২০১৯-২০ অর্থবছরে সরকারি অনুদানে নির্মিতব্য ‘আশীর্বাদ’ ছবির জন্য নির্মাতা মোস্তাফিজুর রহমান মানিক ও প্রযোজক জেনিফার ফেরদৌস মাহিয়া মাহি ও রোশানকে আনুষ্ঠানিক ভাবে চুক্তিবদ্ধ করিয়েছেন। এ ছবির মাধ্যমে প্রথমবারের মতো জুটি হচ্ছেন রোশান ও মাহিয়া মাহি। বুধবার (১৯ আগস্ট) দিবাগত রাতে সুবর্ণার জন্য মাহিকে এবং তাঁর বিপরীতে নায়ক চরিত্রে রোশানকে চূড়ান্ত করা হয়েছে। জমজমাটকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ছবির প্রযোজক জেনিফার ফেরদৌস।

২০১৯-২০২০ অর্থবছরে সরকারি অনুদানে পূর্ণদৈর্ঘ্য ১৬টি চলচ্চিত্রকে অনুদান দেয়া হয়েছে। এগুলোর মধ্যে অন্যতম ‘আশীর্বাদ’। এ ছবির প্রযোজনার পাশাপাশি জেনিফার ফেরদৌস কাহিনী ও চিত্রনাট্যেকার হিসেবে কাজ করছেন। ছবিটি পরিচালনা করবেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারজয়ী নির্মাতা মোস্তাফিজুর রহমান মানিক। সংলাপ করেছেন আব্দুল্লাহ জহির বাবু।

ছবিতে মাহিকে চূড়ান্ত করা প্রসঙ্গে প্রযোজক জেনিফার বলেন, ‘সরকারি অনুদান পাওয়ার পর থেকেই ‘আশীর্বাদ’ ছবির প্রধান নারী চরিত্র সুবর্ণার জন্য নায়িকা খুঁজছিলাম। এমন কাউকে চাচ্ছিলাম যে এই চরিত্রের জন্য পারফেক্ট হবে। অবশেষে মাহিয়া মাহিকে আমরা চুক্তিবদ্ধ করেছি। আশা করছি মাহির সঙ্গে আমাদের কাজের দারুণ অভিজ্ঞতা হবে। এবং এই ছবিতে মাহির বিপরীতে রোশানকে চূড়ান্ত করেছি দর্শকরা প্রথমবার পর্দায় এক সাথে রোশান-মাহি জুটিকে দেখতে পাবে। দর্শকদের প্রথমবার পর্দায় তাদের রসায়ন দেখানোর জন্য তাদেরকে এক সাথে নিয়ে আসছি। আমরা দর্শকদের নতুন কিছু উপহার দেব। আশা করি দর্শকরা সবকিছু ভালো ভাবেই গ্রহণ করবেন।’

মাহিয়া মাহি জানান, ‘মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক এই ছবির সুবর্ণা চরিত্রটি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন ছাত্রীর চরিত্র। মুক্তিযুদ্ধের আগের উত্তাল রাজনীতি এবং মুক্তিযুদ্ধের পটভূমি নিয়ে ছবিটি নির্মাণ করা হচ্ছে। প্রধান চরিত্রে থাকতে পেরে উচ্ছ্বসিত। আমি জেনিফার ফেরদৌস আপু এবং মানিক ভাইকে ধন্যবাদ দিতে চাই তাঁরা আমাকে এমন একটি চরিত্রের জন্য নির্বাচন করেছেন।’

পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমান মানিক বলেন, ‘আমরা এখন পর্যন্ত নায়ক ও নায়িকা চূড়ান্ত করেছি। বাকি অভিনয় শিল্পীদের নাম খুব শিগগিরই ঘোষণা করা হবে।’ এদিকে ছবিটির প্রি-প্রোডাকশনের কাজ চলছে। আগামী মাসের প্রথম সপ্তাহেই এর শুটিং শুরু হবে বলে প্রযোজনা সংস্থা থেকে জানান।

Previous articleচার পর্বের ধারাবাহিক ‘বাজিগর’
Next articleআড়াল ভেঙে চমকে দিলেন জেমস

Leave a Reply