একটি মোবাইল অপারেটরের বিজ্ঞাপনে মডেল হয়ে সাড়া ফেলেছিল শিশুশিল্পী প্রার্থনা ফারদিন দীঘি। এর পরই ডাক পায় চলচ্চিত্রে। মা দোয়েল ও বাবা সুব্রত দুজনই চলচ্চিত্রের মানুষ। তাঁদের দেখানো পথেই নেমে পড়ে ছোট্ট দীঘি। ‘চাচ্চু’, ‘দাদী মা’সহ একের পর এক হিট ছবি উপহার দিতে শুরু করে সে। শিশুশিল্পী হিসেবে চলচ্চিত্রে অভিনয় করে ব্যাপকভাবে আলোচিত হয়েছিলেন দীঘি। কাজী হায়াতের কাবুলীওয়ালা চলচ্চিত্রে অভিনয় করে অর্জন করেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারও।

একটা সময় তাকে ঘিরেই তৈরি হতো চলচ্চিত্রের গল্প। মাঝখানে অনেক দিন চলচ্চিত্র থেকে দূরে ছিল দীঘি। পড়াশোনা নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করেছে। সেই ছোট্ট দীঘি এখন অনেক পরিণত। খুব তারতারি নায়িকা হিসেবে চলচ্চিত্রে ‘ক্যামব্যাক’ করতে চলেছেন, এমনটা শোনা যাচ্ছে চলচ্চিত্র অঙ্গনে। এবার সব গুঞ্জন উড়িয়ে শাপলা মিডিয়ার নতুন পাঁচ চলচ্চিত্রে নায়িকা হিসেবে দেখা যাবে তাকে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দীঘি নিজেই।

জমজমাটকে দীঘি বলেন, সকালে সেলিম আংকেল আমাকে বেশ কয়েকবার কল দিয়েছিলেন। আমি ঘুম থেকে উঠে কল বেক করতেই আমাকে বললেন রেডি হও। আমাদের আগামী পাঁচটি ছবিতে নায়িকা হিসেবে তোমাকে কাস্ট করা হয়েছে। সত্যই কথা বলতে সেই সময়টা আসলে আমি কিছুই বুঝতে পারছিলাম না। ঘুম থেকে উঠেই এমন একটি খবর সত্যই আমি অনেক বেশি অবাক হয়েছি।

শাপলা মিডিয়ার নতুন পাঁচ ছবিগুলো যথাক্রমে নির্মাণ করবেন নির্মাতা শাহীন সুমন ‘গ্যাংস্টার’, মালেক আফসারী ‘ধামাকা’, কাজী হায়াতের একটি যা এখনো নাম চূড়ান্ত হয়নি আর শামীম আহামেদ রনি’র ‘টুঙ্গিপাড়ার মিয়া ভাই’ সহ আরো একটি।
দর্শদের উদ্দেশ্যে দীঘি বলেন, আমি অনেক ধন্যবাদ জানাই দর্শকদের যারা আমার জন্য এতদিন ধরে অপেক্ষা করেছেন। আমি আপনাদের আর হতাশ করবো না, খুব তারাতারি দেখা হবে আপনাদের সাথে।

Previous article‘আমাদের পারিবারিক ব্যাপার পারিবারিক ভাবেই শেষ করতে চাই’
Next articleমিউজিক ভিডিও ‘ছলনাময়ী কন্যা’

Leave a Reply