ছোটপর্দার দর্শকপ্রিয় অভিনেত্রী এ্যানি খান। শিশুশিল্পী হিসেবে শোবিজ অঙ্গনে পা রাখেন মডেল ও উপস্থাপক এ্যানি খান। সম্প্রতি দীর্ঘ ২৩ বছরের অভিনয় ক্যারিয়ারের ইতি টানলেন এই অভিনেত্রী। একজন সাধারণ ধার্মিক মানুষ হিসেবে বাকি জীবনটা কাটানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। কিছু দিন আগে এমনটাই জানিয়েছেন এ্যানি খান।

ধর্মের কারণে অভিনয় ছেড়ে আবারও ফিরে এলেন অভিনেত্রী এ্যানি খান। এমন শিরোনামের একটি সংবাদ গণমাধ্যমে প্রকাশ হলে ভিত্তিহীন এই ভুয়া সংবাদে চটেছেন এ অভিনেত্রী। সে গণমাধ্যমে উল্লেখ করেন হাসান জাহাঙ্গীর পরিচালিত ‘চাপাবাজ’ নাটকের শুটিং করেছেন এ্যানি। এমন সংবাদের বরাত দিয়ে এ্যানি খানের সাথে যোগাযোগ করলে এ অভিনেত্রী জমজমাটকে বলেন, ‘বানোয়াট সংবাদটি দেখে রীতিমতো আমি অভাগ। কথা না বলে এমন একটি ভিত্তিহীন সংবাদ কিভাবে করেন তারা। তাছাড়া ২০১৬ সাল থেকে ‘চাপাবাজ’ নাটকের কাজ করছি না। হঠাৎ এমন বানোয়াট সংবাদ তারা কোথা থেকে পেলেন?’

মূলত এই করোনাকালীন সময়ে নামাজ, কুরআন পড়া, রোজা রাখাসহ ধর্মের প্রতি অনুরক্ত এ্যানি। এখন পর্দা করে চলেন এই অভনেত্রী। নিজের নতুন অধ্যায়ের জন্য সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন তিনি।

এ্যানি খান বলেন, ‘গত বছর থেকে মিডিয়া ছাড়ার পরিকল্পনা করছি, চলতি বছরের জানুয়ারি মাস থেকে নিজের মধ্যে সিদ্ধান্তটা বেশি করে নাড়া দিতে থাকে। মার্চের ১৯ তারিখ শেষবার শুটিং করেছি। তারপর থেকে ঘরবন্দি। পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ছি, নফল নামাজ পড়ছি, কোরআন হাদিস পড়ছি। অনেক কিছু থেকে পিছিয়ে ছিলাম শিখছি। আর মিডিয়া আমাকে টানছে না, তাই এই পেশা থেকে নিজেকে সরিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। সকল পরিচালক আমাকে এ ব্যাপারে সহযোগিতা করেছেন। প্রতিদিন মৃত্যুর খবর যে ভাবে শুনছি, এত মৃত্যুর খবর আগে শুনিনি। এরমধ্যে আমার বাবাকে হারিয়েছি, আরও অনেক কাছের মানুষ চলে যাচ্ছে। আমি একজন মুসলিম। মুসলিম হিসেবে ধর্মীয় বিষয় গুলো যতোই জানার চেষ্টা করছি ততই ধর্ম বিষয়ক জ্ঞান বাড়ছে। এতে করে অনেক কিছুতে বিধি নিষেধ চলে আসছে। দু-মিনিট পরে আমি বাঁচবো কিনা জানি না। মৃত্যুর পরে অনন্তকালের জন্য আমি কি সঞ্চয় করলাম? এসব কিছু চিন্তা ভাবনা মিলিয়ে আমি আর মিডিয়ার কাজে ফিরতে চাইছি না।’

Previous articleইতিহাস বিকৃতির অভিযোগে ঝন্টু-ইস্পাহানীকে নোটিশ
Next articleশুভ জন্মদিন সাবিনা ইয়াসমিন

Leave a Reply