Connect with us

Jamjamat

দর্শক খরায় ‘সাহসী হিরো আলম’

চলচ্চিত্র

দর্শক খরায় ‘সাহসী হিরো আলম’

দীর্ঘ সাত মাস পর অবশেষে শুক্রবার (১৬ অক্টোবর) থেকে খুলেছে দেশের সিনেমা হল। ৪০টি হলে প্রদর্শিত হচ্ছে ‘সাহসী হিরো আলম’। যদিও অধিকাংশ হলে দর্শক উপস্থিতি কম লক্ষ্য করা গেছে। দর্শকের ভাষ্য মতে- যেহেতু দীর্ঘ দিন পর সিনেমা হল ‍খুলেছে সে ক্ষেত্রে ভালো মানের একটা ছবি দিয়ে হল খোলা উচিত ছিল। ভালো ছবি না থাকায় দর্শক খরায় ‘সাহসী হিরো আলম’।

‘গীত’ এবং ‘সংগীত’ হলের ম্যানেজার সবুজ প্রসঙ্গে বলেন, ‘সিনেমা মুক্তি পাচ্ছে এই খবর অনেকেই জানেন না। তাই দর্শক উপস্থিতি কম। যে কারণে সকালের শো আমরা বন্ধ রেখেছি। বিকালের শোতে ছিল ১৭ জন এবং রাতের শোতে দুই হল মিলিয়ে দর্শক হয়েছে ৪০ জন।

‘চিত্রামহল’ সিনেমার সুপার ভাইজার সোহেল বলেন, ‘দর্শক ভালো সিনেমা দেখতে চায়। এই সিনেমাটিও সাফল্য পাবে এমন প্রত্যাশা রয়েছে। তবে গতকাল দর্শক বেশি ছিল না। হিরো আলম নতুন নায়ক। আমাদের দর্শকদের চাহিদা এখন যারা সুপারস্টার আছেন তাদের সিনেমা। হিরো আলমের সিনেমায় দর্শক রেসপন্স কেমন তা এ সপ্তাহেই জানা যাবে।’

এদিকে হিরো আলম জানান, তার সিনেমা চিত্রামহল, জিঞ্জিরার নিউ গুলশান ও নারায়ণগঞ্জে ভালো ব্যবসা করছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে দুটি শো ছিল দর্শকপূর্ণ। এ ছাড়া ঢাকার বাইরে থেকে তার কাছে যেসব হল থেকে ফোন এসেছে, সেগুলোতেও দর্শক সমাগম ছিল উল্লেখ করার মতো।

আলম রাজধানীর বিভিন্ন প্রেক্ষাগৃহ গতকাল ঘুরে দেখেছেন। এ সময় তাকে দেখতে, তার সঙ্গে সেলফি তুলতে অসংখ্য মানুষ ভিড় করেছেন। কিন্তু তার সিনেমা দেখতে মানুষ সেভাবে আগ্রহী হয়নি বলেই হল মালিক সূত্রে জানা গেছে। যদিও অনেকেই বলছেন, প্রথম দিন ফাঁকা গেলেও করোনার এই সময়ে ধীরে ধীরে হলে দর্শক বাড়বে। এ জন্য অপেক্ষা করতে হবে।

হিরো আলম প্রযোজিত, অভিনীত সিনেমা ‘সাহসী হিরো আলম’। করোনার কারণে যেখানে দেশের স্বনামধন্য প্রযোজকরা এ সময় সিনেমা মুক্তি দিতে সাহস পাননি, সেখানে হিরো আলম এগিয়ে এসেছেন। তার সিনেমা দিয়েই দীর্ঘ সাত মাস পর খুললো হলগুলো। যদিও বড় অনেক হল এখনও বন্ধ রয়েছে। ভালো সিনেমা পাওয়া না গেলে তারা হল খুলবেন না বলে জানিয়েছেন।

শুক্রবার থেকে খুললো সারা দেশের সিনেমা হল। তবে নতুন ভালো মানের চলচ্চিত্র না থাকায় বন্ধই থাকছে ঢাকার ঐতিহ্যবাহী প্রেক্ষাগৃহ মধুমিতা। হলের কর্ণধার ইফতেখার উদ্দিন নওশাদ মনে করেন, যেনতেন ছবি নয়, শাকিব খানের সিনেমা দিয়ে হল খোলা উচিত ছিল। বস্তাপচা ছবি মুক্তি দিলে দর্শক সংখ্যা বাড়বে না বরং কমবে। এতে করে যে সিনেমা হল খোলা রয়েছে তাও অচিরে বন্ধ হয়ে যাবে। তিনি মনে করেন, ভালো চলচ্চিত্র মুক্তি পেলে সিনেমা হলের সিট ভাঙ্গা থাকলেও দর্শক হলে এসে সিনেমা দেখবে। দর্শক ভালো মানের সিনেমা চায়। তাদের চাহিদা অনুযায়ী চলচ্চিত্র দিতে হবে।

সিনেমা হল খোলার জন্য প্রস্তুত থাকলেও ছবি সঙ্কটে প্রেক্ষাগৃহগুলো। ‘সাহসী হিরো আলম’-এ আরো অভিনয় করেছেন সাকিরা মৌ, রাবিনা বৃষ্টি ও নুসরাত জাহান, কালা আজিজ প্রমুখ। সিনেমাটি পরিচালনা করছেন এ আর মুকুল নেতৃবাদি। গল্প লিখেছেন পিজি মোস্তফা। চিত্রনাট্য করেছেন দেলোয়ার জাহান ঝন্টু।

Click to comment

Leave a Reply

More in চলচ্চিত্র

To Top