জমজমাট ডেস্ক: দুই বাংলার দর্শকপ্রিয় গুনী অভিনেত্রী জয়া আহসান। তিনি বাংলাদেশে যতটা চুটিয়ে কাজ করেন ততটাই ভাল কাজ করেন তিনি কলকাতার ছবিতেও। বাংলাদেশ ও ভারতে সমানভাবে কাজ করে চলেছেন তিনি। ইতিমধ্যে প্রযোজনা করেছেন একটি ছবিও। একের পর এক প্রথম সারির পরিচালকের ছবি তাঁর ঝুলিতে। প্রথম প্রযোজিত ছবিতে বাজিমাত করেন জয়া।

দীর্ঘ ক্যারিয়ারে জয়াকে বিভিন্ন সময়ে প্রেমের গুঞ্জনে পড়তে হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে এতোদিন চুপ ছিলেন জয়া। এসব গুঞ্জন নিয়ে তার খুব একটা মাথাব্যথা নেই। আলোচনা-সমালোচনা সব সময় তিনি পজিটিভ ভাবে দেখছেন। তবে সহকারী অভিনেত্রী অপি করিমের প্রশ্নের জবাবে প্রেম জীবন নিয়ে জানালেন সব কথা। একটি টেলিভিশনের জনপ্রিয় অনুষ্ঠান ‘অপি’স গ্লোয়িং চেয়ার। এটি উপস্থাপনা করেন অপি করিম। সেখানে সম্প্রতি অতিথি হিসেবে হাজির ছিলেন জয়া।

আলাপের এক পর্যায়ে অপি তাকে প্রশ্ন করেন, যখন যে পরিচালকের সঙ্গে আপনি কাজ করেন তার সঙ্গে আপনাকে জড়িয়ে অনেক কথা শোনা যায়। এমনভাবে শোনা যায় যে বিশ্বাস করতে বাধ্য হতে হয়। এটা কেন? সাধারণত কোনো অভিনেত্রীর প্রেমের গুঞ্জন ছড়ায় কোনো একজন অভিনেতা বা পরিচালকের সঙ্গে অনেক বেশি কাজ করতে থাকলে। কিন্তু আপনাকে নিয়ে একাধিক পরিচালকের সঙ্গে গুঞ্জন আসে। খুব মুখরোচক গল্প হয়। সেগুলো কেন?

জবাবে জয়া বলেন, আমিও বাধ্য হচ্ছিলাম কিছুদিন আগে যখন একজন রাজনীতিবিদকে জড়িয়ে আমার প্রেমের গুঞ্জন ছড়ালো। অবাক হয়ে যাই এইসব মুখরোচক গল্পগুলো কীভাবে তৈরি হয় এবং কীভাবে ছড়ায়। আমি যখন ওই ভদ্রলোকের সঙ্গে আমার প্রেমের খবরটি শুনলাম নিজের মনেই হাসলাম। ওই ভদ্রলোকের নামও আমি ভালো করে শুনিনি। বুঝলাম যে এটা হয়তো একটা প্যাকেজ। খ্যাতি আসলে বিড়ম্বনা আসবে।

তিনি আরো বলেন, পরিচালকদের নিয়ে যে গুঞ্জন ছড়ায় সেটা আসলে আমি কিছু বলতে পারবো না। পরিচালকরাই ভালো বলতে পারবেন। এখন কেউ যদি আমার কাজের প্রেমে পড়ে সেটা ঠিক আছে। পেশাদারিত্ব এটা। কিন্তু কেউ যদি আমার প্রেমে পড়ে বা মানুষটার প্রেমে পড়ে সেটাতে আমার কোনো হাত নেই।

Previous articleশাওন-ইভানা’র ‘মাল্টি প্লাগ’
Next articleকাঠগড়ায় শাকিব খান

Leave a Reply