বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির আয়োজনে একাডেমির চারুকলা বিভাগের ব্যবস্থাপনায় মঙ্গলবার ২৭ অক্টোবর থেকে ২৬ নভেম্বর ২০২০ জাতীয় চিত্রশালা ভবনের ১ ও ২নং গ্যালারীতে ‘আর্ট এগেইনস্ট করোনা’ শীর্ষক মাসব্যাপী চিত্রকর্ম প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে। মঙ্গলবার (২৭ অক্টোবর) বিকাল ৪টায় একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা মিলনায়তনে মাসব্যাপী প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন এমপি। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জনাব কে এম খালিদ এমপি, সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. বদরুল আরেফীন এবং বরেণ্য চিত্রশিল্পী জামাল আহমেদ। স্বাগত বক্তৃতা করেন বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির সচিব মো. নওসাদ হোসেন।

সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ এমপি বলেছেন, করোনা ভাইরাসজনিত মহামারিতে আজ সারাবিশ্ব আক্রান্ত। বাংলাদেশও এর বাইরে নয়। করোনার বিরুদ্ধে এ লড়াইয়ে শামিল হয়েছেন সারা বিশ্বের ডাক্তার, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী, প্রশাসনের কর্মকর্তা, পুলিশ, সেনাসদস্য-সহ সম্মুখসারির বিভিন্ন যোদ্ধা। কিন্তু বাংলাদেশ এক্ষেত্রে ব্যতিক্রম যেখানে ডাক্তার, নার্স, সরকারি কর্মকর্তা, পুলিশ, সেনাসদস্যদের পাশাপাশি লড়াই করে যাচ্ছেন শিল্পী ও সংস্কৃতিকর্মীরা। সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পৃষ্ঠপোষকতায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির উদ্যোগে শিশু-কিশোর, যুবক, প্রবীণ ও বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুসহ প্রায় সব মাধ্যমের শিল্পীরা করোনাকালে শিল্প-সংস্কৃতি নিয়ে শামিল হয়েছেন যা সারাদেশের মানুষের মধ্যে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে। ‘করোনার বিরুদ্ধে শিল্প’ সারাবিশ্বে বাংলাদেশের তেমনই একটি ব্যতিক্রমী উদ্যোগ যা করোনাকালীন সারাদেশের মানুষের মনোবল সুদৃঢ় রাখতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে।

প্রতিমন্ত্রী রাজধানীর বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা মিলনায়তনে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পৃষ্ঠপোষকতায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি আয়োজিত মাসব্যাপী (২৭ অক্টোবর-২৬ নভেম্বর ২০২০) ‘আর্ট অ্যাগেইনস্ট করোনা’ তথা ‘করোনার বিরুদ্ধে শিল্প’ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন পররাষ্ট্র মন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন এমপি।

কে এম খালিদ বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার দক্ষ, বলিষ্ঠ, দূরদর্শী ও সময়োপযোগী নেতৃত্বে করোনাকালে বাংলাদেশের অর্থনীতির চাকা যেমন সচল রয়েছে, একইসঙ্গে বাংলাদেশে করোনায় মৃত্যুহার পৃথিবীর মধ্যে অন্যতম সর্বনিম্ন। সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী বলেন, আগামী বছরের ফেব্রুয়ারির মধ্যে আমরা করোনার একটি কার্যকর ভ্যাকসিন হাতে পাবো বলে আশা করি। পররাষ্ট্র ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এ ব্যাপারে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছে।

Previous articleবুটিক ব্যবসায় নামলেন পুষ্পিতা পপি
Next articleশিশু থিয়েটারকর্মীকে ধর্ষণের অভিযোগে দুই থিয়েটার প্রধান গ্রেফতার

Leave a Reply