মডেল-অভিনেত্রী ফারজানা রিক্তা। বিজ্ঞাপনচিত্রে কাজ করে সবার নজরে পড়েন। এ পর্যন্ত প্রায় অর্ধশত বিজ্ঞাপনচিত্রে কাজ করেছেন। নাম লেখিয়েছেন টেলিভিশন নাটকেও। এরইমধ্যে টেলিভিশন নাটক-টেলিফিল্মে কাজ করে পেয়েছেন দর্শকপ্রিয়তা। অভিষেক হয়েছে চলচ্চিত্রেও।

রিক্তা অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র ‘কার্তুজ’। সর্বশেষ মুক্তি পাওয়া চলচ্চিত্র ‘আলতাবানু’। গেল ঈদে ফারজানা রিক্তা অভিনীত প্রায় ১৫টির মতো নাটক প্রচার হয়েছে। সম্প্রতি রিক্তা শেষ করেছেন একক নাটক ‘জানেমান দিল কোরবান’। বিদ্যুৎ রায়ের রচনায় নাটকটি পরিচালনা করেছেন জুয়েল হাসান। এরইমধ্যে উত্তরার বিভিন্ন লোকেশনে দৃশ্য ধারণ শেষ হয়েছে।

নাটকের গল্প প্রসঙ্গে জমজমাটকে ফারজানা রিক্তা বলেন, ‘জানেমান দিল কোরবান’ গল্পটি শহরের। আমাদের বাড়িতে তিনজন ব্যাচালার ভাড়া থাকে। তিন জনেরই নামের শেষে হাসান। অমিত হাসান, মোতালেব হাসান, জুয়েল হাসান। তিন জনই একই মেয়ের সাথে লাইন মারে। মেয়েটি একটি চিঠি পাঠায়। চিঠিটি তিন ব্যাচালারের হাতে পরে। চিঠিতে মেনশন করা থাকে প্রিয়তমা হাসান, আমার জানেমান হাসান। যেহেতু ব্যাচালার তিন জনের নামের শেষে হাসান তাই তিন জনই মনে করে তাদের পাঠিয়েছে। তিন জনের মধ্যে চিঠি নিয়ে শুরু হয় তোলপাড়। তিন জনই প্রেম নিবেদনের চেষ্টা করে। এক পর্যায়ে মেয়েটি ফাজলামি করে লাইন মারে। এভাবেই গল্পটি এগিয়ে যাবে।’

রিক্তা বলেন, ‘অনেক দিন পর ভালো একটি গল্পে কাজ করলাম। বর্তমানে আগের চেয়ে একটু বেছে বেছে কাজ করার চেষ্টা করছি। আমার চরিত্রর নাম পিংকি। মা মরা বাবার একমাত্র মেয়ে আমি। অনন্য গল্প থেকে এটি আলাদা। এক বছর পর পরিচালক জুয়েল হাসানের সাথে কাজ করলাম। হাস্যরসে ভরা নাটকটি দেখে দর্শক মজা পাবে।’

Previous articleপারভেজ সাজ্জাদ’র ‘ছাড়াছাড়ি’
Next articleচারপাশটা খুব বোরিং, প্রেম করার মানুষ পাচ্ছি না: পায়েল

Leave a Reply