্চিত্রে। এখন খল চরিত্রেই তাকে বেশি দেখা যায়। ঢাকাই সিনেমায় খল চরিত্র সংকটে অমিত হাসান সাবলীল অভিনয়ে নিজের অবস্থান অনেক আগেই জানান দিয়েছেন। দর্শক মহলেও পেয়েছেন প্রশংসা। করোনা ভাইরাসের কারণে সবার মতো তিনিও সব ধরনের শুটিং থেকে দূরে ছিলেন। সর্বশেষ মার্চের ৪ তারিখ শুটিং করেন তিনি। সেই বিরতি কাটিয়ে সম্প্রতি একটি নতুন সিনেমায় কাজ শুরু করেন অমিত হাসান। গত সপ্তাহে দেলোয়ার জাহান ঝন্টু পরিচালিত ‘তুমি আছো তুমি নেই’ শিরোনামের একটি সিনেমার শুটিং শুরু করেন। চার দিন শুটিং করে ঢাকায় ফিরেন তিনি। দ্বিতীয় লটের শুটিংয়ে আগামী শুক্রবার থেকে অংশ নিবেন।

অমিত হাসান জমজমাটকে বলেন, ‘করোনার কারণে দীর্ঘ দিন শুটিং থেকে দূরে ছিলাম। যদিও করোনা আস্তে আস্তে বৃদ্ধি পাচ্ছে তারপরও তো কাজ করতে হবে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে এরইমধ্যে নতুন ছবির চার দিনের শুটিংয়ে অংশ নিয়েছি। শুক্রবার থেকে দ্বিতীয় লটের শুটিংয়ে অংশ নেব।’ বরাবরই নেগেটিভ চরিত্রে দেখা যায়। এ ছবিতে দর্শক কি রুপে পাচ্ছে? তিনি বলেন, ‘এ ছবিতেও দর্শক নেগেটিভ চরিত্রে দেখতে পাবে। আমার চরিত্রটির নাম শাহী। আমি দীঘিকে ভালোবাসি এবং আমাদের বিয়ে হওয়ার কথা। কিন্তু আমার বয়স বেশি হওয়ায় সমস্যা দেখা দেয়। দীঘির পছন্দ আসিফকে। এ নিয়েই তৈরি হয় ক্রাইসিস। কিছু সিনেমাটিক টার্ন আছে। অনেক দিন পর একটু ভিন্ন আমেজের সিনেমায় কাজ করলাম। মুক্তির অপেক্ষায় আছে ‘বিক্ষোভ’ ও ‘ইয়েস ম্যাডাম’ সিনেমা দুটি। এছাড়াও নতুন কিছু সিনেমার কথা চলছে।’ ‘তুমি আছো তুমি নেই’ সিনেমায় আরো অভিনয় করছেন আসিফ ইমরোজ, প্রার্থনা ফারদিন দীঘি, সিমি, শবনম পারভীন, সুব্রত, আমির সিরাজীসহ অনেকেই। ছবিটি আসছে বছরে মুক্তি পাবে বলে জানা গেছে।

Previous articleশঙ্কামুক্ত ফারুক-হাকিম
Next articleনতুন উদ্যমে আসছে বিটিভির অনুষ্ঠানমালা

Leave a Reply