ব্রিটিশবিরোধী স্বাধীনতা সংগ্রামে প্রাণদানকারী উপমহাদেশের প্রথম নারী বিপ্লবী প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদার স্মরণে ‘ভালোবাসা প্রীতিলতা’ নামে একটি সিনেমা নির্মিত হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ সরকারের অনুদানে। গত বৃহস্পতিবার বীরকন্যা প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদারের ৮৯তম আত্মাহুতি দিবস উপলক্ষে চলচ্চিত্রটির মহরত অনুষ্ঠিত হয়। সেখানেই পরিচালক প্রদীপ ঘোষ অভিনয়শিল্পীদের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেন।

১৯১১ সালের ৫ মে চট্টগ্রামের পটিয়ার ধলঘাট গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন প্রীতিলতা। বিপ্লবী নেতা মাষ্টারদা সূর্য সেনের নেতৃত্বে ব্রিটিশ বিরোধী সশস্ত্র আন্দোলনে সক্রিয়ভাবে অংশ নেন প্রীতিলতা। ১৯৩২ সালে চট্টগ্রামের পাহাড়তলী ইউরোপিয়ান ক্লাব দখলের সময় তিনি ১৫ জনের একটি বিপ্লবী দল পরিচালনা করেন। এই ক্লাবটিতে একটি সাইনবোর্ড লাগানো ছিলো যাতে লেখা ছিলো ‘কুকুর এবং ভারতীয়দের প্রবেশ নিষেধ’। প্রীতিলতার দলটি ক্লাবটি আক্রমণ করে এবং পরবর্তীতে পুলিশ তাদেরকে আটক করে। পুলিশের হাতে আটক এড়াতে প্রীতিলতা পটাশিয়াম সায়ানাইড খেয়ে ২১ বছর বয়সে আত্মহত্যা করেন।

জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেনের লেখা প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদারের জীবনী নির্ভর উপন্যাস ‘ভালোবাসা প্রীতিলতা’ অবলম্বনে নির্মিত হচ্ছে এই পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র। সিনেমায় নাম ভূমিকায় অভিনয় করবেন বাংলাদেশের অন্যতম সেরা জনপ্রিয় এবং আলোচিত অভিনেত্রী তিশা। এছাড়া বিপ্লবী রামকৃষ্ণ বিশ্বাস চরিত্রে থাকছেন মনোজ প্রামাণিক। সরকারি অনুদানের চলচ্চিত্রটি প্রযোজনা ও পরিচালনা করছেন প্রদীপ ঘোষ।

তিশা জানান, প্রায় দেড় মাস আগেই প্রীতিলতা চরিত্রে অভিনয়ের প্রস্তাব পান তিনি। এমন একটি চরিত্রে অভিনয়ের প্রস্তাব পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই ‘হ্যাঁ’ বলতে খুব একটা সময় নেননি এই অভিনেত্রী। এরপর চিত্রনাট্য পড়তে সময় নেন পরিচালকের কাছ থেকে। চিত্রনাট্য পড়ে এতোটাই মুগ্ধ হন তিনি যে পরিচালককে তার সম্মতি জানিয়ে দেন।

তিশা আরো বলেন, ‘কিছু কিছু চরিত্র থাকে, যেগুলো অভিনয়শিল্পীর জন্য ভীষণ আগ্রহের। এমন চরিত্রের প্রস্তাব পেলে যে কেউ চোখ বন্ধ করে ‘হ্যাঁ’ বলে দেবেন, প্রীতিলতা তেমনি একটি চরিত্র। এ ধরনের চরিত্রে কাজের সুযোগ জীবনে একবারই আসে। এখন চেষ্টা করব, চরিত্রটি হয়ে উঠতে সব রকমের প্রস্তুতি নিতে। তিশা আরও জানান, এ ছবির শুটিংয়ের ফাঁকে দু-একটি নাটকের কাজ করবেন। তা ছাড়া একটানা ছবির কাজ শেষ করতে চান তিনি।

অভিনয়ের সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করার পর থেকে ‘ভালোবাসা প্রীতিলতা’ উপন্যাসের লেখিকা কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেনের সঙ্গে প্রায়ই অনলাইনে কথা বলছেন তিশা। তাঁর লেখায় যেভাবে প্রীতিলতাকে তিনি তুলে ধরেছেন, চলচ্চিত্রে সেটি হয়ে ওঠার খুঁটিনাটি বিষয় জানার চেষ্টা করছেন তিশা। একজন অভিনেত্রী হিসেবে নিজের জায়গা থেকে প্রীতিলতা চরিত্রটির জন্য সর্বোচ্চ দেবার চেষ্টা করবেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রাপ্ত এই গুণী অভিনেত্রী একথা বলা যায় নিঃসন্দেহে।

আগামী মাসের শুরুতেই ঢাকায় সিনেমাটির শুটিং শুরু করার সম্ভাবনা আছে। এরপর চট্টগ্রামের বিভিন্ন লোকেশনে শুটিং হবে বলে জানিয়েছেন পরিচালক প্রদীপ ঘোষ। সিনেমায় সুরকার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন খ্যাতিমান সুরকার এবং গায়ক বাপ্পা মজুমদার।

Previous article‘মাফিয়া’ নিয়ে আশাবাদী শাহীন সুমন
Next articleঅপু বিশ্বাসের জন্য বন্ধনের অপেক্ষা

Leave a Reply