জমজমাট প্রতিবেদন

ফেইসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে আদালতের প্রতি কটাক্ষ করার পাশাপাশি ডিরেক্টরস গিল্ডসহ বিভিন্ন সংগঠনের সমালোচনা করলেন জনপ্রিয় নির্মাতা মোস্তফা সরোয়ার ফারুকী।

আজ তার ফেইসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে তিনি লিখেন “আমাদের এইসব ডিরেক্টরস গিল্ড, প্রডিউসারস গিল্ড এগুলো দিয়ে কি কাজ এটা আসলে ভাবার চেষ্টা করছি গত রাত থেকে! তারা নাকি শিপ্রা এবং সিফাতের ব্যাপারে সাংগঠনিকভাবে কিছু বলতে পারতেছেনা কারন এরা তাদের সদস্য না ! উনারা কোথায় কোন গ্রহে বাস করেন আমি জানিনা! তাইলে উনাদেরকে আমি জিজ্ঞেস করতে চাই, জর্জ ফ্লয়েড মারা যাওয়ার পর ডিরেক্টরস গিল্ড অব আমেরিকা বিবৃতি দিছিলো কেনো? ফ্লয়েড কি তাদের সদস্য?

“আশার কথা হলো, এই প্রাগৈতিহাসিকতার বাইরে আছে বাংলাদেশের বেশিরভাগ তরুন পরিচালক, অগণিত চলচ্চিত্রকর্মী, চলচ্চিত্রের ছাত্র যারা কোনো নেতার অপেক্ষা না করে প্রতিবাদ করে যাচ্ছে অনলাইনে-অফলাইনে! যখন নেতা না আসে, তখন তুমিই হও তোমার নেতা!

“সবশেষে, আমার বিশ্বাস আদালত পুরা ঘটনাটার মধ্যে যে দানবীয় অন্যায় আছে এটা বিবেচনায় নিয়ে সিফাত এবং শিপ্রার দ্রুত জামিনের ব্যবস্থা করবে! আদালত বুঝবে কত বড় তামাশা হইতে পারে এটা যে- পুলিশের গুলিতে মারা গেলো সিফাত-শিপ্রাদের লোক, আবার এই মৃত্যুর জন্য দায়ীও করা হইলে তাদের! এটাকে তামাশা না বলে কি বলা যাবে?”

ফারুকীর এই ফেইসবুক স্ট্যাটাস সম্পর্কে সুপ্রীম কোর্টের এক সিনিয়ার আইনজীবী জমজমাটকে বলেন “আদালতের সিদ্ধান্তকে দানবীয় আখ্যা দেয়া গুরুতর অপরাধ এবং আদালত অবমাননার শামিল। পাশাপাশি, ওই স্ট্যাটাসে আকারে-ইঙ্গিতে মেজর সিনহা হত্যাকাণ্ড পরবর্তী আইনী প্রক্রিয়াকে প্রশ্নবিদ্ধ করার অপচেষ্টা চালানোর পাশাপাশি স্পষ্টত উস্কানি দেয়া হয়েছে, যা দেশের প্রচলিত সাইবার অপরাধ আইনেও শাস্তিযোগ্য অপরাধ। ওনার মতো একজন ব্যাক্তি কেনো এভাবে স্ট্যাটাস দিলেন সেটা আমার বোধগম্য নয়। ঘটনাদৃষ্টে মনে হচ্ছে, ২০১৮ সালের নিরাপদ সড়ক আন্দোলনে যেভাবে সরকার বিরোধী একটি চক্র উস্কানি দেয়ার অপপ্রয়াস চালিয়েছিলো মেজর সিনহা হত্যাকাণ্ড নিয়েও একই ঘটনার পায়তারা চলছে।”

উল্লেখ্য কক্সবাজারে পুলিশের গুলিতে নিহতের মেজর (অব:) সিনহার মৃত্যুর ঘটনায় ওসি প্রদীপ কুমার, এসআই লিয়াকতসহ ৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়।

Previous articleকরোনা জয় করলেন তমা মির্জা, ফিরছেন শূটিংয়ে
Next articleমৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন শানাই

Leave a Reply