অভিনেতা হারুন রশিদ কাজ করছেন চলচ্চিত্র, নাটক ও বিজ্ঞাপনে। ‘মুসাফির’ চলচ্চিত্রে ‘বান্টি ভাই’ চরিত্রে অভিনয় করে জনপ্রিয়তা অর্জন করেন। হারুন রশিদ এখন নিজের নাম ছাঁপিয়ে ‘বান্টি ভাই’ নামেই অধিক পরিচিত। তিনি চলচ্চিত্রে নিজেকে এখন পুরোদম্ভর অভিনেতা হিসেবে দেখতে চান। ‘মুসাফির’ তার প্রথম অভিনীত চলচ্চিত্র নয়। এর আগে তিনি নাটক, চলচ্চিত্র এবং বিজ্ঞাপনে কাজ করেছেন। পেশাগত জীবনে তিনি ফাহিম মিউজিকে মিডিয়া ম্যানেজার হিসেবে কাজ করছেন। হারুন রশিদ অভিনয়ে আসেন ফাহিম মিউজিকে কাজের সূত্রেই। সম্প্রতি এ অভিনেতা একটি একক নাটকে কাজ করেছেন। শিরোনাম ‘তোমাকে দিয়ে কিছু হবে না’। পরিচালনা করেছেন শাহরিয়ার রহমান। নাটকে সারিকা সাবার বাবার চরিত্রে দেখা যাবে তাকে। এছাড়াও একটি ওয়েব সিরিজে কাজ করেছেন। নাম ‘মানি মেশিন’। দীর্ঘ দিন পর ভালো একটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন বলে জানান।

ফাহিম মিউজিকে কাজ শুরু করার পর তিনি অভিনয়ের সুযোগ পান। নির্মাতা ইশতিয়াক রুমেলের প্রস্তাবে ‘হতেও পারে নাও পারে’ শিরোনামের নাটকে তিনি সর্বপ্রথম অভিনয় করেন। এ পর্যন্ত তিনি দশটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। ভালো লাগে ‘ফানি’ চরিত্রে অভিনয় করতে। টিভি নাটকে অভিনয় করেন পেটের খিদে মেটানোর জন্য আর চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন মনের খোরাক মেটানোর জন্য। বহুমাত্রিক চরিত্রে অভিনয় করতে চান হারুন।

২০১১ সালে প্রথম ক্যামেরার সামনে দাঁড়ান হারুন। অতীত হয়ে যাওয়া সময়গুলো নিয়ে হারুন বলেন, টিভি নাটকে চরিত্রাভিনেতা হিসেবে কাজ করছি। কিন্তু এখন টেলিভিশনে খরা যাচ্ছে। এখন টিভিতে যে কাজগুলো হচ্ছে, সেখানে বেশির ভাগ সময় দেখা যায়, দুটোই ক্যারেকটার। অন্য কোনো ক্যারেকটার রাখে না। যার কারণে চরিত্রাভিনেতাদের ক্যারেকটারও ডেভলপ হয় না। ক্যারেকটার আর্টিস্ট যারা আছেন, তাদের টাকাটা দিতে নির্মাতাদের বেশ কষ্ট হয়। বিষয়টা অনেকটাই এমন, ফ্রিতে করা গেলে ভালো। অনেকেই ভুক্তভোগী।’ হারুনের এখন ধ্যান-জ্ঞান শুধু চলচ্চিত্রে অভিনয়। তিনি বলেন, ফিল্মের প্রতি আকর্ষণটা অনেকটাই বেশি। টিভি নাটকে কাজ করি কিছুটা পেটের দায়ে আর স্ক্রিনে থাকার জন্য।

Previous articleআট সহকারী নিয়ে শুটিংয়ে মিষ্টি জান্নাত, বিব্রত সবাই
Next articleসমাজে নির্যাতিত নারীরা কোণঠাসা: শারমিন আঁখি

Leave a Reply