শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে মুক্তি প্রতীক্ষিত ‘বিজয়া’ নামের একটি নাটকের মাধ্যমে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানার অভিযোগ উঠেছে। তাই অভিনেত্রী নুসরাত ইমরোজ তিশাসহ চারজনকে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছেন লিটন কৃষ্ণদাসের পক্ষে আইনজীবী সুমন কুমার রায়। এদিকে এই নোটিশের প্রেক্ষিতে নাটকটির প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ক্রাউন এন্টারটেইনমেন্ট পক্ষ থেকে ব্যাখ্যা দেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার (১৩ অক্টোবর) প্রতিষ্ঠানটির ডেপুটি সিইও মো. তাজুল ইসলামের স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ ব্যাখ্যা দেওয়া হয়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ক্রাউন এন্টারটেইনমেন্টের প্রযোজনায় শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে নির্মিত ‘বিজয়া’ টেলিভিশন কাহিনীচিত্রকে কেন্দ্র করে কিছু ‘দুর্বৃত্ত’ গত কিছুদিন ধরে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে (সদানন্দ দাস মুন্সি, দেবু কর্মকার, অরূপ বণিকসহ আরো অনেকই) এই গল্পের লেখক সালাহ্ উদ্দিন শোয়েব চৌধুরী, নির্মাতা আবু হায়াত মাহমুদ, জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারজয়ী অভিনেত্রী নুসরাত ইমরোজ তিশাসহ সংশ্লিষ্টদের হত্যার হুমকিসহ অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ দিয়ে আসছে।

এরই ধারাবাহিকতায় জনৈক লিটন কৃষ্ণ দাস তার নিয়োজিত আইনজীবী সুমন কুমার রায়ের মাধ্যমে সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট অভিযোগ তুলে একটি উকিল নোটিশ পাঠিয়েছেন। যা ইতিমধ্যে কয়েকটি গণমাধ্যমের অনলাইন ভার্সনে প্রকাশিত হয়েছে। ওই উকিল নোটিশে খুবই পরিকল্পিতভাবে দাবী করা হয়েছে তারা নাকি এই নাটকের ট্রায়াল ভার্সন দেখেছেন, যা খুবই হাস্যকর। এখানে আমরা দ্ব্যর্থহীন ভাষায় বলতে চাই, নোটিশে উল্লেখিত দাবিসমূহ সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট। নাটকের টিজার বা এ সংক্রান্ত কোনো তথ্যই আমরা প্রকাশ করিনি। করলে প্রচারের স্বার্থেই সেগুলো গণমাধ্যম কর্মীরা পেয়ে যেতেন। বর্তমানে নাটকটির পোস্ট প্রোডাকশনের কাজ চলছে, যা সম্পন্ন হবার পরই কেবল টিজার বা গল্প সংক্ষেপ প্রকাশ হবে এবং যথারীতি গণমাধ্যমকর্মী ভাইদের হাতেও পৌঁছে যাবে।

এক্ষেত্রে আমাদের বিশ্বাস, একটি অশুভ চক্র দেশের বিদ্যমান সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টের অপউদ্দেশ্যে এই নাটকটি সম্পর্কে সম্পূর্ণ মিথ্যে অপপ্রচার চালানোর পাশাপাশি এই নাটকের লেখক, নির্মাতাসহ সংশ্লিষ্টদের হত্যার হুমকি দিয়ে এক ধরনের নৈরাজ্য সৃষ্টির হীন চেষ্টায় লিপ্ত রয়েছেন। এতে সংশ্লিষ্টগণ নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন, অপরদিকে ব্যক্তির সুনাম ক্ষুণ্ণসহ সাম্প্রদায়িক চেতনা বিনষ্ট হচ্ছে বলে আমরা মনে করছি।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, প্রত্যাশা করছি ক্রাউন এন্টারটেইনমেন্ট প্রতিষ্ঠানটি তার অভীষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছাতে গণমাধ্যমের সহযোগিতা পাওয়ার, পাশাপাশি অশুভ শক্তির বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজেরও আহ্বান জানাচ্ছে। ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করলে সব ধরনের ভুল বোঝাবুঝিরও অবসান হবে বলে প্রতিষ্ঠানটি বিশ্বাস করে। আশা করছি আমাদের এই বক্তব্যেও মধ্য দিয়ে সমস্ত ভুল বুঝাবুঝির অবসান ঘটবে।

Previous articleঝাড়খন্ডের উৎসবে সেরা ‘জলঘড়ি’
Next articleপ্রথমবার দেশি ওয়েব সিরিজে শিমুল খান

Leave a Reply