বাংলাদেশ চলচ্চিত্রের সোনালী সময়ের স্মৃতিকে সমৃদ্ধ এবং যুগোপযোগী করার লক্ষ্যে কাজ করছে বাংলাদেশ ফিল্ম আর্কাইভ। এ লক্ষ্য পূরণে আর্কাইভ একটি সমৃদ্ধ সংগ্রাহশালা প্রতিষ্ঠা করেছে যার নামকরণ করা হয়েছে ‘ফিল্ম মিউজিয়াম’। মিউজিয়ামটি আজ আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করবে। এ ব্যাপারে ফিল্ম আর্কাইভের মহাপরিচালক নিজামুল কবীর জানিয়েছেন, আজ বুধবার বেলা ১১টায় মাননীয় তথ্যসচিব কামরুন নাহার ফিল্ম মিউজিয়ামটি উদ্বোধন করবেন। কারোনার প্রকোপের কারণে তেমন কাউকে আমন্ত্রণ জানানো যাচ্ছে না।

ইতিমধ্যে মিউজিয়ামটি সমৃদ্ধির লক্ষ্যে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশন সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছে জানিয়ে আর্কাইভের সহকারী পরিচালক মনিরুজ্জামান বলেন, স্বাধীনতার আগ থেকে অর্থাৎ এফডিসি প্রতিষ্ঠালগ্নে যেসব ইকুইপমেন্ট ছিলো সেগুলো এফডিসি কর্তৃপক্ষ আর্কাইভকে হস্তান্তর করেছে। এরমধ্যে, প্রথম কেনা ক্যামেরা, এডিটিং প্যানেল, সাউন্ড সিস্টেম, কালার মেশিনও রয়েছে। এর বাইরে ব্যক্তি পর্যায়ে অনেক প্রযোজক আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করে তাদের সংগ্রহে থাকা অনেক ইকুইপমেন্ট হস্তান্তর করেছেন। এছাড়া অনেকে যোগাযোগ করছেন। মোটামুটি বলা যায় সীমাবদ্ধের মধ্যেও বেশ ভালো একটা সংগ্রাহশালা নিয়েই ফিল্ম মিউজিয়ামটি যাত্রা করতে যাচ্ছে।

মনিরুজ্জামান বলেন, ফিল্ম মিউজিয়াম সমৃদ্ধ করার লক্ষে আর্কাইভাল ভ্যালু সমৃদ্ধ চলচ্চিত্র সামগ্রী ও যন্ত্রপাতি সংগ্রহের কাজ অনেকটা যেমন এগিয়েছে, তেমনি ধারা অব্যাহত থাকবে। কারো ব্যাক্তিগত সংগ্রহে এ রকম কোনো নিদর্শন থাকলে বাংলাদেশ ফিল্ম আর্কাইভে প্রদান করার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি। এদিকে ফিল্ম আর্কাইভের উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রযোজক-পরিচালক সমিতি, শিল্পী সমিতি। এক প্রতিক্রিয়ায় তারা জানিয়েছেন- ফিল্ম মিউজিয়ামটি পুরোপুরি চালু করতে পারলে ভবিষ্যত ইতিহাস সন্ধিৎসুরা এখান থেকে সুবিধা গ্রহণ করতে পারবেন। আর এটিকে কেন্দ্র করে আমাদের চলচ্চিত্রের অতীত অর্জনও বিশ্ববাসী জানতে পারবেন।

Previous articleদোয়া চাইলেন আন্না
Next articleসারিকার স্বপ্ন পূরণ

Leave a Reply