ছবি: এম এ এইচ সাগর

এ সময়ের ছোটপর্দার ব্যস্ত অভিনেত্রী সারিকা সাবা। একটি নাটক জীবন বদলে দিতে পারে তার প্রমাণ সারিকা নিজে। মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজ পরিচালিত ‘ফ্যামিলি ক্রাইসিস’ নাটকে ‘ঝুমুর’ চরিত্রে সারিকার অনবদ্য অভিনয় প্রশংসিত হয়। তারপর আর পিছু ফিরে তাকাতে হয়নি। প্রতিদিনই অংশ নিচ্ছেন শুটিংয়ে। ব্যস্ততা দেয় না অবসর। তবে বিরক্ত নন তিনি। কারণ একজন শিল্পীর জীবনে বিরক্ত বলতে কিছু নেই। দর্শকের ভালোবাসার জন্য আজ সারিকা থেকে ‘ঝুমুর’ নামে বেশি পরিচিত। সেই দর্শকের জন্য সব সময় পর্দায় থাকতে চান তিনি। কিছু দিন আগেও অভিনয় পেশা না থাকলেও এখন অভিনয়কে পেশা হিসেবে বেছে নিয়েছেন তিনি। সারিকা এরইমধ্যে শেষ করেছেন ‘তোমাকে দিয়ে কিছু হবে না’ শিরোনামের একটি একক নাটক। এটি পরিচালনা করেছেন শাহরিয়ার রহমান। বর্তমানে পারিবারিক গল্পের নাটক কম নির্মিত হচ্ছে। তবে এটি পরিবারিক গল্পের নাটক। গল্পে অনেক বার্তা আছে। সবাইকে অনুরোধ করব পারিবারিক গল্পের নাটক নির্মাণ করার। সিদ্ধান্ত নিয়েছি গল্পে বাবা মায়ের চরিত্র না থাকলে সে নাটকে আর অভিনয় করব না। -বললেন সারিকা।

সারিকা মেজর কোর্স শেষ করে নাম লিখিয়েছেন অভিনয়ে। শুরুতে পরিবারের সব ধরনের সহযোগিতা পেয়েছেন। ছোটবেলার স্বপ্ন ছিল অভিনয় করবেন। স্বপ্ন পূরণের জন্য অভিনয় আসা। এরপরের গল্প অজানা নয়। অভিনয়ে বরাবরই সিনিয়র শিল্পীদের সহযোগিতা পাচ্ছেন। জুনিয়র বলে কেউ অবহেলা করেনি। ছোটপর্দার সবার স্বপ্ন থাকে বড়পর্দায় অভিনয় করার। আপনার স্বপ্নটা কি? আমিও স্বপ্ন দেখি চলচ্চিত্রে অভিনয়ের। ভালো গল্প ও চরিত্র পেলে চলচ্চিত্রে দেখা যাবে। চলচ্চিত্রর জন্য প্রস্তুত আছি। সারিকার পছন্দের অভিনেত্রী শাবানা ও কবরী। তাদের সিনেমা দেখে বেড়ে ওঠা। নন্দিত অভিনেত্রী জয়া আহসানের ‘কন্ঠ’ ছবিতে মুগ্ধ সারিকা। তার ভাষায় চমৎকার অভিনয় করেছের দুই বাংলার জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান।

Previous articleআজ ফিল্ম মিউজিয়ামের উদ্ভোধন
Next articleখুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে চলছে রাজধানীর শুটিং হাউজগুলো

Leave a Reply