আজ কিংবদন্তী অভনিত্রেী শবনমরে জন্মদনি। জন্মদিনে বিষাদেপূর্ণ উপমহাদেশের কিংবদন্তী অভিনেত্রী শবনম! করোনা প্রকোপে একের পর এক প্রিয়জনদের চলে যাবার সংবাদে তার হৃদয় বিষাদগ্রস্থ। এমনিতেই নিজের জন্মদিন পালন করেন না তারপরও তাকে মনে করিয়ে দিলে অস্ফূটকন্ঠে বলে উঠলেন কি হবে এসব মনে করে? এসব মনে পড়লে নিজের ঘনিষ্ঠজনদের চলে যাবার দুঃস্বহ বেদনায় মন ভারাক্রান্ত হয়ে আসে।

দেখো যে ইন্ডাস্ট্রি থেকে আমার যাত্রা। পাকিস্তান থেকে ফিরে যে ফ্লোরে কাজ শুরু করি সেই ৩/৪ নম্বর ফ্লোর ভেঙে ফেলা হলো। কারো কোনো বিকার নেই অথচ সবাই ব্যস্ত ব্যক্তিগত ফ্যাসাদ নিয়ে। এসব ভালো লাগে না। প্রত্যাশা থাকবে জীবিত থাকতেই যেন আমার আঁতুরঘর বিএফডিসি যেন সেনালী সময়ে ফেরে।

চলচ্চিত্রে অভিনয় করে শবনম পাকিস্তানে তিনবার জাতীয় পুরস্কার, সর্বাধিক নিগার অ্যাওয়ার্ড, পিটিভি লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট, লাক্স আজীবন সম্মাননা অর্জন করেন। সবশেষ তিনি করাচি সাহিত্য সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হয়ে সেখানে নিজের চলচ্চিত্রের অভিজ্ঞতা শেয়ার করেছেন।

জন্মস্থান বাংলাদেশে স্থায়ী হয়ে করেছেন বেশকিছু ছবি। এরমধ্যে সন্ধি, সন্দেহ, কারণ, সহধর্মিণী, শর্ত, যোগাযোগ, জুলি, বশিরা, দিলসহ আরো বেশ কিছু বাংলা ছবি। তবে অজানা কারণে আম্মাজানখ্যাত এই অভিনেত্রী বাংলাদেশে রাষ্ট্রীয় সম্মাননা বঞ্চিত। অভিমান আছে কি না জানতে চাইলে বলেন এক জীবনে মানুষ সব পায় না। তারপরও দর্শক এখনও আমাকে মনে রেখেছে এটাই বড়প্রাপ্তি।

Previous articleপ্রকৃতি ‘বাটপার’
Next article১৫ আগস্ট: ফিল্ম আর্কাইভে চলছে স্থিরচিত্র প্রদর্শনী

Leave a Reply