অভিনেত্রী শম্পা নিজাম নিয়মিত ছোটপর্দায় কাজ করছেন তিনি। এ পর্যন্ত ১৫০ টিরও অধিক নাটকে অভিনয় করেছেন। শুরুটা ২০০৫ সালে গোলাম সোহরাব দোদুল পরিচালিত ‘কৃষ্ণগহ্বর’ নাটক দিয়ে। এরপর আর পিছু ফিরে তাকাতে হয়নি সমানতালে কাজ করছেন তিনি। ছোটপর্দায় একাধারে তিনি মা ও ভাবীর চরিত্রে অভিনয় করছেন। ছোটপর্দায় কাজ করলেও বড় পর্দায় সেভাবে কাজ করা হয়ে ওঠেনি এ অভিনেত্রীর। টিভির গন্ডি পেরিয়ে শম্পা এবার কাজ করলেন বড়পর্দায়। এরইমধ্যে তিনটি চলচ্চিত্রের কাজ শেষ করেছেন তিনি।

প্রথম চলচ্চিত্র রায়হান জুয়েল এর ‘অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন’। এরপর কাজ করেন অনন্য মামুন পরিচালিত ‘নবাব এলএলবি’ ও দ্বীন ইসলাম এর ‘চরিত্র’ চলচ্চিত্রে। তিনটি চলচ্চিত্রেই তিনি মায়ের চরিত্রে অভিনয় করেছেন। ছবি তিনটি নিয়ে আশাবাদী। শম্পার স্বপ্ন ছিল ছোটপর্দার পাশাপাশি বড়পর্দায় কাজ করবেন। অবশেষে তার স্বপ্ন পূরণ হয়েছে। ভালো চলচ্চিত্র ও চরিত্র পেলে নিয়মিত চলচ্চিত্রে কাজ করতে চান তিনি। শম্প বলেন, ‘ছোটবেলা থেকে অভিনয় ভালোবাসি যতদিন আছি অভিনয় করে যেতে চাই। সামনে বেশ কয়েকটি নাটকের কাজ শুরু করব। এবং নতুন ছবির ব্যাপারে কথা চলছে। ছোটপর্দার পাশাপাশি বড়পর্দায় অভিনয় করতে চাই।’

শম্পা নিজাম অভিনীত উল্লেখযোগ্য নাটকগুলো হলো- ‘বিনি সুতার মালা’, ‘সিদ্ধান্ত’, ‘অথৈ নীলিমায়’, ‘কাটা রফিক’, ‘মামুন মামা’, ‘মজনুর বাড়ি হট্টগোল’, ‘গরীবের কুরবানী’, ‘হাজারী জামাল’, ‘কানা বাবা’, ‘যত দোষ নন্দ ঘোষ’, ‘সাতকাহন’, ‘পাল্টা হাওয়া’, ‘তিন পাগলের হল মেলা’, ‘বিউটি বোট’, ‘মেঘ জমেছে মনে’, ‘প্রথম কবিতা’, ‘বোকা জামাই’ ইত্যাদি।

Previous articleরণবীরকে বিয়ে করতে চান সারা, সরাসরি জানালেন বাবাকে!
Next articleশিরিন শিলার সঙ্গে আংটি বদল করলেন জাহিদ হাসান

Leave a Reply