গুরুতর অসুস্থ হলে ঢাকা-১৭ আসনের সাংসদ নায়ক ফারুককে গত ৩১ আগষ্ট রাতে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এর আগে ১৮ আগস্ট তাকে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসা নিয়ে ২৬ আগস্ট বাসায় ফিরেন এই অভিনেতা। জ্বর, সর্দি-কাশিসহ করোনার উপসর্গ থাকায় ফারুকের করোনা পরীক্ষা করা হলে রেজাল্ট নেগেটিভ আসে। পাশাপাশি তার টাইফয়েড, ডেঙ্গু, ম্যালেরিয়ার নমুনাও পরীক্ষা করা হয়েছে। সব কিছুই নেগেটিভ রয়েছে। কিন্তু জ্বর না সাড়ায় দুশ্চিন্তা বাড়ছে এই অভিনেতাকে নিয়ে।

কিংবদন্তি অভিনেতা ও প্রযোজকের শারীরিক অবস্থা আশংকাজনক। চিকিৎসকরা বলছেন, ফারুকের রক্তে সংক্রমণের জটিলতা দেখা দিয়েছে। ইউনাইটেড হাসপাতালের চিকিৎসকরাও সংক্রমণের ব্যাপারে নিশ্চিত করেছিলেন ফারুকের স্ত্রীকে। সংক্রমণ থেকে খারাপ কিছু হতে পারে। সেজন্য দ্রুত তার উন্নত চিকিৎসা নিশ্চিত করতে হবে।

এ প্রসঙ্গে শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান বলেন, ‘দ্রুতই তাকে বিদেশে নিয়ে যাবার কথা ভাবছে ফারুক ভাইর পরিবার। সিঙ্গাপুরে মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালের সঙ্গে যোগাযোগও হচ্ছে। করোনার কারণে বর্তমানে বিদেশে যাতায়াতে অনেক জটিলতা আছে। এসব মোকাবিলা করে তাকে দ্রুত সিঙ্গাপুরে নেয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে।’

Previous articleওয়েব সিরিজে তানভীর
Next articleবেছে বেছে কাজ করছি: রুহী

Leave a Reply