জমজমাট প্রতিবেদক: করোনা আতঙ্কে এমনিতেই মিডিয়াপাড়ায় কাজের সংখ্যা অনেক কমে গেছে। গত ঈদুল ফিতরে তেমন কোন কাজই হয়নি। তারকাখ্যাতি পাওয়া অনেকেই ঘর হতে বের হয়নি, যোগদান করেনি কোন শুটিংয়ে। তবে ঈদুল-আযহায় দৃশ্যপটে অনেক পরিবর্তন এসেছে। করোনাকে মেনে নিয়ে সচেনতার সাথে অনেক শিল্পী ও নির্মাতা কাজে ফিরেছন। আমিও বেশ কিছু কাজ করেছি এবারের ঈদকে কেন্দ্র করে, এমনটাই বললেন অভিনেত্রী আইরিন তানি।

আইরিন ঈদুল-আযহার জন্য পাঁচটি নাটকে কাজ করেছেন। তারমধ্যে দুইটি একক, তিনটি ধারাবাহিক নাটক। নাটকগুলো হচ্ছে গোলাম সোহরাব দোদুল পরিচালিত সাত পর্বের ধারাবাহিক ‘বনে-ভোজন’, একক নাটক ‘সাইলেন্ট জোন’, ফরিদুল হাসানের ‘বিগ বস’ ও ‘প্লিজ মাফ করবেন’।

ক্রাউন এন্টারটেইনমেন্ট প্রযোজিত ‘বনে-ভোজন’ ধারাবাহিক প্রসঙ্গে আইরিন তানি বলেন, ‘আমি আর আমার স্বামী একটি রিসোর্টে ঘুরতে যাই। নাটকটিতে বয়স্ক বাবার চরিত্রে অভিনয় করেছেন অভিনেতা জাহিদ হাসান। আমরা পরিকল্পনা করে যাই রিসোর্টে গিয়ে কেউর টাকা খরচ করবো। জাহিদ ভাইকে পেয়ে পরিকল্পনা অনুযায়ী সকল সুবিধা ভোগ করি। আাসার সময় তাকে (জাহিদ হাসান) দেখিয়ে চলে আসি। হাস্যরসে ভরা ধারাবাহিকের গল্পটি। বাকি গল্প জানতে হলে দেখতে হবে নাটকটি। এছাড়াও অনন্য নাটক কয়টিতেও দর্শক ভিন্ন ভিন্ন চরিত্রে দেখতে পাবে।’

দীপ্ত টিভিতে প্রচারিতব্য গোলাম সোহরাব দোদুলের সাত পর্বের বিশেষ ধারাবাহিক ‘বনে-ভোজন’ সম্পর্কে তানি একটু উচ্ছাস নিয়েই বলেন, ‘কাজটি ক্রাউনের ছিলো জানতামই না। কারণ, সাধারনত অন্যান্য প্রযোজকের বেলায় অধিকাংশ ক্ষেত্রেই দেখা যায় প্রযোজক কিংবা প্রযোজক প্রতিনিধি শুটিং এ উপস্থিত থেকে শিল্পীদের সাথে পরিচিত হতে আগ্রহ প্রকাশ করেন। ব্যতিক্রম ছিলো ‘বনে-ভোজন’র প্রযোজক। বাজারে এই সময়ে সবচেয়ে বেশি আলোচিত প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ক্রাউন এন্টারটেইনমেন্ট। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম, অনলাইন পোর্টাল, পত্র-পত্রিকার মাধ্যমে যখন জানলাম ক্রাউন এন্টারটেইনমেন্ট অনেক অনেক কাজ করছে তখন বেশ অবাকই হয়েছিলাম। এতো কাজ হলে আমরা কাজ করিনি কেন? পরে যখন জানলাম ক্রাউনের ব্যানারে কাজ করে ফেলেছি আমিও তখন অবাকই হয়েছি। কোন সাড়া শব্দ নেই, প্রযোজক বা প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের কর্তা ব্যক্তিদের সেলফিবাজী নেই এমন প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান খুব কমই আছে। ক্রাউন সংশ্লিষ্ট কাওকে শুটিং লোকেশনে দেখিও নি। পরে শুনেছি কিছু সময়ের জন্য কেউ একজন এসেছিলেন সবার অলক্ষ্যে এবং পরিচালকের সাথে দেখা করেই বিদায় নিয়েছেন। বিষয়টি সত্যিই অবাক করার মতো এই সময়ে। ক্রাউন এন্টারটেইনমেন্ট সত্যিই কাজ করতে এসেছে, অযথা গালগল্প করতে নয়- এমনটাই বিশ্বাস করেন- আইরিন তানি।

আইরিন বলেন, ‘করোনা ভাইরাসের কারণে এবার কম কাজ করেছি। করোনার এ সময়ে পরিবারের সাথে সময় কাঁটিয়েছি। নতুন কিছু সিনেমা-নাটক দেখেছি। আশা করি কোরবানির সাথে সাথে করোনা ভাইরাসও ধুয়ে মুছে যাবে। তাহলে আমরাও সবাই নির্ভয়ে কাজ করতে পারবো।’ ঢাকাতেই ঈদ করবেন আইরিন। আলাপের শেষে এ অভিনেত্রী জমজমাট ম্যাগাজিনের নতুন পথচলায় শুভ কামনা জানান। সেই সাথে ম্যাগাজিনটির সাফল্য কামনা করেন।

Previous articleঈদে ফরিদুল হাসানের পাঁচ নাটক
Next articleকাজী শুভর ‘দুঃখ দিলা’

Leave a Reply