জমজমাট প্রতিবেদক: গীতিকার-সুরকার, নির্মাতা ও স্থপতি এনামুল করিম নির্ঝরের কথা ও সুরে ঈদ-উল আজহায় প্রকাশ হচ্ছে ১৬ গানের অ্যালবাম ‘আমি কি আমাকে চিনি?’ বেঙ্গল ক্লাসিক টি-এর সহযোগিতায় ইকেএনসি নিবেদিত গানগুলোতে কণ্ঠ দিয়েছেন অটামনাল মুন ও শানিলা ইসলাম প্রমিতি। এর মধ্যে অ্যালবামের ছয়টি গানে কণ্ঠ দিয়েছেন অটামনাল মুন। বাকি দশটি গানে কণ্ঠ দিয়েছেন তরুণ শিল্পী শানিলা ইসলাম প্রমিতি। সব গানের সংগীতায়োজন করেছেন মুন। বৃহস্পতিবার ইকেএনসির আয়োজনে অনুষ্ঠিত হলো অ্যালবামটির ব্যতিক্রমী এক প্রিমিয়ার।

ইকেএনসি’র ফেসবুক পেইজে অ্যালবামটিকে স্বাগত জানাতে আয়োজিত লাইভ অনুষ্ঠানে নিজ নিজ অবস্থান থেকেই যোগ দেন দেশবরেণ্য শিল্পীরা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সঙ্গীত পরিচালক ও সুরকার শেখ সাদী খান, সংগীতশিল্পী ফাহমিদা নবী, গীতিকার জুলফিকার রাসেল, সংগীত শিল্পী আগুন, সংগীতশিল্পী রুমানা ইসলাম, সিটি গ্রুপের ব্র্যান্ড ম্যানেজার রুবাইয়াৎ হোসেন, সংগীতশিল্পী কোনাল, সংগীতশিল্পী অটামনাল মুন ও শানিলা ইসলাম প্রমিতি এবং গীতিকার-সুরকার এনামুল করিম নির্ঝর।

অনুষ্ঠানে সরাসরি উপস্থিত হতে না পারলেও অ্যালবামটিকে অডিও বার্তায় স্বাগত জানান সংগীত তারকা কুমার বিশ্বজিৎ।

অতিথিরা বলেন, এনামুল করিম নির্ঝর সবসময়ই ব্যতিক্রমী কাজ করে থাকেন। তেমনই একটি প্রয়াস এ অ্যালবাম। অ্যালবামের গান গেয়েছেন স্বনামধন্য নির্মাতা খান আতা ও নিলুফার ইয়াসমিনের নাতনি শানিলা ইসলাম প্রমিতি। তার মা রুমানা ইসলামও যেমন গান করেন, মামা আগুনও দেশের খ্যাতিমান শিল্পী। এমনই এক সাংস্কৃতিক পরিবারের উত্তরাধিকার যখন তার সংগীত জীবনের প্রথম আত্মপ্রকাশ মুহুর্তে উপস্থিত-নিশ্চয়ই তা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি ক্ষণ। আমরা তার সাফল্য কামনা করি। শ্রোতাদের কাছে ইতিমধ্যেই গ্রহণযোগ্য অটামনাল মুন। নিশ্চয়ই বরাবরের মতো এবারও গ্রহণযোগ্যতা পাবে তার কাজ।

অন্যদিকে, অ্যালবামটির রুপকার এনামুল করিম নির্ঝর বলেন, গান শোনার প্রযুক্তি, মাধ্যম ও রুচির  ক্রমবিবর্তনের এই সময়ে এক নির্ঝরের গান চেষ্টা করে যাচ্ছে এক ধরনের সংযুক্তির প্রক্রিয়া গড়ে তুলতে। নতুন বাংলা গান নির্মাণকে কেন্দ্র করে কন্ঠশিল্পী, সঙ্গীতায়োজক, যন্ত্রশিল্পী, প্রযুক্তিবিদ, শব্দশিল্পী পৃষ্ঠপোষকসহ সংশ্লিষ্ট সবার সাথে শ্রোতাদের সম্প্রীতি বন্ধন আমাদের লক্ষ্য।  ২০২০ সালের এই অচেনা আচমকা দুঃসময়ে কিভাবে সঙ্গীতনির্ভর মানুষদের পাশে দাঁড়িয়ে তাদের কাজে সক্রিয় রাখা যায়, সেই চেষ্টার চালু করতেই এবারের ঈদুল আজহা উপলক্ষে প্রকাশিত হলো অ্যালবামটি।

‘আমি কি আমাকে চিনি?’ সংকলনে কি ধরনের গান থাকছে? বিষয়বস্তুই বা কি? যে সময়টায় আমরা বাস করছি সেটা কি বাস্তব? অবাস্তব? নাকি পরাবাস্তব? কাকে করবো এই প্রশ্ন? কেইবা দিবে এর প্রকৃত উত্তর?

নির্ঝর বলেন, প্রচন্ড বিচ্ছিন্নতার মধ্যে যে যার মতো করে নিজস্বতার ঘোরে আমরা এই প্রশ্নটা করতেও ভুলে যাচ্ছি ক্রমশঃ। যেন এমন বাস্তবতাই আমাদের নিয়তি। তাই প্রশ্নবোধক মনটাকে একটু উসকে দিতে দোষ কি? আর তার সাথে যদি যোগ হয় সুর, তাহলে বেসুরো সময়টাও হয়তোবা মনের নাগালে আসলেও আসতে পারে! এই অ্যালবামের গানগুলো মূলত চারপাশের অভিব্যক্তি ও সংস্পর্শ অবলোকন পরবর্তী একধরনের সাঙ্গীতিক বিবৃতি!

চাঁদ রাত (৩১ জুলাই) থেকে প্রতিদিন একটি করে গান প্রকাশিত পাচ্ছে ইকেএনসি-এর ফেইসবুক পেইজ ও ইউটিউব চ্যানেলে।

Previous articleআজ বৈশাখী টিভিতে ‘ছোট ভাই’
Next articleরক্তাক্ত এফডিসি, করোনা’র ঈদ এবং কিছু প্রশ্ন

Leave a Reply