ঢাকাই চলচ্চিত্রের এক সময়ের জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা সাহারার খোঁজ নেই অনেক দিন ধরেই। শোবিজের কোন অনুষ্ঠানেও এখন আর আগের মত দেখা যায় না। শুরুর দিকটা মসৃণ না হলেও শাকিব খানের সঙ্গে জুটি বেঁধে উপহার দিয়েছেন অনেক ব্যবসা সফল সিনেমা। তার জনপ্রিয়তা যখন তুঙ্গে ঠিক তখনই বিয়ে করে শোবিজকে বিদায় জানিয়ে দেন এই নায়িকা। অসংখ্য ব্যবসা সফল ছবির নায়িকা এখন পুরোদস্তর ‘বাঙালি গৃহিনী’। অনেকবার ফিরবেন বললেও আর ফেরা হয় নি তার। তার সেই সময়টাতে জনপ্রিয় আরও অনেক নায়িকা থাকলেও নিজের নাচ আর অভিনয় দিয়ে দর্শক মন জয় করে প্রথম সারিতে নিজের অবস্থা তৈরি করে নিয়েছিলেন এই নায়িকা।

বর্তমানে সংসার নিয়েই তার পুরো ব্যস্ততা। তবে সংসার নিয়ে ব্যস্ততার বাইরে সাহারা তার ‘সাহারা ফ্যাশন হাউজ’ নিয়েও বেশ ব্যস্ত। সব মিলিয়ে সংসার জীবন আর ফ্যাশন হাউজ নিয়ে সাহারা এখন পুরোদস্তুর ব্যস্ত। এত ব্যস্ততার মধ্যেও অভিনয়ে ফিরতে চেয়েছিলেন হৃদয়ের টানে। যে চলচ্চিত্র তাকে পরিণত করেছে একজন পূর্ণাঙ্গ নায়িকায়, সেই মাধ্যমে আরো রঙিন হবার ইচ্ছেটা ঠিকই ছিল। কিন্তু এখন আর ফেরার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে। যতই দিন যাচ্ছে ততই ব্যস্ততা বাড়ছে সংসার ও কাজ নিয়ে। সাহারা অভিনীত সর্বশেষ মুক্তিপ্রাপ্ত চলচ্চিত্র রাজু চৌধুরী পরিচালিত ‘তোকে ভালোবাসতেই হবে’। এরপর আর নতুন কোনো চলচ্চিত্রে দেখা যায়নি তাকে।

তবে এত জনপ্রিয়তা পাওয়া নায়িকা হারিয়ে গেলেন কেন? তাহলে কি আর কখনো চলচ্চিত্রে ফিরবেন না সাহারা? এসব প্রশ্নের উত্তর জানতে কথা হয় তার সঙ্গে। সাহারা জানান, ‘বর্তমানে সংসার আর ব্যবসা নিয়ে সব ব্যস্ততা। অন্য কিছু নিয়ে চিন্তা করার সুযোগই নেই। এছাড়া আমার স্বামী মাহবুবুর রহমান চলচ্চিত্রে অভিনয় একেবারেই পছন্দ করেন না। তাই দূরে রয়েছি। ভবিষ্যতে চলচ্চিত্রে ফেরারও কোনো পরিকল্পনা নেই।’

শাহাদাত হোসেন লিটনের ‘রুখে দাড়াও’ ছবির মধ্য দিয়ে ২০০৪ সালে চলচ্চিত্রে আগমন ঘটলেও তাতে বেশ একটা ভালো করতে পারেননি নায়িকা সাহারা। তবে পরে নিজের আকর্ষণীয় ফিগার, নাচ আর অভিনয় দিয়ে দর্শকদের মন জয় করেছেন এই নায়িকা। পরবর্তীতে শীর্ষ নায়ক শাকিব খানের সঙ্গে ‘প্রিয়া আমার প্রিয়া’ ছবিতে জুটি বেঁধে অভিনয় করে সফল হন। এরপর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে। শাকিবের বিপরীতে সবচেয়ে বেশি জুটি বেঁধে ছবি করেছিলেন সাহারা।

সাহারা অভিনীত চলচ্চিত্রগুলো হলো- ‘রুখে দাড়াও’, ‘ভাড়াটে খুনি’, ‘নিষ্পাপ মুন্না’, ‘সন্তানের মতন সন্তান’, ‘নষ্ট ছাত্র’, ‘ভালোবেসে মরতে পারি’, ‘ময়দান’, ‘মাই নেম ইজ সুলতান’, ‘সাথী হারা নাগিন’, ‘সাহেব নামে গোলাম’, ‘মাস্তান নাম্বার ১’, ‘প্রিয়া আমার প্রিয়া’, ‘চ্যালেঞ্জ’, ‘প্রেম কয়েদী’, ‘খোদার পরে মা’, ‘বিষাক্ত চোখ’, ‘ভালোবেসে বউ বানাবো’, ‘বলবো কথা বাসর ঘরে’, ‘ডন নাম্বার ১’, ‘বস নাম্বার ১’, ‘বেশরম ছেলে’, ‘ঢাকা টু বোম্বে’, ‘জোর করে ভালোবাসা হয় না’ ইত্যাদি।

Previous article‘কোন আকাশে থাকিসরে তুই’
Next articleচলচ্চিত্রের জন্য প্রস্তুত সারিকা

Leave a Reply