জমজমাট প্রতিবেদক:

কলকাতার মডেল-অভিনেত্রী পায়েল মুখার্জি। কলকাতার বাংলা চলচ্চিত্র ‘মাইকেল’, ‘ফাঁস’, ‘চলকুন্তল’সহ ওপার বাংলার অনেক ছবিতে অভিনয় করেছেন তিনি। অভিনয় মেধা আর গ্ল্যামারের কল্যাণে অল্প সময়েই লাইম লাইটে চলে এসেছেন তিনি। পাশাপাশি বাংলাদেশী চলচ্চিত্র দর্শকদের কাছেও তিনি বেশ পরিচিত। কারণ এখনকার ছবি ‘ক্যাপ্টেন খান’ ও ‘গন্ডি’তে অভিনয় করেছেন এই গ্ল্যামারাস অভিনেত্রী। আবার বাংলাদেশের মিউজিক ভিডিওতে দেখা গেছে।

ঢাকায় পায়েলের প্রথম চলচ্চিত্র ছিল ‘শ্যাওলা’। আয়োজন করে ছবিটির মহরতও হয়েছিল। তবে ছবিটি থমকে আছে।সামনে ক্যামেরা সচল হবে কি-না তা নিয়েও সন্দেহ রয়েছে। পায়েল জানান, আলোর মুখ দেখবে কি-না বলা মুশকিল। টেকনিক্যাল সমস্যার কারনে ছবিটি আটকে আছে। তবে প্রত্যাশা করি কাজ হবে। দুই দেশেই কাজ করছেন পায়েল। তার কাছে প্রশ্ন রাখি দুই দেশের কাজের পার্থক্য? জবাবে বলেন, প্রায়ই এক তেমন পার্থক্য নেই।বাংলাদেশে ‘আয়নাবাজি’ ও ‘ঢাকা অ্যাটাক’র মতো অনেক ভালো ভালো ছবি হচ্ছে। ভালো গল্প পেলে পায়েল বাংলাদেশে নিয়মিত কাজ করতে চান। বাংলাদেশে পছন্দের নায়ক? মোশাররফ করিম ও চঞ্চল চৌধুরী।কলেজ জীবন থেকে তাদের নাটক দেখি। তাদের ভীষন ভক্ত। অভিনেত্রী হিসেবে নুসরাত ইমরোজ তিশা, জয়া আহসানের নাটক দেখতে ভোলেন না। তিনি মনে করেন বাংলাদেশের নাটক খুব সাবলীল, অনেক বেশি স্বাচ্ছন্দ্য। কখনো সুযোগ পেলে সিনেমায় মোশাররফ করিমের নায়িকা হতে চান।

নায়িকা হলেই চুম্বন দৃশ্যে অভিনয় করতে হবে, এই কথার প্রেক্ষিতে কী বলার আছে? আমি একজন ফ্লেক্সিবল অভিনেত্রী। কোনো দৃশ্য করতে আমার আপত্তি নেই, তবে সেটার যথাযথ ব্যাখ্যা ও প্রয়োজনীয়তা আমাকে বুঝিয়ে দিতে হবে আগে। মানে যদি যৌক্তিক মনে হয়, তাহলে আমার আপত্তি নেই।

Previous articleজাজ মাল্টিমিডিয়া বন্ধ! পলাতক আব্দুল আজিজ দিচ্ছে সিনেমা নির্মাণের ঘোষণা
Next articleবাস্তবধর্মী গল্পে কাজ করতে চাই: প্রসূন আজাদ

Leave a Reply