ছবি: সাইফুর রহমান

গেল কয়েক বছর ধরে ছোটপর্দায় রাজত্ব করছেন নন্দিত অভিনেত্রী মেহজাবীন চৌধুরী। সু-অভিনয় গুনে ছোট-বড় সবার প্রিয় হয়েছেন তিনি। করোনার মধ্যে তিনি ১২টি নাটকে অভিনয় করেছেন। বিগত বছর গুলোতে যেখানে চাঁদ রাত পর্যন্ত শূটিংয়ের ব্যস্ততা থাকতো সেখানে ঈদুল আযহায় এক ডজন নাটক নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে তাকে। এ নাটকগুলোর মধ্যে প্রাণপ্রিয়, নির্বাসন, অবাক প্রেম, কেন, স্বার্থপর, মিঃ এন্ড মিসেস চাপাবাজ, একাই একশো নাটক কয়টি দর্শকমহলে সাড়া ফেলে।

মেহজাবীন জমজমাটকে জানান, এবারের ঈদে প্রচার হওয়া অধিকাংশ নাটক থেকেই বেশ সাড়া পাচ্ছেন। ঈদের ছুটি কাটিয়ে এরইমধ্যে অনেকেই শূটিং শুরু করলেও এখনই শূটিংয়ে ফিরছেন না তিনি। করোনাকালে বেশ ঝুঁকি নিয়েই কাজগুলো করেছেন। আরও কিছু দিন দেখে শূটিংয়ে অংশ নিবেন। এই অভিনেত্রীর ভাষায় বর্তমানে অনেক ভালো ভালো নাটক নির্মিত হচ্ছে। ঈদ নাটকের মানও ঠিক থাকছে।

তিনি বলেন, করোনা পরিস্থিতে এত ভালো মানের কাজ করতে পারবো ভাবিনি। প্রত্যাশার চেয়ে বেশি সাড়া পেয়েছি। মেহজাবীন লকডাউনে বাসায় থেকে একটি কাজে অংশ নিয়েছিলেন। তিনি মনে করেন ভার্চুয়াল কাজে ভিন্ন রকম একটা অভিজ্ঞতা হয়েছে। করোনার আগে ও করোনার পরে শূটিং করেছেন। কেমন পার্থক্য? অনেক পার্থক্য। এ সময়ে শূটিং করা বেশ ঝুঁকিপূর্ণ। শূটিং ইউনিটের সদস্য সংখ্যা যখন কমে যায় তখন কাজের মানও কমে যায়।

যোগ করে মেহজাবীন বলেন, একটি নাটকে প্রতিটি মানুষের আলাদা আলাদা ভূমিকা রয়েছে। রোজার ঈদে নতুন নাটক ছিল না। কোরবানির ঈদেও যদি নাটক না থাকে তাহলে দর্শক মিস করবে। সেই ভাবনা থেকে দর্শকের কথা চিন্তা করেই ছাড় দিয়ে করোনার এ সময়ে ঝুঁকি নিয়ে কাজগুলো করেছি। কয়েক বছর ধরেই মেহজাবীন ছোটপর্দায় বেশ দাপুটের সাথে কাজ করছেন। তার দর্শকরা বড়পর্দায় দেখার আগ্রহ প্রকাশ করলেও তিনি এখনই প্রস্তুত নন।

Previous articleকরোনা থেকে সেরে উঠছেন টুটুল
Next articleনিরব-ইমন’র অতিথি মৌসুমী

Leave a Reply