বাঙালী হিন্দুদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। সেনিটাইজার, মুখে মুস্ক ও ছয় ফুটের দুরত্ববিধি, রাতে প্যান্ডেলে প্রতিমা দেখার নানা বিধি নিষেধ, বুকে করোনা সংক্রমণের ভয় নিয়ে এবার শারদীয় দুর্গাপূজা উদযাপন করতে হবে। মহামারি করোনার কারণে এবার উৎসবে থাকছে ভিন্নতা। বর্ণিল আলোকসজ্জা, মেলা কিংবা আরোহী প্রতিযোগিতা এমন নানা আয়োজনে প্রতি বছর পালিত হয় দুর্গাপূজা। দল বেধে বিভিন্ন মন্দিরে মন্দিরে পূজা দেখতে যাওয়ার মাঝে আর্থিক তৃপ্তি খুঁজেন বাঙালী হিন্দুরা। তবে করোনার প্রকোপে কিছুটা রং হারাচ্ছে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজা। মহামারি প্রকোপ ঠেকাতে এবার দুর্গাপূজা উদযাপিত হচ্ছে শুধু ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে। প্রতি বছর শোবিজ তারকাদের পূজা ঘিরে নানা আয়োজন থাকলেও অধিকাংশ তারকার এবার ঘরবন্দি কাটবে দুর্গাপূজা। তারকাদের পূজা ভাবনা নিয়ে জমজমাট পাঠকদের জন্য এ আয়োজন।

মা ছাড়া প্রথম পূজা: অপু বিশ্বাস

প্রতি বছর দুর্গাপূজা আসলে চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস মা শেফালী বেগমকে নিয়ে ভিন্ন রকমের আয়োজন করতেন। তবে এবার আর নেই কোন আয়োজন। রংহীন  হবে পূজার আনন্দ। এমনিতে করোনা ভাইরাস আতঙ্ক তাছাড়া কয়েক দিন আগে মা হারিয়েছেন অপু। তাই মা বিহীন প্রথম পূজা পালন করবেন তিনি। বলেন, ‘কিছু দিন আগে মাকে হারিয়ে অভিভাবকহীন হয়ে পড়ি। মনের আনন্দ সব মাটি হয়ে গেছে। নতুন ছবির প্রস্তুতি নিচ্ছি। আগামী মাসেই সিলেটে বন্ধন বিশ্বাস পরিচালিত সরকারি অনুদানের ‘ছায়াবৃক্ষ’ ছবির শূটিং শুরু হবে।’

পূজার খাবারের প্রতি দুর্বলতা অনেক: মৌটুসী বিশ্বাস

জনপ্রিয় অভিনেত্রী মৌটুসী বিশ্বাসের এবারের দুর্গাপূর্জা ঘিরে কোন আয়োজন নেই। জানান, ‘বড় পরিবারে বসবাস করি তাই নিজের জন্য না হোক অত্যন্ত পরিবার নিয়ে ভাবতে হয়। সবার কথা ভেবে এবার আর পূজা নিয়ে পরিকল্পনা নেই। টিভি দেখেই দিনটি কেটে যাবে। বেঁচে থাকলে আগামী বছর মজা করে পূজা পালন করব।’

পূজার আনন্দ মিস করব: মীম

চিত্রনায়িক বিদ্যা সিনহা সাহা মীম প্রতি বছর ঢাকার বাইরে পূজা পালন করলেও এবারের ঢাকাতেই ঘরবন্দি কাটবে শারদীয় দুর্গাপূজা। প্রসঙ্গে বলেন, ‘এ বছরের সকল আনন্দ মাটি করে দিয়েছে অচেনা করোনা ভাইরাস। বিনোদন দুনিয়া থেকে জনজীবনে নেমে এসেছে অস্থিরতা। কেউ ভালো নেই। প্রতি বছর বর্ণিল আয়োজনে পূজা পালন করা হয় তবে এবার ঘরবন্দি কাটছে শারদীয় দুর্গাপূজা। পূজার আনন্দ খুব মিস করব। হয়তো আশে পাশের মন্দিরে বের হবো তবে আগের মতো স্বাধীনতা থাকবে না। সাবধানতা অবলম্বন করেই বের হতে হবে। পূজার সেলফি, আনন্দ উল্লাস থেকে বঞ্চিত হতে হবে ভেবে খুব খারাপ লাগছে। বেঁচে থাকলে আগামীতে আনন্দ করা যাবে। এখন সবাই ভালো থাকার চেষ্টা করছেন। করোনাকালে ভালো থাকুক পৃথিবীর সকল মানুষ।’

বাপ্পীর অনুরোধ

চিত্রনায়ক বাপ্পী চৌধুরী প্রতিবছর পরিবার-পরিজন নিয়ে পূজায় হলে গিয়ে সিনেমা দেখেন। তবে করোনার কারণে এবার আর হলে যাওয়া হচ্ছে না তার। তাছাড়া নতুন সিনেমার শূটিং নিয়ে ব্যস্ত সময় যাচ্ছে। প্রতি বছর পূজার সময় প্রতিটি অনুষ্ঠানে প্রতিদিন নতুন নতুন পাঞ্জাবী পড়েন। পুজার কয়েক দিন বন্ধুবান্ধব এবং পরিবারের সাথে বিভিন্ন পাড়ায় ভ্রমণ বাপ্পীর জন্য বিশেষ ছিল। এবার পূজা উপলক্ষে নিজ বাড়ি নারায়ণগঞ্জ গেলেও পরিবারের সকলের কথা চিন্তা করে ঘরবন্দি থাকবেন তিনি। প্রসঙ্গে বলেন, ‘এ বছর দুর্গাপুজা একেবারে আলাদা ভাবে উদযাপন হবে। পরিবারের সকলের কথা চিন্তা করে স্বাস্থবিধি মেনে পূজা পালন করব। সবাইকে সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মানার অনুরোধ থাকবে।’

Previous articleনাছোরবান্দা আরফিন জুনায়েদ 
Next articleশারদীয় দুর্গা পুজায় বৈশাখী টিভির আয়োজন

Leave a Reply