সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সংগীতশিল্পী সাজিয়া সুলতানা পুতুলকে ধর্ষণ করার হুমকি দেন। ওই তরুণের মন্তব্যের স্ক্রিনশট সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করে পুতুল আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। কিন্তু কোনো রকম আইনি পদক্ষেপ নেওয়ার আগেই ওই তরুণ ক্ষমা চেয়ে একটি ভিডিও বার্তা প্রদান করেন। ফলে ক্ষমা চাওয়ায় আইনি পদক্ষেপ নেওয়া থেকে বিরত থাকার কথা জানান পুতুল। কিন্তু পরবর্তীতে ক্ষমা চাওয়ার ভিডিওটি সরিয়ে ফেলে ওই তরুণ। যা তার একটি চালাকি বলে মনে করছেন পুতুল। সেজন্য তিনি পুনরায় আইনি পথে হাঁটছেন।

পুতুল মেয়েদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘মেয়েদের বলছি, সরাসরি ধর্ষণ কিংবা ধর্ষণের ইঙ্গিত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পাওয়া মাত্র রুখে দাঁড়াও। আইন কিন্তু নারীর পক্ষে। ভয় নয়, আওয়াজ তোলো। তোমার দৃঢ়চেতা মনোভাবই কিন্তু ধর্ষকের ভিত্তি নাড়িয়ে দেবে। ধর্ষক এবং ভবিষ্যৎ-ধর্ষকদের বলছি, খুব সাবধান! সময় পাল্টাচ্ছে! ‘ধর্ষণ’ শব্দটা উচ্চারণের আগেও নিজের এবং পরিবারের কথা ভেবে নিস। তোর/তোদের জীবন নরকে পরিণত হয়ে যাবে কিন্তু! মুখ লুকানোর জায়গা পাবি না। শিশ্নকে বেঁধে রাখ। না পারলে কেটে ফেলে দে!’ কিন্তু ছেলেটি যখন ভিডিওটি সরিয়ে ফেলেছে তখন পুতুল লেখেন, ‘ধর্ষণ করতে চাওয়া ছেলেটা ক্ষমা চেয়ে পোস্ট করা ভিডিও বার্তাটি সরিয়ে ফেলেছে। ক্ষমা করার সিদ্ধান্তটা ভুল ছিলো মনে হচ্ছে। এবার মামলার বিষয়টি পুনর্বিবেচনা করবো!’

Previous articleনাটক ‘বিজয়া’ এবং প্রাসঙ্গিক কিছু কথা
Next articleবউ-শ্বাশুড়ির দ্বন্ধ নিয়ে সিনেমা ‘পাপনাম’

Leave a Reply